logo
  • ঢাকা রোববার, ২৯ মার্চ ২০২০, ১৫ চৈত্র ১৪২৬

যুক্তরাষ্ট্রের গরু আমিষভোজী, তাই দুধ আমদানি করবে না ভারত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন
|  ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৩:১০
rss demands that usa cow milk is non-vegetarian food as their cows are non-veg
ছবি সংগৃহীত

আমিষ-নিরামিষ দুধের এই বিবাদেই ডোনাল্ড ট্রাম্পের দেশের গরুর দুধ ভারতে ঢোকার ছাড়পত্র পাচ্ছে না। ফলে ডোনাল্ড ট্রাম্পের ভারত সফরের সময় দুই দেশের বাণিজ্য চুক্তির সামনেও প্রশ্নচিহ্ন ঝুলছে। খবর আনন্দবাজারের।

রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সঙ্ঘ (আরএসএস) পরিবারের নেতারা জানিয়ে দিয়েছেন, যজ্ঞে গরুর দুধ আহুতি দিতে হয়। পুজোতেও গরুর দুধ কাজে লাগে। হিন্দুদের কাছে গরুর দুধ নিরামিষ। কিন্তু যুক্তরাষ্ট্রে গরুকে আমিষ খাওয়ানো হয়। অন্য প্রাণীর অঙ্গপ্রত্যঙ্গ, রক্তমাংস খাইয়ে গরুকে হৃষ্টপুষ্ট করে তোলা হয়।

কিন্তু সঙ্ঘ পরিবারের যুক্তি, গরু আমিষ খেলে তার দুধও আমিষ হয়ে যায়। আমিষ দুধ পুজো বা যজ্ঞে কাজে লাগবে না। নিরামিষভোজী হিন্দুরাও আমিষ গরুর দুধ মুখে তুলতে পারবেন না।

সঙ্ঘ পরিবারের এই ‘বাণী’ অক্ষরে অক্ষরে পালন করে মোদি সরকার যুক্তরাষ্ট্রকে জানিয়ে দিয়েছে যে, ভারতে আমিষভোজী গরুর দুধ বা অন্যান্য ডেইরি পণ্য পাঠানো চলবে না। যুক্তরাষ্ট্র অনেক দিন ধরেই চাইছে, তাদের দুধ ও ডেইরি পণ্যের জন্য ভারত তার বাজার খুলে দিক।

কিন্তু মোদি সরকার আমিষভোজী গরু নিয়ে আপত্তি তোলায় ট্রাম্প প্রশাসনের সঙ্গে ভারতের বাণিজ্য চুক্তি হবে কি না, তা নিয়েই প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। এদিকে ফার্স্ট লেডি মেলানিয়াকে নিয়ে ডোনাল্ড ট্রাম্পের ভারতে আসার আর মাত্র দশ দিন বাকি। এখনও আমিষ-নিরামিষ গরুর দুধের বিবাদ মেটেনি।

সঙ্ঘ পরিবারের স্বদেশি জাগরণ মঞ্চর সাফ কথা যুক্তরাষ্ট্রকে লিখিতভাবে জানাতে হবে যে ভারতে যেসব গরুর দুধ পাঠানো হবে, তাদের শুধু নিরামিষ খাবারই খাওয়ানো হয়। স্বদেশি জাগরণ মঞ্চের যুগ্ম-আহ্বায়ক অশ্বিনী মহাজন বলেন, ভারতের সংখ্যাগরিষ্ঠ মানুষের ধর্মবিশ্বাসে আঘাত লাগে, এমন কোনও পণ্যের জন্য দেশের বাজার খুলে দেয়ার বিরোধিতা করবো আমরা। ধর্মবিশ্বাসে আঘাতের পাশাপাশি দেশের চাষী ও পশুপালকদের রুটিরুজির প্রশ্নও এর সঙ্গে জড়িত বলে তার যুক্তি।

ভারতের বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সূত্রের খবর, যুক্তরাষ্ট্রে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ‘হাউডি মোদি’-র সময়ও বাণিজ্য চুক্তি নিয়ে দর কষাকষি হয়েছিল। তখনও ভারত শর্ত রাখে, যুক্তরাষ্ট্রের আমিষভোজী গরুর দুধ বা সেই দুধ থেকে তৈরি কোনও কিছুই ভারতে ঢুকতে দেয়া হবে না। ‘হাউডি মোদি’-র সময়েও তাই বাণিজ্য চুক্তি সই হয়নি। অশ্বিনী বলেন, যুক্তরাষ্ট্র চাইছে ভারত এই শর্ত তুলে নিক। কিন্তু যুক্তরাষ্ট্রকে বুঝতে হবে, তাদের এই দাবি শুধু অন্যায্য নয়। ধর্মীয় কারণে এই দাবি মেনে নেয়া যায় না।

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • আন্তর্জাতিক এর সর্বশেষ
  • আন্তর্জাতিক এর পাঠক প্রিয়