logo
  • ঢাকা শনিবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৬ আশ্বিন ১৪২৬

হজ যাত্রীদের যেসব বিষয়ে প্রস্তুতি নিতে হবে (ভিডিও)

আরটিভি অনলাইন ডেস্ক
|  ০৫ জুলাই ২০১৯, ১০:৩৮ | আপডেট : ০৫ জুলাই ২০১৯, ১২:৪০
পবিত্র জিলহজ মাসের চাঁদ দেখার ওপর ভিত্তি করে আগামী ১০ আগস্ট পবিত্র হজ অনুষ্ঠিত হতে পারে। গতকাল বৃহস্পতিবার আনুষ্ঠানিকভাবে হজ ফ্লাইট চালু হয়েছে।যারা হজে যাচ্ছেন তাদের নিতে হবে কয়েকটি বিষয়ে প্রস্তুতি।

স্বাস্থ্য পরীক্ষা, টিকা দেয়া, স্বাস্থ্য সনদ সংগ্রহসহ হজের জন্য প্রয়োজনীয় মালপত্র সংগ্রহ করার পাশাপাশি হজ পালনের প্রশিক্ষণ নিতে হবে।

আপনার ফ্লাইটের সময়সূচি আগেভাগেই নিশ্চিতভাবে জেনে নেবেন। ফ্লাইটের অন্তত এক সপ্তাহ আগে প্রয়োজনীয় এসব জিনিসপত্র সংগ্রহ করুন-

১. গলায় ঝুলিয়ে রাখার ব্যবহারযোগ্য ব্যাগ। যাতে পাসপোর্ট, টিকিট, হজের বই ও প্রয়োজনীয় জিনিস রাখা যায়।

২. ভিসার কপি। এখন সৌদি সরকার হজযাত্রীদের জন্য ই-ভিসা চালু করেছে। এই ভিসা পাসপোর্টের সঙ্গে লাগানো থাকে না। কাগজে প্রিন্ট করে দেয়। যার জন্য হজযাত্রীদের এটি আলাদাভাবে সংরক্ষণ করতে হয়।

৩. ইহরামের কাপড় ২-৩ সেট। একটু মোটা হলে সতর ঢাকতে সুবিধা হয়। ইহরামের কাপড় সাদা ও সুতি হওয়া ভালো। আড়াই হাত বহরের আড়াই গজের পিস নিচে পরার জন্য, আর তিন গজের পিস গায়ের চাদরের মতো ব্যবহারের জন্য। একটি হাজীবেল্ট রিয়াল রাখার জন্য।

৪. মেয়েরা বোরকা, সালোয়ার-কামিজ ও ব্যবহারের কাপড় প্রয়োজন অনুযায়ী নেবেন।  ঢিলেঢালা সাদা বা কালো বোরকা ব্যবহার করবেন। মিনায় পর্দা করার জন্য বড় চাদর ও গায়ে দেয়ার পাতলা কাঁথা নেবেন। যদি হোটেলে থাকেন তাহলে কাঁথা নেয়ার দরকার নেই। হোটেল থেকে কম্বল সরবরাহ করবে।

৫. লুঙ্গি, গেঞ্জি, পায়জামা, পাঞ্জাবি, টুপি, গামছা ও রুমাল প্রয়োজন অনুযায়ী নিন।

৬. বিছানার চাদর, মেসওয়াক, পেস্ট ও ব্রাশ, গুঁড়া সাবান, গোসলের সাবান, শ্যাম্পু, ছোট ছাতা। আরামদায়ক ও মজবুত স্যান্ডেল ২-৩ জোড়া, জুতার ব্যাগ, কিছু সুতলি, কয়েক গজ নাইলনের রশি, সাদা কাগজ, কলম ও ডায়েরি।

৭. প্লেট, গ্লাস, চামচ ও দস্তরখান, সুগন্ধিমুক্ত তেল ও ভ্যাসলিন নিন। ৮. তায়াম্মুমের জন্য মাটি নিন।

৯. রেজারসহ ব্লেড ৫টি, নেইলকাটার, ছোট চাকু, ছোট আয়না ও কাঁচি, সুচ, সুতা, সেফটিপিন নিন। লৌহজাত দ্রব্যাদি মনে করে বিমানে বড় ব্যাগে দেবেন, সঙ্গে রাখবেন না।

১০. নির্ভরযোগ্য কোনো আলেম ও মুফতির লিখিত হজের কিতাব, মুনাজাতে মকবুল সঙ্গে রাখুন।

১১. একটি হাওয়াই বালিশ ও শীত হলে শীতের কাপড় নিন।

১২. একটি বড় দামি ও মজবুত ট্রলিব্যাগ ও প্লেনের কেবিন বক্সে ঢোকার উপযোগী হাতব্যাগ এবং মিনায় ব্যবহারের জন্য একটি ছোট (পিঠে ব্যবহার উপযোগী) ব্যাগ নিন।

১৩. মাথাব্যথা, ঠন্ডা, জ্বর, কাশি, বমি, পেট খারাপ, আমাশয় ও ডায়াবেটিসের ওষুধ। এ ছাড়া খাওয়ার স্যালাইন, অ্যান্টিবায়োটিক, গ্যাস্ট্রিকের ট্যাবলেট, ইনসুলিন ও প্রয়োজনীয় ওষুধ সঙ্গে নিন।

১৪. মোবাইল চার্জার, মাল্টিপ্ল্যাগ ও জামা আয়রনের ছোট একটি ইস্ত্রিও সঙ্গে নিতে পারেন।

১৫. কিছু শুকনা খাবার ও বিস্কুট নিতে পারেন।

১৬. লাগেজের ওপরে নাম-ঠিকানা ইংরেজিতে লিখুন। কী কী লিখতে হবে এজেন্সির কাছ থেকে জেনে নিন। সাধারণত নাম-ঠিকানা ও পাসপোর্ট নম্বর লেখা হয়।

এমকে

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়