চুনি বা মাণিক্য (রুবি) পাথর নিয়ে কিছু কথা   

প্রকাশ | ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৬:৫৫ | আপডেট: ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৭:১৭

জ্যোতিষ শাস্ত্রী ফকির ইয়াসির আরাফাত
রুবি।

চুনি বা রুবি একটি মহামূল্যবান রত্ন। এর বাংলা নাম সূর্য কান্তমণি। সংস্কৃতিতে পদ্মরাগ এবং আরবী ও ফার্সিতে ইয়াকুত বলে। অত্যন্ত মূল্যবান বলে একে সাত রাজার ধন এক মানিক বলা হয়। রত্নটি উজ্জ্বল, স্বচ্ছ লাল বা গোলাপী, মনোমুগ্ধকর। আসল রুবিকে একটি আগুণের স্ফুলিঙ্গের মতো বা জ্বলজ্বলে জলন্ত কয়লার মতো মনে হয়। পায়রার রক্তের মতো লাল রুবি বর্ণের দিক থেকে শ্রেষ্ঠ। 

রুবি কুয়রেন্টাম শ্রেণির রত্ন। এর মূল উপাদান হচ্ছে এলুমিনিয়াম অক্সাইড। এর কাঠিন্য ৯। আপেক্ষিক গুরুত্ব ৩.৯৭-৪.০৫। প্রতিসারাঙ্ক ১.৭৬-১.৭৭।

প্রাপ্তি স্থান: বার্মা, থাইল্যান্ড, কানাডা, আফ্রিকা, মিশর, শ্রীলঙ্কা, নরওয়ে, সুইজারল্যান্ড সহ বহু দেশ। তবে বার্মীজ রুবি জগত বিখ্যাত।

উপকারিতা: রুবি ধারণে সুনাম সম্মান, যশ খ্যাতি, ক্ষমতা বৃদ্ধি, সৌন্দর্য ও গৌরব বৃদ্ধি পায়। রাজনৈতিক নেতাকর্মীরা এ রত্নটিকে খুব পছন্দ করেন কারণ এটি ক্ষমতার শীর্ষে নিয়ে যেতে সাহায্য করে। সরকারি চাকরি লাভে যখন বারবার বাধা বিপত্তি দেখা দেয়, উচ্চ পদ লাভে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি হয় বা উচ্চ পদ ধরে রাখার ক্ষেত্রে প্রবল শত্রুতা মোকাবিলা করতে হয় তখন এ রত্ন ধারণে সকল শত্রুতা প্রতিবন্ধকতা দমন করা সম্ভব হয়। সিংহ রাশির জাতক-জাতিকা ও তুলা, বৃশ্চিক রাশির জাতক- জাতিকাদের আমি রুবি ধারণে অনেক উপকৃত হতে দেখেছি। এমন কী যাদের জন্ম যেকোনো মাসের ১,৪,১০,১৩,১৯,২২,২৮ বা ৩১ তারিখে তাদেরও এ রত্ন ধারণে সফল হতে দেখা যায়।

বিশ্বের কিছু বিখ্যাত নারী যারা রুবি রত্ন ব্যবহার করেন:

প্রথমেই আসে আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নাম।

এর পরে আছেন ব্রিটেনের রাণী এলিজাবেথ, অভিনেত্রী জেসিকা সিম্পসন, ভিক্টোরিয়া বেকহাম, এলিজাবেথ টেইলর, পেনিলোপ ক্রুজ, অভিনেত্রী শিল্পা শেঠি, দীপিকা পাডুকোন,কারিনা কাপুরসহ অনেকেই।

সকলের মঙ্গল কামনায় আপনাদের জ্যোতিষ
ফকির ইয়াসির আরাফাত
প্রয়োজনে- ০১৭১৬-৬০৮০৮২

এম