logo
  • ঢাকা সোমবার, ০৮ মার্চ ২০২১, ২৩ ফাল্গুন ১৪২৭

লাইফস্টাইল ডেস্ক, আরটিভি নিউজ

  ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ২০:০৫
আপডেট : ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ২০:৩১

বয়সকালেও ফিট থাকতে খাদ্য তালিকায় যা রাখতে হবে

ফাইল ছবি

সবাই স্বাস্থ্যকর খাবারের কথা বলে থাকেন। সবার ডায়েট চার্টে পুষ্টিকর খাবার রাখার কথা বলা হলেও মূলত বয়স অনুযায়ী ডায়েট চার্ট তৈরি করা উচিত। বয়স ৫০ পার হলে মহিলাদের কোন ধরনের পুষ্টিকর খাবার শরীরের জন্য প্রয়োজনীয় এবং তা কী পরিমাণ প্রয়োজন অবশ্যই জেনে রাখা উচিত।

সাধারণত অনেক মানুষ বয়স পঞ্চাশের পর নিরামিভোজী হয়ে পড়েন। আবার কেউ কেউ প্রাণীজ প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবার খাওয়া একদম বন্ধ করে দেন। যাদের কোলেস্টেরল বা উচ্চ রক্তচাপজনিত সমস্যা রয়েছে তাদের ক্ষেত্রে এই অভ্যাস আরও বেশি চোখে পড়ে। চলুন এবার তাহলে বয়স ৫০ এর পর কোন ধরনের ডায়েট করা উচিত তা জেনে নেয়া যাক-

ভেজিটেরিয়ান ডায়েট: এই ডায়েট অনুসরণ করার ফলে বিভিন্ন স্বাস্থ্য সমস্যার সমাধান হয়। ফলমূল ও শাকসবজি দিয়েই এই ডায়েট করা হয়। দুগ্ধজাতীয় পণ্যগুলো সামান্য পরিমাণে খাওয়া হয়ে থাকে। এ ধরনের ডায়েটে এক-তৃতীয়াংশ পরিমাণ চর্বি থাকে, সম্পৃক্ত ফ্যাট মোট ক্যালরি গ্রহণের মাত্র ৪ শতাংশও অতিক্রম করে না। তাই এই ভেজিটেরিয়ান ডায়েট অনুসরণ করা যেতে পারে।

সমীক্ষার প্রতিবেদন বলছে, এই ডায়েট অনুসরণে টাইপ-২ ডায়াবেটিস এবং হৃদরোগের ঝুঁকি হ্রাস পায়। বিশ্বের বিভিন্ন উন্নত দেশে এই ভেজিটেরিয়ান ডায়েট অনুসরণ করা হয়।

ভেগান ডায়েট : ভেগান ডায়েট নির্ভর করে উদ্ভিতজনিত খাবারের উপর। এতে কোনও প্রাণী সম্পর্কিত প্রোটিন থাকে না। এছাড়াও মাংস বা দুগ্ধজাতীয় খাবার এবং ডিমও রাখা হয় না। নিরামিষাশীদের ডায়েটের ফলে হৃদরোগ এবং টাইপ-২ ডায়াবেটিস এবং ক্যানসারের শঙ্কা কমে। এই ডায়েটে রয়েছে ভিটামিন-বি ১২, ভিটামিন-ডি, আয়োডিন, আয়রন, ক্যালসিয়াম, দস্তার মতো বিভিন্ন পুষ্টির ঘাটতি রোধ করে।

ড্যাশ ডায়েট : ড্যাশ ডায়েটে উচ্চ রক্তচাপের ক্ষেত্রে কার্যকর ভূমিকা রাখে। মহিলাদের মধ্যে মেনোপজের পর কার্ডিওভাসকুলার রোগ এবং উচ্চ রক্তচাপের ঝুঁকি বেড়ে যায়। এজাতীয় রোগ রোধে ড্যাশ ডায়েটের বিকল্প নেই। এই ডায়েটে রয়েছে ক্যালসিয়াম, পটাসিয়াম এবং ম্যাগনেসিয়াম সমৃদ্ধ খাদ্য। মূলত শাকসবজি, ফলমূল এবং কম চর্বিযুক্ত দুগ্ধ, শস্য, ফলমূল, বাদাম, বীজ, মাছ এবং হাঁস-মুরগি রয়েছে ড্যাশ ডায়েটের আওতাভুক্ত।

নমনীয় ডায়েট : উচ্চমাত্রায় প্রোটিন গ্রহণ এবং কম পরিমাণ শর্করা গ্রহণের ওপর ভিত্তি করে এই ডায়েটে। এই ডায়েটের অন্তর্ভুক্ত রয়েছে ডিম, শাকসবজি, ফলমূল, বাদাম এবং অপসারণ করা মাংস। বিশেষজ্ঞদের মতে ৫০ বছর বয়সের পর ইনসুলিন প্রতিরোধের সঙ্গে তা মোকাবেলা করা অনেক উপকারী। তবে মহিলারা যদি তাদের ডায়েটে এটি মেনটেইন না করেন তাহলে পুষ্টি ঘাটতি বিভিন্ন সমস্যা হতে পারে।

সূত্র : ইন্ডিয়া টাইমস ও হেলথ লাইন

আরও পড়ুন: মাত্র চার ঘণ্টায় ব্লাড সুগার নিয়ন্ত্রণ করে পেঁয়াজ

এসআর/ এমকে

RTV Drama
RTVPLUS