logo
  • ঢাকা শুক্রবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২০, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

লাইফস্টাইল ডেস্ক, আরটিভি নিউজ

  ০২ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১২:১২
আপডেট : ০২ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৫:২২

দুপুরে ‘ভাত-ঘুম’ বাড়ায় কর্মদক্ষতা, স্মৃতিশক্তি!

sleep in between work
কাজের ফাঁকে ‘ভাত-ঘুম’। ছবি- সংগৃহীত
দুপুরের ‘ভাত-ঘুম’-এর প্রতি বাঙালিদের আছে বিশেষ একটা দুর্বলতা।  রয়েছে। বর্তমানে কর্মব্যস্ততায় দিনে এই সুযোগ পাওয়া যায় না। তবে অনেকে ভাত ঘুমের ঠেলায় ঘুরতে যাওয়া, সিনেমা দেখতে যাওয়া বা কোথাও নিমন্ত্রণে যাওয়া নানা অজুহাতে এড়িয়ে যান অনেকেই।
তবে  দুপুরে খেয়ে দেয়ে কী আর অফিসের কাজে মন বসে। দুপুরে খাওয়ার পর ঘুম ভাব কাজের গতি কমিয়ে দেয়। কিন্তু জানেন কি, দুপুরের ঘুম আমাদের শরীর-মনের স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী! একাধিক গবেষণায় সামনে এসেছে ভাত-ঘুমের বেশ কয়েকটি উপকারিতা।

আসুন জেনে নিই ভাত ঘুমের উপকারিতা-

একাধিক গবেষণায় দেখা গেছে, ঘুম কম হলে আমাদের শরীরে কর্টিসোল হরমোনের ক্ষরণ বেড়ে যায়। এই হরমোনর প্রভাবে বেড়ে যায় মানসিক চাপ। দিনের বেলা অল্প সময়ের জন্য ঘুম হলে শরীরে সক্রিয় কর্টিসোলের ক্ষরণ কমাতে সাহায্য করে। ফলে মানসিক চাপ কমে যায়।

একটি মার্কিন গবেষণায় দাবি করা হয়েছে, ৪০ মিনিটের ভাত-ঘুম আমাদের ১০০ শতাংশ সজাগ আর সতেজ করে তোলে। শরীর চাঙ্গা আর তরতাজা রাখতে প্রতিদিন অন্তত ২০ মিনিটের ভাত-ঘুম প্রয়োজন।

একাধিক গবেষণায় দেখা গেছে, প্রতিদিন অন্তত ২০ মিনিটের ভাত-ঘুম আমাদের স্মৃতিশক্তি বাড়াতে সাহায্য করে। ভাত-ঘুম আমাদের পঞ্চ ইন্দ্রিয়কে আরও সজাগ, সক্রিয় করে তোলে। এর ফলে কাজ করার ক্ষমতা বেড়ে যায় আর কাজের মানও উন্নত হয়।
কাজের ফাঁকে অন্তত ২০ মিনিটের ভাত-ঘুম সৃজনশীলতা বাড়াতে সাহায্য করে।

সূত্র- জি নিউজ। 

জিএ
 

RTVPLUS