logo
  • ঢাকা শনিবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৬ আশ্বিন ১৪২৬

পশ্চিমবঙ্গে জেএমবির চার জঙ্গি গ্রেপ্তার, আইএসের নথি উদ্ধার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
|  ২৫ জুন ২০১৯, ১৪:৪৯ | আপডেট : ২৫ জুন ২০১৯, ১৫:০০
ছবি: সংগৃহীত
ভারতের পশ্চিমবঙ্গের কলকাতা পুলিশের এসটিএফ ইসলামিক স্টেট (আইএস) অনুপ্রাণিত বাংলাদেশের নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন নব্য জামাতুল মুজাহিদিন বাংলাদেশ (জেএমবি)-র চার সদস্যকে আটক করেছে। আটককৃতরা হলেন- মোহাম্মদ জিয়াউর রহমান ওরফে মহসিন, মামুনুর রশিদ, মোহাম্মদ শাহিন আলম ওরফে আলামিন ও রবিউল ইসলাম।

পুলিশ জানিয়েছে, আটককৃতদের মধ্যে মহসিন, মামুনুর ও আলামিন বাংলাদেশের নাগরিক। রবিউল পশ্চিমবঙ্গের বীরভূমের নয়াগ্রামের বাসিন্দা। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আজ মঙ্গলবার সকালে শিয়ালদহ স্টেশনের পার্কিং এরিয়া থেকে মহসিন ও মামুনুরকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে তাদের জেরা করে আরও দুজনের খোঁজ পায় পুলিশ। এর ভিত্তিতে হাওড়া স্টেশন থেকে আলামিন ও রবিউল ইসলামকে গ্রেপ্তার করা হয়।

আটককৃত ব্যক্তিদের কাছ থেকে ছবি ও ভিডিওসহ মোবাইল ফোন, আইএস মতাদর্শের বেশ কিছু প্রচার পুস্তিকা ও পত্রিকা পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। পুলিশ জানায়, আটককৃত ব্যক্তিরা জেরায় বলেছে- তারা পশ্চিমবঙ্গসহ ভারতের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে টাকা সংগ্রহ করে তা জঙ্গি কার্যকলাপে ব্যবহার করত।

শুধু তাই নয়, সোশ্যাল মিডিয়াকে ব্যবহার করে জঙ্গি নিয়োগ ও জিহাদি কার্যকলাপ চালাতো তারা। জিহাদ সংক্রান্ত প্রচুর ডিজিটাল নথিও পাওয়া গেছে আটককৃতদের কাছে। এদিকে আজই আদালতে তোলা হবে আটককৃত ব্যক্তিদের। এসটিএফ-এর জয়েন্ট সিপি শুভঙ্কর সিংহ জানিয়েছেন, আটককৃতদের নিজেদের হেফাজতে চাইবেন তারা।

অন্যদিকে আটক হওয়া ব্যক্তিরা জিজ্ঞাসাবাদে জানিয়েছে, তারা দীর্ঘদিন ধরে জামাতুল মুজাহিদিন বাংলাদেশ (জেএমবি)-র সঙ্গে জড়িত। বাংলাদেশে এই মুহূর্তে ব্যাপক ধরপাকড় চলছে। তাই আটক হওয়ার ব্যক্তিরা ভারতে পালিয়ে এসে গা ঢাকা দেয়। তবে তারা আবারও বাংলাদেশে পালানোর ছক কষেছিল। কিন্তু তার আগেই পুলিশের জালে ধরা পড়ে তারা।

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি আইএস জঙ্গিগোষ্ঠী তাদের মুখপত্র আমাক নিউজে বাংলায় এক বিবৃতি জারি করে। সেখানে দাবি করা হয়, খুব শিগগিরই বাংলায় তারা আসছে। গোয়েন্দাদের ধারণা পশ্চিমবঙ্গ ও বাংলাদেশ— এই দুই বাংলাতেই নব্য জেএমবি ফের নতুন করে ঘাঁটি তৈরির চেষ্টা করছে।  শুধু তাই নয়, আইএস-এর প্রত্যক্ষ সাহায্যে নব্য জেএমবি নতুন ‘আমির’ বা সংগঠনের প্রধান নির্বাচন করে পশ্চিমবঙ্গে সংগঠন তৈরি করার চেষ্টাও করছে তারা।

এ/পি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়