logo
  • ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ৭ ফাল্গুন ১৪২৬

শৈশবের আনন্দ ও দুরন্তপনা ফিরিয়ে দিতে ‘ফার্ম ফ্রেশ চিলড্রেনস ডে’ আয়োজন

বিজ্ঞপ্তি
|  ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৫:২৮ | আপডেট : ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৫:৫১
শৈশবের আনন্দ ও দুরন্তপনা ফিরিয়ে দিতে ‘ফার্ম ফ্রেশ চিলড্রেনস ডে’ আয়োজন
শৈশবের আনন্দ ও দুরন্তপনা ফিরিয়ে দিতে ‘ফার্ম ফ্রেশ চিলড্রেনস ডে’ আয়োজন

‘কী করি আজ ভেবে না পাই, পথ হারিয়ে কোন্ বনে যাই, 
কোন মাঠে যে ছুটে বেড়াই সকল ছেলে জুটি, 
আজ আমাদের ছুটি ও ভাই আজ আমাদের ছুটি’ 

রবি ঠাকুরের এই ‘সকল ছেলের জুটি’ ভেবে পাচ্ছে না কোন মাঠ ছেড়ে কোন মাঠে আজ এই ছুটির দিনে খেলতে যাবে! অর্থাৎ খেলার জন্য মাঠ আছে কি-না কিংবা কোথায় খেলবো এসব নিয়ে তাদের কখনও ভাবতে হয়নি। বরং অনেক মাঠের মধ্যে পছন্দের মাঠ খুঁজে নেয়ার সুযোগ পেয়েছিল রবি ঠাকুরের শিশু-কিশোর জুটি। ছুটির আনন্দে মাতোয়ারা হওয়ার সুযোগগুলো আজ ইট-পাথরের চার দেয়ালে বন্দী। পথ হারিয়ে বনে যাওয়া কিংবা মাঠে ছুটে বেড়ানোর কোন অবকাশই যে মেলে না আজকালকার শিশুদের দৈনন্দিন রুটিনে। 

ব্যস্ততম নগরী ঢাকা শহরে শৈশবের দুরন্তপনা এখন চোখেই পড়ে না। যেখানে খেলার মাঠ পাওয়া যায় না, সেখানে মাঠে ছুটে বেড়ানো শিশু কিশোরকে দেখার সুযোগও থাকার কথা নয়। এখনও স্কুলগুলোতে নিয়ম করে ছুটির ঘণ্টা বাজে ঠিকই কিন্তু ছুটির পর হৈ হৈ করে মাঠের দিকে ছুটে যাওয়া শিশু কিশোরের দল চোখে পড়ে না। আমাদের কোমলমতি শিশুদের শৈশবকে দুরন্ত ও আনন্দময় করে তুলতে সরকার, সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় এবং দেশের বড় বড় প্রতিষ্ঠানগুলো এগিয়ে আসতে পারে। আকিজ ফুড অ্যান্ড বেভারেজ লিমিটেড(এএফবিএল) ইতোমধ্যে এগিয়ে এসেছে যা খুবই ইতিবাচক। যেমন- এএফবিএল-এর ডেইরি ব্র্যান্ড ফার্ম ফ্রেশ প্রতিবছর বিশেষ দিনে চিলড্রেন’স ডে পালন করে থাকে, যেখানে শিশুদের জন্য একইসাথে মজার এবং শিক্ষামূলক সব আয়োজন থাকে।

তারই ধারাবাহিকতায় এবারও রাজধানীর গুলশান ২ এর শহীদ তাজউদ্দীন আহ্মদ স্মৃতি পার্কে (পূর্বের ওয়ান্ডারল্যান্ড) শিশুদের জন্য আয়োজন করা হয়েছে ‘ফার্ম ফ্রেশ চিলড্রেনস ডে’। আগামী ১৪ ও ১৫ ফেব্রুয়ারি দুই দিনই সারাদিন শিশুদের জন্য চমৎকার সব খেলাধুলার আয়োজন করা হয়েছে। যার মধ্যে আছে চিত্র অংকন প্রতিযোগিতা, কোলাজ ক্রাফট প্রতিযোগিতা, সুন্দর হাতের লেখা প্রতিযোগিতা, পুতুল নাটক ও গল্প, সিসিমপুর, ম্যাজিক শো, কমেডি ও মাইম শো, থ্রিডি বায়োস্কোপসহ আরও চমৎকার সব আয়োজন। 

শুহুরে জীবনে শিশুরা যাতে নিরাপদে, নিশ্চিন্তে দুই দিন আনন্দে কাটাতে পারে, সে লক্ষ্যে ফার্ম ফ্রেশ-এর এই আয়োজন। কারণ, ফার্ম ফ্রেশ চায়- হাসবে, খেলবে, বাড়বে শিশু; সবারই চাই এমন ভালো কিছু। ‘ফার্ম ফ্রেশ চিলড্রেনস ডে’র মতো আয়োজন এবং সকলের সচেতনতা ও আন্তরিক প্রচেষ্টায় আমাদের শিশুদের ভবিষ্যত অনেক সুন্দর হয়ে উঠতে পারে। 

এস/ সি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • লাইফস্টাইল এর সর্বশেষ
  • লাইফস্টাইল এর পাঠক প্রিয়