logo
  • ঢাকা শুক্রবার, ০৫ জুন ২০২০, ২২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

করোনা আপডেট

  •     গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত্যু ৩৫ জন, আক্রান্ত ২৪২৩ জন, সুস্থ হয়েছেন ৫৭১ জন: স্বাস্থ্য অধিদপ্তর

ভাতে কি সত্যিই কোনো পুষ্টি নেই?

হাবিবা নাজলীন লীনা
|  ১৭ মে ২০২০, ১৮:১৩ | আপডেট : ১৭ মে ২০২০, ২১:০৩
Let's find out the amount of nutrients in rice
ফাইল ছবি

শুধুমাত্র এশিয়া মহাদেশের ৯০ শতাংশ মানুষের প্রধান খাদ্য শক্তি হিসেবে বিবেচিত অর্থাৎ পৃথিবীর ৬০ শতাংশ মানুষের প্রধান খাদ্য শস্যই হচ্ছে ধান। আর আমাদের বাঙালিদের তো বলা হয়, মাছে ভাতে বাঙালি'। কিন্তু অনলাইন ডায়েটের যুগে অনেককে বলতে শুনেছি ভাতে নাকি ঘোড়ার ডিম, এতে নেই কোনো পুষ্টি উপাদান। ভাত খেলে নাকি আরও উল্টো মোটা হয়।

চলুন আজ ভাতের পুষ্টি সম্পর্কে জেনে নিই।

পুষ্টি সম্পর্কিত তথ্য

১ কাপ (১৯৫ গ্রাম) সাদা চালে কী পরিমাণ পুষ্টি উপাদান আছে চলুন জেনে নিই-

কার্বোহাইড্রেট (৪৪.৭ গ্রাম) প্রোটিন (৫ গ্রাম) ফ্যাট (০.৬ গ্রাম) (এছাড়া ওমেগা-৩ ও ওমেগা-৬ ফ্যাটি এসিড ও আছে খুব অল্প পরিমাণে), ভিটামিন-ই (০.১ গ্রাম), ভিটামিন-কে (১.২গ্রাম), ভিটামিন-বি৬ (০.৩ গ্রাম) (এছাড়া থায়ামিন, নায়াসিন, ফলেট, কোলাইন, বিটাইন, রিবোফ্লেভিন ভালো অনুপাতে রয়েছে।)

এছাড়া আছে ক্যালসিয়াম (১৯.৫ মিলিগ্রাম), আয়রন (০.৮ মিলিগ্রাম), ম্যাগনেসিয়াম (৮৩.৯ মিলিগ্রাম), ফসফরাস (১৬২ মিলিগ্রাম), পটাসিয়াম (৮৩.৯ মিলিগ্রাম), সোডিয়াম (৯.৮ মিলিগ্রাম) এবং দস্তা, তামা, ম্যাঙ্গানিজ এবং সেলেনিয়াম কম অনুপাতে রয়েছে। এতে অল্প পরিমাণ সোডিয়াম, সেলেনিয়াম ও ম্যাঙ্গানিজ আছে।

