logo
  • ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১২ ফাল্গুন ১৪২৭

সময় মেনে না ঘুমালে শরীরের যে ক্ষতি

Death can be if you do not sleep on time!
সময় মেনে না ঘুমালে শরীরের যে ক্ষতি

ঘুম শরীরের জন্য খুবই উপকারী। সঠিক মাত্রায় ঘুম হলে শরীর ও মন দুটোই তরতাজা থাকে। এছাড়াও হজম প্রক্রিয়া স্বাভাবিক থাকে। পর্যাপ্ত পরিমাণ ঘুম না হলে শরীর ধীরে ধীরে অসুস্থ হয়ে পড়ে। তবে প্রয়োজনের থেকে অতিরিক্ত ঘুম আবার বিপরীত ঘটাতে পারে।

আধুনিক এই জীবন ব্যবস্থায় নানা কারণে রাত বেশি জাগা হয় আমাদের। দ্রুত ঘুমিয়ে পড়া বা বেশি দেরিতে ঘুমানো, দুটোই কিন্তু স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। বিশেষজ্ঞদের মতে, দ্রুত ঘুমানো বা বেশি রাত জাগার ফলে হৃদরোগ, স্ট্রোক ও মৃত্যুর সম্ভাবনা ৯ শতাংশেরও বেশি বৃদ্ধি পায়। আবার যারা মাঝরাত বা তারও পরে ঘুমাতে যায় তাদের ক্ষেত্রে এই ঝুঁকির সম্ভাবনা ১০ শতাংশ বলে দাবি বিভিন্ন বিশেষজ্ঞদের গবেষণা।

দীর্ঘ ৯ বছরেরও বেশি সময় ধরে বিশ্বের ২১ দেশের ১ লাখ ১২ হাজার ১৯৮ জনের উপর পরীক্ষা করা হয়েছে এই বিষয়ে। এতে দেখা গেছে, যারা রাত ১০টা বা তার আগে ঘুমায় তাদের এক শ্রেণি ও যারা মধ্যরাত বা তার পরে ঘুমায় তাদের পৃথক অন্য শ্রেণিতে ভাগ করা হয়েছে।

বিজ্ঞানীরা বিছানায় ঘুমাতে যাওয়ার সময় হৃদরোগ, স্ট্রোক ও মৃত্যুর সম্ভাবনার মধ্যে ‘ইউ’ আকৃতির একটি সংযোগ স্থাপন করেন। গবেষণায় দেখা গেছে, রাত ১০টার আগে বা খুব দেরিতে ঘুমানোর পাশাপাশি বয়স ও লিঙ্গকে বিচার করে ঋণাত্মক প্রভাব বিদ্যমান পেয়েছেন। পরীক্ষায় ৫ হাজার ৬৩৩টি মৃত্যু এবং ৫ হাজার ৩৪৬টি কার্ডিওভাসকুলার সমস্যা পাওয়া গেছে।

মানুষের শরীরের প্রতিটি কাজ নির্দিষ্ট একটি ‘সার্কেডিয়ান’নিয়ম অনুযায়ী চলে। এর সঙ্গে ঘুমানো, ঘুম থেকে ওঠা ও মেটাবলিক ক্রিয়ার নির্দিষ্ট সময় জড়ানো। বয়স্ক লোকেরা এবং গ্রামাঞ্চলে বসবাসকারী ও নারীরা দ্রুত ঘুমায়। তাদের ঘুম বেশি এবং ধূমপান ও মদ্যপানের পরিমাণ কম, শক্তি সঞ্চয়ের পরিমাণ কম, হাইপার টেনশনে ভোগেন কিন্তু তাদের অবসাদ ও ডায়াবেটিসের পরিমাণ কম। বিপরীতে যারা মধ্যরাত বা তারও পরে ঘুমায় তাদের ক্ষেত্রে এসব বিষয়গুলো একদমই উল্টো।

আন্তর্জাতিক বিভিন্ন স্বাস্থ্য বিষয়ক ওয়েবসাইট বলছে, ফোন বা অন্য কোনও কারণে অহেতুক রাত না জেগে ঘুমিয়ে পড়া ভালো এবং দ্রুত ঘুম থেকে ওঠা ভালো। প্রাপ্ত বয়স্ক একজন মানুষের ঘুমের পরিমাণ যেন ৭ ঘণ্টা হয়। ঘুম কম হওয়ার কারণে ছোট-খাটো সমস্যা থেকে জটিল অসুখও হতে পারে। সূত্র : হেলথলাইন

এসআর/পি

RTV Drama
RTVPLUS