logo
  • ঢাকা শনিবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

স্পেনে মৃত্যুর পরও ১৫ বছর নিজের ফ্ল্যাটে!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন
|  ১১ নভেম্বর ২০১৯, ১৯:২৬ | আপডেট : ১১ নভেম্বর ২০১৯, ২০:১৭
স্পেন, মমি
সংগৃহীত
স্পেনের মাদ্রিদের সিউদাদ লিনিয়েল জেলার ইসাবেলা রিভেরা ১৫ বছর আগে নিজের ফ্ল্যাটে মারা যান। কিন্তু এত বছর তার মৃত্যুর কথা জানতো না কেউ। খবর ভারতীয় গণমাধ্যম ডেইলি হান্টের।

গত মঙ্গলবার পুলিশ এই নারীর ফ্ল্যাটের বাথরুম থেকে মমি হয়ে যাওয়া তার মরদেহ উদ্ধার করে। রিভেরার এক ভাতিজি পুলিশকে তার ফুফির অদৃশ্য হওয়ার বিষয়টি জানান।

এরপর পুলিশ এই নারীর ফ্ল্যাটে প্রবেশ করে। তার ফ্ল্যাটে প্রবেশ করার মূল দরজাটি ভেতর থেকে লাগানো ছিল। তাই ব্যালকনি দিয়ে ফ্ল্যাটটির ভেতরে প্রবেশ করে পুলিশ।

ডাক্তাররা জানান, গোসল করার সময় নিজের বাথরুমে রিভেরার স্বাভাবিক মৃত্যু হয়। গত ১৫ বছর ধরে তার মরদেহ এই বাথরুমের ভেতরে পড়ে ছিল।

তারা জানান, একপর্যায়ে এই নারীর মরদেহ মমি হয়ে যায়। বাথরুমের তাপমাত্রা ও পরিবেশ তার মরদেহকে মমিতে রূপান্তরিত হতে সহায়তা করে।

ডাক্তাররা নিশ্চিত করেন, ১৯২৬ সালে জন্মগ্রহণ করা এই নারী ১৪ থেকে ১৬ বছর আগে মারা যান। আর হোসে ডেল হিয়েরো নামের সড়কটিতে অবস্থিত এই ফ্ল্যাটে ১৯৬৫ সাল থেকে তিনি থাকতেন বলে জানা গেছে।

---------------------------------------------------------------
আরো পড়ুন: আন্তর্জাতিক আদালতে মিয়ানমারের বিরুদ্ধে মামলা করেছে গাম্বিয়া
---------------------------------------------------------------

আরও জানা গেছে, মৃত্যুর চার বা পাঁচ বছর আগে তার সঙ্গে জুয়ান মোলিনা মুনোজ নামের এক ডিভোর্সি নারী তার সন্তানদের নিয়ে থাকতেন। মোলিনার মৃত্যুর পর রিভেরা একা হয়ে পড়েন।

গণমাধ্যমটিতে প্রকাশিত এ সংক্রান্ত প্রতিবেদনটিতে বলা হয়, পরিবার ও স্বজনদের সঙ্গেও তেমন যোগাযোগ ছিল না রিভেরার। এমনকি ভবনের কারও সঙ্গে কথা বলতেন না তিনি।

প্রতিবেদনটিতে বলা হয়, পাশের ফ্ল্যাটের বাসিন্দাদের সঙ্গে শুধু দুর্গন্ধ এবং শব্দদূষণ নিয়ে কথা হতো তার। ২০০৪ সালের সেপ্টেম্বরে তাকে সবশেষ প্রকাশ্যে দেখা যায়।

এতে আরও বলা হয়, তার ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থেকে প্রতি মাসে ফ্ল্যাটের সব ধরনের বিল কেটে নেয়া হতো। আর এই অ্যাকাউন্টে জমা হতো তার পেনশনের অর্থ।

কে/সি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • আন্তর্জাতিক এর সর্বশেষ
  • আন্তর্জাতিক এর পাঠক প্রিয়