Mir cement
logo
  • ঢাকা মঙ্গলবার, ২৪ মে ২০২২, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯

আরটিভি নিউজ

  ১০ মে ২০২২, ১৩:১০
আপডেট : ১০ মে ২০২২, ১৪:০৫

রাতে আগে ঘুমানো আর ভোরে ওঠার সঙ্গে হরমোনের সম্পর্ক

হরমোনের ভারসাম্যহীনতা আমাদের শরীরের বড় একটি অসুখ। সমাজে এই রোগটি অনেক পাওয়া যায়। সকাল বেলা যখন আমরা ঘুম থেকে উঠি, তখন আমাদের শরীরে কর্টিসন হরমোন রিলিজ হয় অ্যাড্রেনাল গ্লান্ড থেকে। এটি আমাদের স্মৃতি, প্রতিদিনের কর্ম পরিকল্পনা তৈরি করে।

সকালে উঠে আমরা যদি প্রতিদিনের কাজ শুরু করি তাহলে আমাদের পারফরম্যান্স ভালো হয়। আর আমরা যদি সকাল ১০টা কিংবা ১২টা পর্যন্ত ঘুমিয়ে থাকি, তাহলে খাবারে এলোমেলো হয়। শরীর অতিরিক্ত বিশ্রাম পায়, যার ফলে ওজন বাড়তে শুরু করে। সারা দিনের পরে কর্মদক্ষতা কমতে থাকে।

এরপর রাতে যখন আমাদের তাড়াতাড়ি ঘুমিয়ে যাওয়ার কথা। কারণ, বিকেলের পর থেকে কর্টিসন হরমোন আস্তে আস্তে কমে যায়। তখন রাতে যদি আমরা দেরিতে ঘুমাই, তখন আমাদের স্ট্রেস হরমোন বেড়ে যায়। স্ট্রেস হরমোন বেড়ে গেলে আস্তে আস্তে আমাদের ব্লাডপ্রেশার, ব্লাড গ্লুকোজের ওপর প্রভাব পড়ে।

রাত জেগে থাকলে আমরা সকালে উঠতে পারি না, আবারও সকালে দেরি করে উঠতে হয়। এভাবে টেনে নিয়ে আমরা আমাদের লাইফস্টাইলের ছন্দটাকে সরিয়ে ফেলি। লাইফস্টাইলের ছন্দ এভাবে বদলে ফেলার কারণে অনেক অসুখের জন্ম হয়।

এসব রোগের মধ্যে রয়েছে- ওজন বেড়ে যাওয়া, কর্মদক্ষতা কমে যাওয়া, পারফরম্যান্স কমে যাওয়া, কোয়ালিটি অব লাইফ কমে যাওয়া, সঙ্গে শিশু বয়স থেকে শুরু করে যেকোনো বয়সে ডায়াবেটিস, প্রেসার, কোলেস্টেরল ভারসাম্য নষ্ট হওয়ার সম্ভাবনা, আচরণে পরিবর্তন, বিরক্তভাব হওয়া এবং ব্যক্তিগত সম্পর্কে প্রভাব পড়ে।

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS