logo
  • ঢাকা সোমবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৩ আশ্বিন ১৪২৭

রাহু-কেতুর রাশি পরিবর্তন ও মেষ-বৃষ-মিথুন রাশির ওপর তার প্রভাব

  জ্যোতিষ শাস্ত্রী ফকির ইয়াসির আরাফাত

|  ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৭:৪১ | আপডেট : ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৮:৫১
Astrology,
রাহু-কেতুর রাশি পরিবর্তন ও মেষ-বৃষ-মিথুন রাশির ওপর তার প্রভাব
রাহু, কেতু নাম শুনলেই কেমন গা ছমছম একটা অনুভূতি হয় তাই না? আসলেই তাই। মহাকাশে রাহু ও কেতু নামে কোনো গ্রহ নেই। তাহলে কেন রাহু ও কেতুকে গ্রহ হিসেবে গ্রহণ করা হয়? এ প্রশ্নটা আসা স্বাভাবিক। জ্যোতির্বিজ্ঞানের দৃষ্টিতে পৃথিবী ও চন্দ্রর কক্ষপথের দুটি ছেদ বিন্দু রয়েছে। এবং এখানে লুকায়িত আছে অসম্ভব চুম্বকীয় শক্তি। যেমন আমরা ব্ল্যাক হোলের নাম শুনেছি। যেখানে আছে অকল্পনীয় চুম্বকীয় শক্তি। এই চুম্বকীয় শক্তি এতটাই ক্ষমতা রাখে যে জ্যোতিষ শাস্ত্রে একে গ্রহর মর্যাদা দেওয়া হয়েছে। পৃথিবী ও চন্দ্রর কক্ষপথের উত্তর ছেদ বিন্দুকে বলাহয় রাহু, আর দক্ষিণ ছেদবিন্দুকে বলা হয় কেতু।

ভারতীয় পুরাণ অনুসারে রাহু কেতুর জন্ম ইতিহাস: সমুদ্র মন্থনকালে অমৃত উত্তোলনের পর অমরত্ব লাভের উদ্দেশ্যে অসুরদের বঞ্চিত করে দেবতারা যখন অমৃত পানে ব্যস্ত ছিল তখন স্বর্ভানুর নামের এক অসুর ছদ্মবেশ ধারণ করে দেবতাদের কাতারে দাঁড়িয়ে অমৃত পান করে। এমন সময় চন্দ্র ও সূর্য ছদ্মবেশী স্বর্ভানুরকে চিনতে পারে এবং অসুররা যেন অমরত্ব লাভ না করতে পারে তাই বিষ্ণুকে বলে দেয়। বিষ্ণু পরিস্থিতি সামলাতে ও অসুরদের ক্ষমতাকে লোপ করতে স্বর্ভানুরের দিকে তার চক্রবান নিক্ষেপ করেন। যেহেতু অসুর স্বর্ভানুর অমৃত পান করে ছিল তাই তার দেহ দ্বিখণ্ডিত হয় কিন্তু অমরত্ব লাভ করে। তখন তাকে দু প্রান্তে নিক্ষেপ করা হয় যাতে একত্র হয়ে শক্তি সঞ্চয় করতে না পারে। এই দ্বিখণ্ডিত রূপের মাথার অংশকে বলে রাহু। যার চোখ নাক মুখ কান জিহ্বা সবই আছে কিন্তু দেহের বাকি অংশ নেই বলে তার মাঝে রয়ে যায় অতৃপ্ততা। আর দেহের বাকি অংশটা কেতু। সেই ঘটনার পর থেকেই স্বর্ভানুর চন্দ্র ও সূর্যের শত্রুতে পরিণত হয়েছে এবং প্রতিবছর রাহু কেতু রূপে সূর্য ও চন্দ্রকে কখনো আংশিক কখনো বা পূর্ণ রূপে গিলে ফেলে কিন্তু ধরে রাখতে পারে না। যেমন অশুভ চিন্তা ভাবনা মানুষকে ক্ষণিকের তরে মোহাচ্ছন্ন করলেও তা দীর্ঘ মেয়াদে করতে পারে না।