সঙ্গে ১৪৩ গ্রাম পানি যুক্ত করলে সর্বমোট ক্যালোরি পাবেন -২১৬।

চলুন জেনে নিই ভাতের কিছু উপকারী দিক-

  • বিশ্বের অনেক দেশে ভাত খাওয়া হয় নিয়মিতই। জাপানিদের প্রধান খাদ্যই ভাত। ফিলাডেলফিয়ার টেম্পল ইউনিভার্সিটির একজন জাপানি গবেষক ও তার সহকর্মীরা গবেষণায় জানিয়েছেন, ভাত হৃদরোগ প্রতিরোধ করে অনন্য ভূমিকা পালন করে। জাপানে হৃদরোগে মৃত্যুর হার কম হওয়ার সম্ভবত এটাই কারণ।
  • ভাতে ‘জিআই’ অর্থাৎ গ্লাইসেমিক ইনডেক্স এর মাত্রা অনেক বেশি। অর্থাৎ ভাত রক্তে গ্লুকোজের পরিমাণ অতি দ্রুত অনেক বেশি বাড়িয়ে দিতে পারে। তারমানে এই নয় যে খাদ্যাভ্যাস থেকে ভাতকে সরিয়ে ফেলতে হবে। সমাধান হল, ভাতের সঙ্গে খেতে হবে ‘জিআই’ এর মাত্রা কম এমন খাবার যেমন- ডাল, ডিম, মাংস, মাছ ইত্যাদি। ফলে খাবারের ‘জিআই’ এর মাত্রায় ভারসাম্য থাকবে।
  • ভাতে কোনো গ্লুটেন থাকে না। এজন্য ভাত সবচেয়ে ভালো নন-অ্যালার্জিক খাদ্য। অনেকের গ্লুটেনে অ্যালার্জি থাকে, তাদের জন্য ভাত আদর্শ খাবার। কারণ এর মাধ্যমে তারা অন্য পুষ্টি উপাদানগুলো ও গ্রহণ করতে পারে। ভাতে আছে বিভিন্ন ধরণের ভিটামিন বি, ডি, ক্যালসিয়াম, ফাইবার, আয়রন ও বিভিন্ন ধরণের খনিজ উপাদান যা আমাদের শরীরের জন্য প্রয়োজনীয়।
  • তুষ থেকে তৈরি তেলে শক্তিশালী অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকে যা হৃদপিণ্ডকে বিভিন্ন রোগের প্রতিরোধী হতে সাহায্য করে। এছাড়াও ভাতে খারাপ কোলেস্টেরল থাকেনা তাই  কোলেস্টেরলের স্তর কমাতে সাহায্য করে।
  • আমাদের শরীরের প্রয়োজনীয় এনার্জি প্রদান করে ভাত। কারণ ভাতে প্রচুর কার্বোহাইড্রেট থাকে। কার্বোহাইড্রেট বিপাকের জন্য অত্যাবশ্যকীয় এবং এটি শরীরে রূপান্তরিত হয়ে কার্যকরী ও ব্যবহার উপযোগী শক্তিতে পরিণত হয়। ভাতে ফ্যাট, লবণ ও চিনি খুব কম পরিমাণে থাকে।
  • ভাতে সোডিয়াম এর পরিমাণ কম থাকে বলে যাদের হাইপারটেনশন বা উচ্চরক্তচাপ থাকে তাদের জন্য ভাত সবচেয়ে ভালো খাবার।
  • আয়ুর্বেদ চিকিৎসকেরা ত্বকের উপরিভাগের যন্ত্রণা প্রশমনের জন্য ভাতের মাড় ব্যবহার করার পরামর্শ দেন। ভাতে বিশেষ করে বাদামী চালের ভাতে ফেনোলিক যৌগ থাকে, প্রদাহরোধী উপাদান থাকে যা ত্বকের লাল ভাব ও যন্ত্রণা কমাতে সাহায্য করে। ত্বকের বলিরেখা ও বয়সের ছাপ পড়াকে ধীর করতে পারে ভাতের অ্যান্টিওক্সিডেন্ট।
  • বাদামী চালের ভাতে উচ্চমাত্রার পুষ্টি উপাদান থাকে যা নিউরোট্রান্সমিটারের বৃদ্ধিতে সাহায্য করে। ফলে আলঝেইমার্স এর ব্যপ্তিকে প্রতিহত করে।এছাড়াও বাদামী চালের গ্লিসামিক ইনডেক্স কম বলে ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য ভালো। প্রাত্যহিক ম্যাঙ্গানিজের প্রয়োজনীয়তা পূরণ করতে পারে ১ কাপ ভাত।

অন্যদিকে, মিনিকেট চালের নামে অপেক্ষাকৃত সাদা ও চিকন চাল কেনা থেকে সকলেই বিরত থাকুন। মোটা চাল মেশিনে কেটে চিকন করার কারণে চালের প্রায় সব পুষ্টি গুণাগুণ নষ্ট হয়ে যায়। কৃত্রিমভাবে তৈরি সাদা ও চিকন চালের ভাত দীর্ঘদিন খেলে মানবদেহে ক্যানসার হওয়ার আশঙ্কা থেকে যায়, হৃদরোগ, টাইপ- ২ ডায়বেটিসের ঝুঁকি বাড়ায়। তাই যদি বলতেই হয় এটাই বলি মিনিকেট চালের ভাতে কোনো ঘোড়ার ডিম পুষ্টিই নেই।

মোটা চালের ভাতে অভ্যস্ততা বাড়ান। সুস্থ থাকুন।

লেখা- হাবিবা নাজলীন লীনা; শিক্ষানবিশ, খাদ্য ও পুষ্টি বিজ্ঞান।

জিএ

RTVPLUS
corona
দেশ আক্রান্ত সুস্থ মৃত
বাংলাদেশ ৫৭৫৬৩ ১২১৬১ ৭৮১
বিশ্ব ৬৭০২৬৬২ ৩২৫১৫৪৪ ৩৯৩২১০
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • লাইফস্টাইল এর সর্বশেষ
  • লাইফস্টাইল এর পাঠক প্রিয়