logo
  • ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৩ জানুয়ারি ২০২০, ১০ মাঘ ১৪২৭

নখের কোণা ওঠা সমস্যায় কী করবেন?

লাইফস্টাইল ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন
|  ০৮ জানুয়ারি ২০২০, ১৫:২৮
নখের কোণা ওঠা সমস্যায় কী করবেন?
ফাইল ছবি

মানুষের শরীরের একটা গুরুত্বপূর্ণ অংশ নখ। আর এই নখ মানুষের হাত-পায়ের সৌন্দর্যে অন্যরকম মাত্রা যোগ করে। কিন্তু নখকে কেন্দ্র করে মাঝেমধ্যে অনেক সমস্যা দেখা যায়। নখ স্বাভাবিকভাবে যদি বৃদ্ধি না পায়, নিচের মাংসের ভেতর ঢুকে যায় তখন নখের কোণায় প্রচণ্ড ব্যথা অনুভূত হয়- এই সমস্যাকে ‘নখের কোনা ওঠা’ বলা হয়। 

হাতের নখের থেকে পায়ের নখে এই সমস্যা বেশি দেখা যায়। কারণ পায়ের নখে তুলনামূলকভাবে ধুলো, বালি, ময়লা, ঘাম, পানি বেশি লাগে। ফলে নখের কোনে ইনফেকশন দেখা দেয়। কখনো কখনো ব্যথার সঙ্গে পুঁজও দেখা যায়। কেটে ফেলারও কোনো উপায় নেই, কেননা তাতে মাংস কাটা পড়বে। নখের নিচের মাংস খুবই স্পর্শকাতর, তাই এই সামান্য সমস্যাতেই প্রচণ্ড ব্যথা ও ঘা হয়। এ অবস্থায় কী করবেন? 

নখের সমস্যায় পড়লে করতে পারেন এই কাজগুলো।

হাত-পা উষ্ণ লবণ পানিতে ভিজিয়ে রাখুন মিনিট দশেক। যতটা সহ্য করতে পারেন, ততটা গরম পানি নেবেন। কাজ শুরুর আগে মেনিকিউর সেট গরম পানি দিয়ে ভালো করে ধুয়ে জীবাণুমুক্ত করে নিন।

এবার হাত-পা ভালো করে মুছে নিন। মুছে নেয়ার পর নখ কাটুন। বেড়ে ওঠা বাড়তি নখ ও তার আশেপাশে যতটা সম্ভব কেটে ফেলুন। এবার রয়ে যাওয়া বাড়তি নখ চিমটার সাহায্যে সমান করে কাটুন। 

যদি ইতোমধ্যে ইনফেকশন হয়ে থাকে তাহলে অবিলম্বে ডাক্তারের কাছে যান। এই পদ্ধতি অবলম্বন করবেন না।

পা-হাত সর্বদা পরিষ্কার রাখুন এবং এমন হলে মোজা পরিধান করবেন না।

মেডিসিন বিশেষজ্ঞ ডা. আরবী বিনতে আজাদ বলেন, ছোট থেকে বড় সবারই জীবাণুনাশক দিয়ে নিয়মিত পরিষ্কার করতে হবে। তবে প্রতিকারের চেয়ে প্রতিরোধ করা ভালো। তাই নখ সব সময় সোজাভাবে কাটতে হবে। পায়ের স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে, বাইরে থেকে আসার পর পা ও হাত ভালোভাবে পানি দিয়ে পরিষ্কার করে মুছে ফেলতে হবে, পরিষ্কার জুতা ও মুজা পড়তে হবে, আরামদায়ক ও পায়ের মাপ মতো জুতা পড়তে হবে, প্রতিদিন গোসলের সময় পায়ের নিচের শক্ত চামড়া পরিষ্কার করতে হবে। তবে দীর্ঘ দিন নখের কোনা ওঠা সমস্যায় ভুগে থাকলে চিকিৎসকের পরামর্শ নেয়া ভালো।
 
এস/জিএ  

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • লাইফস্টাইল এর সর্বশেষ
  • লাইফস্টাইল এর পাঠক প্রিয়