পুরাণের গল্প থেকে বাস্তবে আসা যাক। এই রাহু ও কেতু ১৯ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশের স্থানীয় সময় রাত ১১টা ২৫ মিনিটে (ল্যাহেড়ির এফেমেরিস অনুসারে) রাহু শুক্রর গৃহ বৃষে ও কেতু মঙ্গলের গৃহ বৃশ্চিকে প্রবেশ করবে। মহর্ষি পরাশর মুনী রাহুকে বৃষ রাশিতে তুঙ্গী ও কেতুকে বৃশ্চিক রাশিতে তুঙ্গী বলেছেন।

রাহু ইন্দ্রিয়াসক্তই, কামনা-বাসনা, প্রেম-প্রীতির ভেতরে উদ্দাম মদোন্মত্ত ভাব, ভাষা ও আচরণের চন্ডভাব, অমার্জিত আচরণের কারক। শুভাবস্থায় রাহু বিদেশ যাত্রা, বৈদেশিক বাণিজ্য, প্রবাসী জীবন ও বহু ধন উপার্জনের নির্দেশক। রাহু দুরাকাঙ্ক্ষা ও অদম্য লোভের প্রতীক। এই অতৃপ্ততা থেকেই ষড় ঋপুর জন্ম।

কেতু রহস্যময় ঘটনা, গোপনীয় বিষয়, গুপ্ত তথ্য, চক্ষুপীড়া, এলার্জী জনিত পীড়া, চর্মরোগ, অন্ধত্ব ও মোক্ষ প্রাপ্তির গ্রহ। ত্যাগ তিতিক্ষা, তপস্যা, দর্শন গণিত বিদ্যা, হৃদয়হীনতা, বিশ্বাসঘাতকতা, নৃশংসতা ও ঐন্দ্রজাল চর্চার নির্দেশক।
রাহু ও কেতুর এ রাশি পরিবর্তনের ফলে ১২ রাশির জাতক-জাতিকারা কে কি ফল ভোগ করতে পারে তার একটি পূর্বাভাস নেওয়ার চেষ্টা করি।

মেষ রাশির জাতক-জাতিকার রাহু কেতুর গৃহ পরিবর্তন ফল : রাহু মেষ রাশির ধনস্থানে তুঙ্গী হয়ে আগমন করাতে মেষ রাশির জাতক-জাতিকার আয় রোজগারের বহু উৎস সৃষ্টি হবে। অর্থ সঞ্চয়ের আকাঙ্ক্ষা বহুগুণে বৃদ্ধি পাবে। বিদেশ থেকে ধন লাভ। ঝুঁকিপূর্ণ বিনিয়োগে বহু অর্থ লাভ, আবার বহু অর্থ হানিরও আশঙ্কা। আগামী দেড় বছর লটারি ভাগ্য বলবান থাকবে।

কেতু নিধন স্থানে আগমনের কারণে রহস্যজনক ঋণের কবলে পড়তে পারেন। ধর্মীয় আধ্যাত্মিক ও অতীন্দ্রিয় বিষয়ের চর্চা ও পড়াশোনায় আগ্রহ বৃদ্ধি পাবে। মামলা মোকদ্দমা বা আইনগত জটিলতার পেছনে অর্থ ব্যয় হবে। গোপন শত্রু দমনে সফল হবেন।

বৃষ রাশির জাতক জাতিকার রাহু কেতুর গৃহ পরিবর্তন ফল: রাহু বৃষ রাশির জাতক জাতিকার রাশিতে তুঙ্গী হওয়াতে বৈদেশিক সকল কাজে সফল হবেন। মানসিক অতৃপ্ততা আপনাকে ভোগাবে। প্রবাসী হওয়ার প্রচেষ্টায় বা উচ্চ শিক্ষার্থে বিদেশ যাত্রার ক্ষেত্রে আপনি হবেন বিজয়ী। নিজের রাগ জেদ ও অহংকার নিয়ন্ত্রণ করতে ব্যর্থ হলে ডেকে আনবেন ভয়াবহ করুন পরিণতি। পায়ে কোমরে ঘাড়ে আঘাতের আশঙ্কা রয়েছে। চিৎকার চেচামেচি দ্বারা কোনো কাজ হবে না। ধৈর্য্য দিয়েই বিজয়ী হবেন।

