• ঢাকা রবিবার, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৮, ২ পৌষ ১৪২৬

যে বিমানবন্দরে ল্যান্ড করতে পাইলটদের সর্বোচ্চ সতর্ক থাকতে হয়

লাইফস্টাইল ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন
|  ২৮ অক্টোবর ২০১৮, ২৩:০৮ | আপডেট : ২৮ অক্টোবর ২০১৮, ২৩:২০
বিমানযাত্রা সব সময় উত্তেজনাপূর্ণ। আকাশপথে নিরাপদ ভ্রমণ অনেকটাই নির্ভর করে একজন দক্ষ পাইলটের ওপর। পৃথিবীতে এমন কিছু বিমানবন্দর আছে যেগুলোতে সর্বোচ্চ সতর্ক থাকতে হয় তাদের। চলুন দেখে নিই এমন কয়েকটি বিমানবন্দর-

ছবি:  রিগান ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্ট

western রিগান ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্ট
রিগান ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্ট যুক্তরাষ্ট্রের ভার্জিনিয়ায় অবস্থিত হলেও মূলত ওয়াশিংটনবাসীরা এটা ব্যবহার করেন। এই বিমানবন্দরের পাশেই রয়েছে দুটি নো-ফ্লাই জোন। এগুলো হলো পেন্টাগন (যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের প্রধান কার্যালয়) এবং হোয়াইট হাউজ (যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টের বাসভবন ও কার্যালয়)। যে কারণে রিগান ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্টে ল্যান্ডিংয়ের সময় সর্বোচ্চ সতর্ক থাকতে হয় পাইলটদের। ২০০৮ সালে একটি বিমান ভুলবশত নো-ফ্লাই জোনে প্রবেশ করে। এরপর ওই জোনে অবস্থানরত সবাইকে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেয় নিরাপত্তা বাহিনী।

ছবি:  পারো এয়ারপোর্ট

পারো এয়ারপোর্ট
পারো এয়ারপোর্টের অবস্থান ভুটানে। দেশটিতে চারটি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর রয়েছে। এর মধ্যে পারো একটি। এই এয়ারপোর্ট বানানো হয়েছে একটি পার্বত্য উপত্যকায়। এ কারণে বিমানবন্দরটিকে সবচেয়ে বিপদজনক বিমানবন্দর হিসেবে বিবেচনা করা হয়। এতে ল্যান্ডিংয়ের সময় সর্বোচ্চ সতর্ক থাকতে হয় পাইলটদের। অবশ্য সব পাইলটের পারো এয়ারপোর্টে ল্যান্ড করার অনুমতি নেই। হাতেগোনা কয়েকজনকে এই বিমানবন্দরে ল্যান্ড করার অনুমতি দেয়া হয়েছে।

ছবি:  বাররা এয়ারপোর্ট

বাররা এয়ারপোর্ট
বাররা বিমানবন্দরটি স্কটল্যান্ডে অবস্থিত। পৃথিবীতে একমাত্র এই বিমানবন্দরটিতেই রানওয়ে হিসেবে সমুদ্র সৈকত ব্যবহার করা হয়। শুনতে দারুণ লাগলেও সৈকতের বালুতে ল্যান্ড করা বেশ ঝুঁকিপূর্ণ। এ কারণে পাইলটদের খুবই সতর্ক থাকতে হয়। এছাড়া এখানে ল্যান্ডিং মূলত নির্ভর করে জোয়ার-ভাটার ওপর। জোয়ারের সময় রানওয়ে পানির নিচে থাকায় এসময় ল্যান্ড করা যায় না। শুধু ভাটার সময়ই বিমানবন্দরটি ব্যবহার করতে হয়।

আরও পড়ুন :

ডি/ জেএইচ

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়