logo
  • ঢাকা বুধবার, ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ৬ ফাল্গুন ১৪২৬

সোলাইমানির ঘনিষ্ঠ আরেক কমান্ডারকে গুলি করে হত্যা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন
|  ২৩ জানুয়ারি ২০২০, ১২:৩৮
কাসেম সোলাইমানি, আব্দোলহোসেইন মোজাদ্দামি
সংগৃহীত
এবার ইরানের ইসলামিক রেভল্যুশনারি গার্ডস কর্পসের (আইআরজিসি) কুদস ফোর্সের প্রধান কাসেম সোলাইমানির ঘনিষ্ঠ আরেক স্থানীয় কমান্ডার আব্দোলহোসেইন মোজাদ্দামিকে বুধবার তার বাসার সামনে গুলি করে হত্যা করেছেন দুই মুখোশধারী।

মোটরসাইকেল আরোহী এই দুজন দুটি রাইফেল থেকে আইআরজিসির আধা সামরিক শাখা বাসিজ ফোর্সের প্রধান মোজাদ্দামির দিকে গুলি ছোড়ে বলে স্থানীয় সংবাদ সংস্থা আইআরএনএ-এর বরাত দিয়ে জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের সংবাদ সংস্থা এপি।

আইআরএনএ-এর খবরে বলা হয়, তেলসমৃদ্ধ খুজেস্তান প্রদেশের দারখোয়েইন শহরে বসবাসকারী এই কমান্ডার অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তাসহ বেশকিছু দায়িত্ব পালন করতেন। তার সঙ্গে ঘনিষ্ঠতা ছিল ইরাকে যুক্তরাষ্ট্রের হামলায় নিহত সোলাইমানির।

অন্যান্য ইরানি গণমাধ্যম জানায়, মুখোশধারীরা চারটি গুলি ছোড়ে। যুক্তরাষ্ট্রের সংবাদ সংস্থাটির প্রতিবেদনটিতে উল্লেখ করা হয়, মোজাদ্দামিকে হত্যার ঘটনাটি তদন্তাধীন আছে। কিন্তু তাকে হত্যার উদ্দেশ্য সম্পর্কে তাৎক্ষণিক জানা যায়নি।

গত ৩ জানুয়ারি যুক্তরাষ্ট্রের হামলায় সোলাইমানি এবং ইরাকি মিলিশিয়া কমান্ডার আবু মাহদি আল-মুহান্দিসসহ কয়েকজন নিহত হন। পরে মার্কিন প্রতিরক্ষা দপ্তর পেন্টাগন জানায়, প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের নির্দেশে এই হামলা চালানো হয়েছে।

অন্যদিকে ইরানের সর্বোচ্চ ধর্মীয় নেতা আয়াতুল্লাহ আলী খামেনেয়ি বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের জন্য কঠোর প্রতিশোধ অপেক্ষা করছে। এরপর ৮ জানুয়ারি ইরাকে দুটি মার্কিন ঘাঁটিতে ইরানের ছোড়া ক্ষেপণাস্ত্রে ৮০ জন নিহত এবং ২০০ জন আহত হন বলে জানায় ইরানি রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন।

এ বিষয়ে ট্রাম্প জাতির উদ্দেশে দেয়া ভাষণে বলেন, ইরানের হামলায় কেউ হতাহত হননি। অবশ্য ১৬ জানুয়ারি যুক্তরাষ্ট্রের সেন্ট্রাল কমান্ডের মুখপাত্র ক্যাপ্টেন বিল উরবান এক বিবৃতিতে জানান, ইরাকে মার্কিন ঘাঁটিতে ইরানের হামলায় কেউ নিহত হননি। তবে ১১ সৈন্য আহত হন।

কে/সি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • আন্তর্জাতিক এর সর্বশেষ
  • আন্তর্জাতিক এর পাঠক প্রিয়