কেতু দাম্পত্য গৃহে অবস্থান করাতে সাংসারিক জীবনে হঠাৎ করেই জীবন সাথীকে সন্দেহ করতে পারেন। ছোট ছোট ভুল বুঝাবুঝির কারণে দাম্পত্য সুখের হানী হবে। সকল প্রকার অংশীদারি ব্যবসা বাণিজ্যে দেখা দেবে প্রবল ভুলবুঝাবুঝি ও ভাঙন। অবিবাহিতরা এমন কারও সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হতে পারেন, সামাজিকভাবে যে বিয়ের গ্রহণযোগ্যতা দুর্বল। নিন্দনীয় কর্ম থেকে সতর্ক থাকতে হবে।

প্রতিকার: বৃষ রাশির জাতক-জাতিকাকে অভিজ্ঞ জ্যোতিষীর পরামর্শ নিয়ে অবশ্যই রাহু বা কেতুর প্রতিকার করা কর্তব্য। বিশেষ করে যাদের দাম্পত্য ক্ষেত্রে আগে থেকেই ভুল বুঝাবুঝি ও পরস্পর পরস্পরের প্রতি সন্দেহ বিরাজমান রয়েছে।

মিথুন রাশির জাতক জাতিকার রাহু কেতুর গৃহ পরিবর্তন ফল: রাহু মিথুন রাশি ত্যাগ করে বৃষে গমনের ফলে মিথুন রাশির জাতক-জাতিকার জন্য সার্বিকভাবে লাভদায়ক হবে। বিদেশ যাত্রা, বিদেশে উন্নতি, আইনগত জটিলতা থেকে মুক্তি ও বৈদেশিক বাণিজ্যে সফল হবেন। পরিবার পরিজন নিয়ে বিদেশে প্রবাসী হওয়ার স্বপ্ন পূরণ হতে পারে। আইনগত জটিলতা কারাবাস থেকে মুক্ত হতে পারবেন। 

কেতু রোগ ব্যাধির গৃহে তুঙ্গী হওয়াতে মিথুন রাশির জাতক-জাতিকার কর্মস্থলে বন্ধুর সংখ্যা কমবে আর শত্রু সংখ্যা বৃদ্ধি পাবে। সহকর্মী ও অধীনস্থ কর্মচারীরা আপনার ক্ষতি করতে তৎপর থাকবে। অতিরিক্ত দুশ্চিন্তার কারণে চর্ম ও চক্ষুপীড়া, উচ্চ রক্তচাপে ভুগতে পারেন। ব্যবসা ক্ষেত্রে রহস্যজনক ঝামেলা মোকাবিলা করতে হবে। রহস্যজনক ব্যক্তি বা কোনো তান্ত্রিকের দ্বারা সর্বশান্ত হওয়ার আশঙ্কা প্রবল। যে কোনো প্রকার সংক্রামণে সাবধানে থাকতে হবে।

প্রতিকার: মিথুন রাশির জাতক-জাতিকারা অবশ্যই অভিজ্ঞ জ্যোতিষীর পরামর্শ ক্রমে কেতুর প্রতিকার করতে পারেন। তা না হলে হঠাৎ করেই কেতুর গুপ্ত দৃষ্টির কারণে উপরোক্ত ঝামেলা বৃদ্ধি পেতে পারে। (চলবে...)

সকলের শুভ ও মঙ্গল কামনা করে আজ এখানেই শেষ করছি।

আপনাদের জ্যোতিষী ফকির ইয়াসির আরাফাত। 

প্রয়োজনে: ০১৭১৬-৬০৮০৮২।  

এম 
 

RTVPLUS
bangal
corona
দেশ আক্রান্ত সুস্থ মৃত
বাংলাদেশ৩৫৫৪৯৩ ২৬৫০৯২ ৫০৭২
বিশ্ব ৩,২১,৯৬,৬৫৫ ২,৩৭,৫১,১৩৪ ৯,৮৩,৬০৯
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • লাইফস্টাইল এর সর্বশেষ
  • লাইফস্টাইল এর পাঠক প্রিয়