logo
  • ঢাকা শনিবার, ১৭ এপ্রিল ২০২১, ৪ বৈশাখ ১৪২৮

লাইফস্টাইল ডেস্ক, আরটিভি নিউজ

  ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১৭:২৯
আপডেট : ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১৮:২৪

ওষুধ হিসেবে লবঙ্গের বিভিন্ন উপকারীতা

লবঙ্গ শুধু মসলা হিসেবে খাবারের স্বাদ ও সুগন্ধই বৃদ্ধি করে না। এছাড়াও লবঙ্গের বিভিন্ন ব্যবহার রয়েছে। সেই প্রাচীনকাল থেকে রান্নার বাইরে ওষুধ হিসেবে ব্যবহার হয়ে আসছে এই মসলা। বিভিন্ন রকম ভিটামিন, অ্যান্টি অক্সিডেন্ট উপাদান ও মিনারেলসে ভরপুর এই মসলা।

এছাড়াও এ মসলায় ফেলেট, বি-কমপ্লেক্স, ভিটামিন-সি, এ, ডি, ই, কে ও ক্যালসিয়াম, আয়রন, পটাশিয়াম, ম্যাঙ্গানিজ, ম্যাগনেশিয়াম, ফসফরাস, সেলেনিয়াম, জিঙ্ক ও বিটাক্যারোটিন রয়েছে প্রাকৃতিক এই মসলায়। এসব উপাদান অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট হিসেবে মানবদেহকে রোগমুক্ত রাখে এবং জীবাণুনাশক, প্রদাহনাশক, বেদনানাশক ও অ্যান্টিসেপটিক গুণাগুণ রয়েছে এই মসলায়।

হাড়ের রোগ থেকে মুক্তি : পলিফেনলে ভরপুর লবঙ্গ উপাদান। নিয়মিত লবঙ্গ খাওয়ার ফলে হাড় শক্ত করে তোলে এবং ঘনত্ব বাড়ে। অনেকের শরীরে হাড় ব্যথা করে। নিয়মিত লবঙ্গ খাওয়ার ফলে আর্থ্রাইটিসের সমস্যা কমে থাকে। বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা এক্ষেত্রে লবঙ্গ খাওয়ার জন্য পরামর্শ দিয়ে থাকেন। এছাড়াও ব্যথাস্থানে লবঙ্গ পেস্ট করে লাগাতে পারেন।

সুগার থেকে পরিত্রাণ : বেশ কিছু উপাদান রয়েছে যা সুগার থেকে মুক্তি দিতে পারে আপনাকে। তবে লবঙ্গ এর মধ্যে অন্যতম। লবঙ্গে থাকা পলিফেনল ইনসুলিনের কর্মক্ষমতা বৃদ্ধি করে। তাই প্রতিদিন ১-৩ গ্রাম লবঙ্গ খাওয়া উচিত।

সাইনাসের সমস্যা : সাইনাসের জন্য যাদের মাথা ব্যথা করে, ঠাণ্ডা লাগে তাদের জন্য লবঙ্গ কার্যকরী একটি উপাদান। নিয়মিত লবঙ্গ তেল ব্যবহারে অনেক আরাম বোধ হয়।

ব্রণ থেকে মুক্তি : ব্রণের জন্য দায়ী অ্যান্টিইফ্লামেটরি অ্যান্টিব্যকটিরিয়াল ও অ্যানেসথেটিক ও ইউজিনল ব্রণ সৃষ্টিকারীকে ধ্বংস করে দেয় লবঙ্গে থাকা বিভিন্ন উপাদান।

ক্যানসার প্রতিরোধ : লবঙ্গে থাকা বিভিন্ন উপাদান শরীরের ক্যানসার সেলকে নষ্ট করে দেয়।

পেটের অসুখ রোধে : খাবার খাওয়ার আগে লবঙ্গের তৈরি চা পান করুন। এতে আপনার হজম শক্তি বৃদ্ধি পাবে। বেশি মসলাদার খাবার খাওয়ার ফলে এতে পেটে কোনও সমস্যা হবে না। এমনকি পেপটিক অ্যালসার কমাতেও সহায়তা করে প্রাকৃতিক এই উপাদান। পাশাপাশি বমি বমি ভাবও দূর করে।

সূত্র : জি-নিউজ

এসআর/

RTV Drama
RTVPLUS