Mir cement
logo
  • ঢাকা বুধবার, ০৪ আগস্ট ২০২১, ২০ শ্রাবণ ১৪২৮

ব্ল্যাক ফাঙ্গাসে আক্রান্ত তিন শিশুর চোখ ফেলেই দিলো চিকিৎসক

ব্ল্যাক ফাঙ্গাসে আক্রান্ত তিন শিশুর চোখ ফেলেই দিলো চিকিৎসক

করোনাভাইরাস মহামারির পাশাপাশি ভারতে নতুন করে ব্ল্যাক ফাঙ্গাসের দাপট দেখা যাচ্ছে। ভারতের মুম্বাইয়ে তিন শিশু ব্ল্যাক ফাঙ্গাস আক্রান্ত হওয়ায় প্রত্যেকের একটি করে চোখ অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে অপসারণ করা হয়েছে।

দেশটির চিকিৎসকরা বলছেন, শিশুদের ব্ল্যাক ফাঙ্গাস আক্রান্ত হওয়া উদ্বেগজনক। অন্যদিকে করোনা, ডায়াবেটিস, এইডস ও ক্যান্সার রোগীদের রোগ প্রতিরোধের সক্ষমতা কম থাকায় তারা ব্ল্যাক ফাঙ্গাসে আক্রান্ত হলে প্রাণঘাতি হয়ে ওঠে। এমনকি যারা করোনা থেকে সুস্থ হয়ে উঠেছেন তাদের জন্যও এটি বিপজ্জনক হতে পারে। ব্ল্যাক ফাঙ্গাসে আক্রান্তদের মৃত্যুর হারও ৫০ শতাংশের বেশি।

ব্ল্যাক ফাঙ্গাসে আক্রান্ত হয়ে মুম্বাইয়ের দুটি হাসপাতালে ৪, ৬ এবং ১৪ বছর বয়সী তিন শিশুকে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয়। তাদের অবস্থা নাজুক হওয়ায় তিন শিশুর প্রত্যেকের একটি করে চোখ অস্ত্রোপচার করা হয়েছে। ১৪ বছরের শিশুটি ডায়াবেটিস থাকলেও ৪ বছরের শিশুর ডায়াবেটিস ছিল না। আর ৬ বছরের শিশুটি করোনা আক্রান্ত হয়ে সুস্থ হয়ে উঠে।

মুম্বাইয়ের ফোর্টিস হাসপাতালের জ্যেষ্ঠ শিশুবিষয়ক পরামর্শক ডা. জিসাল শেঠ বলেন, ব্ল্যাক ফাঙ্গাসে আক্রান্ত হওয়া ১৪ বছরের শিশুটি হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে একটি চোখ কালো হয়ে যায়। ফাঙ্গাস তার নাকেও ছড়িয়ে পড়ে। তবে সৌভাগ্যবশত তা মস্তিষ্কে পৌঁছায়নি। আমরা ছয় সপ্তাহ ধরে তার চিকিৎসা করেছি। দুর্ভাগ্যজনকভাবে সে তার চোখটি হারিয়েছে।

তিনি বলেন, শিশুটির চোখে ব্ল্যাক ফাঙ্গাস ছড়িয়ে যায়। দ্রুত অপসারণ না করলে জীবন হুমকিতে পড়তো। এর আগেও কয়েকটি শিশু ব্ল্যাক ফাঙ্গাস আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছে।

প্রাথমিক স্তরেই ব্ল্যাক ফাঙ্গাসকে শনাক্ত এবং মৃত টিস্যু অপসারণ করতে হয়। এই ফাঙ্গাসের সংক্রমণ মস্তিষ্কে পৌঁছানো ঠেকাতে চিকিৎসকরা রোগীর নাক, চোখ এমনকি চোঁয়ালও কেটে ফেলেন। সূত্র: এনডিটিভি

এফএ

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS