logo
  • ঢাকা বুধবার, ২০ নভেম্বর ২০১৯, ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

ঘুম কম হচ্ছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহারে

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ২৩ অক্টোবর ২০১৯, ২৩:০০ | আপডেট : ২৩ অক্টোবর ২০১৯, ২৩:১৮
ঘুম কম হচ্ছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহারে
ফাইল ছবি
স্বাভাবিক নিয়মে দিনে একজন মানুষের ৬ ঘণ্টা ঘুমানোর কথা থাকলেও বর্তমান সময়ে কিশোর-কিশোরীরা প্রতিদিন ৬ ঘণ্টার কম ঘুমিয়ে থাকে। এর প্রধান কারণ হলো অতিরিক্ত সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার।

বর্তমান সময়ের কিশোর-কিশোরীরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেই বেশি সময় পার করতে পছন্দ করে। এর প্রধান কারণ হলো সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমকে আমাদের প্রধান বিনোদনের মাধ্যম হিসেবে বেছে নেয়া। এর ফলে তরুণ প্রজন্মের মধ্যে দেখা দিচ্ছে বিভিন্ন মানসিক সমস্যা।

এক গবেষণায় দেখা গেছে, প্রতি ৩ জনের মধ্যে ১জন দিনে ৫ ঘণ্টা বা তার চেয়ে বেশি সময় পার করে ফেসবুক, ইন্সটাগ্রাম, হোয়াটসঅ্যাপের মতো বিভিন্ন অ্যাপ্লিকেশন ব্যাবহারের মাধ্যমে।

মন বিশেষজ্ঞরা বলেন, ঘুমানোর ১ঘণ্টা আগে রুমের সব পর্দা বন্ধ করে দেয়া উচিৎ। যেন কোনভাবেই কোন আলোর কারণে ঘুম বিঘ্নিত না হয়। তবে বর্তমান সময়ে দেখা যায় আমরা সামাজিক মাধ্যমে এতোটাই নিজেকে ব্যস্ত করে ফেলি যে রুমের পর্দাটাই লাগাতে ভুলে যাই।

গ্লাসগো বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা বলছেন, রাত জেগে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহারের অভ্যাস বেশি দেখা যায় ১৩ থেকে ১৫বছর বয়সী কিশোর-কিশোরীদের মধ্যে।

আর একটি গবেষণায় দেখা যায়, কিশোর-কিশোরীদের সামাজিক মাধ্যমগুলো থেকে দূরে রাখা অনেকটাই চ্যালেঞ্জিং বিষয়। ৭০ভাগ কিশোর-কিশোরীরাই অতি সামাজিক মাধ্যম ব্যবহারের ফলে রাতে না ঘুমিয়ে তাদের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে অথবা কর্মস্থলে ঘুমিয়ে থাকে।

---------------------------------------------------------------
আরো পড়ুন: সুস্বাদু খাবার রান্না করতে পেঁয়াজ লাগে না
---------------------------------------------------------------

গবেষণায় আরও দেখা যায়, কিশোর-কিশোরীরা ঘুমানোর সময় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অতিবাহিত করার ফলে ঘুমের সময় কমিয়ে দেয়। এর ফলে মানসিক স্বাস্থ্য বিপর্যয় এবং ওজন কমার মতো স্বাস্থ্য ঘাটতি ঘটে থাকে।

২০১৫ সালে যুক্তরাজ্যে কিশোর-কিশোরীদের মধ্যে এক গবেষণায় দেখা যায়, তারা সাধারণ দিনের চেয়ে ছুটির দিনে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বেশি সময় পার করে এমন কি রাতে না ঘুমিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সময় পার করতে বেশি পছন্দ করে। তবে ওই গবেষণায় সবচেয়ে বেশি যে বিষয়টি সামনে উঠে আসে সেটি হচ্ছে ছেলেরা মেয়েদের চেয়ে বেশি সময় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পার করে থাকে।

রয়্যাল কলেজ অব সাইকিয়াট্রিস্ত এর শিশু কিশোর অনুষদের চেয়ারম্যান ডা. বার্নাডকা বলেছেন, যে সব যুবকরা বেশি হতাশায় ভুগে তারা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বেশি সময় পার করে।

ঘুমের বিপর্যয়ের কারণে শুধু আমাদের মানসিক সমস্যা হয় না এর পাশাপাশি এর ফলে আমাদের দৈনিক কার্যক্রমের ব্যঘাতও ঘটে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমকে যদি একটি নিয়মের মধ্যে না নিয়ে আসা যায় তাহলে এ বিপর্যয় থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব না।

এমকে 

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • লাইফস্টাইল এর সর্বশেষ
  • লাইফস্টাইল এর পাঠক প্রিয়