logo
  • ঢাকা বুধবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

পশ্চিম তীরে ইসরায়েলি বসতি অবৈধ নয়: যুক্তরাষ্ট্র

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন
|  ১৯ নভেম্বর ২০১৯, ০৯:৪৭ | আপডেট : ১৯ নভেম্বর ২০১৯, ১০:১৪
ইসরায়েলি বসতি
হেবরনে ইসরায়েলি বসতি (ছবি সংগৃহীত)
অধিকৃত পশ্চিম তীরে ইসরায়েলি বসতি স্থাপনের বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্র তাদের অবস্থান পরিবর্তন করেছে। যুক্তরাষ্ট্র বলছে, সেখানে বসতি স্থাপনকে তারা আন্তর্জাতিক আইনের সঙ্গে অসঙ্গতিপূর্ণ বলে মনে করেন না।

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও বলেছেন, পশ্চিম তীরের বিষয়ে ইসরায়েলি ও ফিলিস্তিনিরা আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেবে। তিনি বলেন, সব পক্ষের আইনি দিক সতর্কভাবে পর্যালোচনার পর যুক্তরাষ্ট্র এমন সিদ্ধান্তে উপনীত হয়েছে যে, পশ্চিম তীরে বেসামরিক ইসরায়েলিদের জন্য বসতি স্থাপন, আন্তর্জাতিক আইনের সঙ্গে অসঙ্গতিপূর্ণ নয়।

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেন, বেসামরিক ব্যক্তিদের জন্য বসতি স্থাপন আন্তর্জাতিক আইনের সঙ্গে অসঙ্গতিপূর্ণ বলাটা কাজে আসেনি। এটা শান্তি প্রক্রিয়াকে বাধাগ্রস্ত করেছে।

এমন সিদ্ধান্তের মধ্য দিয়ে পশ্চিম তীরের বিষয়ে তাদের চার দশকের পুরনো অবস্থান পরিবর্তন করলো যুক্তরাষ্ট্র। ডোনাল্ড ট্রাম্পের অধীনে যুক্তরাষ্ট্র তাদের এই নীতি থেকে সরে আসায়, ওয়াশিংটনের এমন পদক্ষেপকে স্বাগত জানিয়েছে ইসরায়েল।

ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু বলেছেন, এই নীতির পরিবর্তনের মধ্য দিয়ে ‘একটি ঐতিহাসিক ভুলকে শোধরানো হলো’ এবং অন্যান্য দেশের এমনটা করা উচিত।

এদিকে প্রধান ফিলিস্তিনি মধ্যস্থতাকারী সায়েব এরেকাত বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রের সিদ্ধান্ত ‘বৈশ্বিক স্থিতিশীলতা, নিরাপত্তা ও শান্তির’ জন্য বিপজ্জনক। একই সঙ্গে এর ফলে আন্তর্জাতিক আইনের পরিবর্তে ‘জঙ্গলের আইন’ প্রতিষ্ঠা পাবে।

উল্লেখ্য, ১৯৬৭ সালের আরব-ইসরায়েল যুদ্ধের পর ইসরায়েল যেসব এলাকা দখল করে নিয়েছিল পরবর্তীতে সেখানে বসতি স্থাপন শুরু করে দেশটি। বহু বছর ধরেই এই বসতি স্থাপনকে ঘিরে ইসরায়েল ও আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় এবং ফিলিস্তিনিদের মধ্যে বিরোধ বিরাজ করছে।

এ/পি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • আন্তর্জাতিক এর সর্বশেষ
  • আন্তর্জাতিক এর পাঠক প্রিয়