মালয়েশিয়ায় জনশক্তি রপ্তানির সিদ্ধান্ত চলতি মাসের শেষে: প্রতিমন্ত্রী

প্রকাশ | ১৫ মে ২০১৯, ২২:০২

মোস্তফা ইমরান রাজু, মালয়েশিয়া প্রতিনিধি:
ফাইল ছবি

জনশক্তি রপ্তানি, অবৈধদের বৈধতা দেয়া, ডিটেনশন ক্যাম্পে থাকা শ্রমিকদের স্ব-সম্মানে দেশে ফিরিয়ে নেয়াসহ নানা বিষয়ে দু'দেশের মন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠকে আলোচনা হয়েছে এবং এই বৈঠক শতভাগ সফল বলে দাবি করেছেন মালয়েশিয়া সফররত প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী ইমরান আহমেদ।

মঙ্গলবার কুয়ালালামপুরে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, মালয়েশিয়া সফর শতভাগ সফল হয়েছে এবং এর প্রতিফলন চুড়ান্তভাবে দেখা যাবে আগামী ২৯ অথবা ৩০ মে এর ওয়ার্কিং কমিটির বৈঠকে।

স্থানীয় সময় মঙ্গলবার দুপুর দুইটায় মালয়েশিয়ার প্রশাসনিক রাজধানী পুত্রাজায়ায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মহিউদ্দিন ইয়াসিন ও মানবসম্পদ মন্ত্রী কুলাসেগারেনের সঙ্গে বৈঠক শেষে রাতে সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন মন্ত্রী।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, মালয়েশিয়া প্রবাসীদের সকল সমস্যা নিয়ে আমরা আমাদের প্রস্তাবনাগুলো উপস্থাপন করেছি। সকল বিষয়ে এদেশের সরকার বাংলাদেশের প্রতি এবং বাংলাদেশিদের প্রতি ইতিবাচক। তবে কোনো বিষয়েই এখনও চুড়ুান্ত সিদ্ধান্ত হয়নি। 

জনশক্তি রপ্তানি বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ থেকে শ্রমিক নেয়ার ব্যাপারে মালয়েশিয়া খুবই আগ্রহী। তবে স্বচ্ছ প্রক্রিয়ার মাধ্যমে যাতে শ্রমিক আসতে পারে সে বিষয়ে আমরা ঐক্যমত্যে পৌঁছেছি। মধ্যস্বত্বভোগীদের জন্য বেশি খরচে শ্রমিকদের মালয়েশিয়ায় আসতে হয়। এজন্য দুই দেশের সরকারি পর্যায় থেকে আলোচনার মাধ্যমে স্বল্প খরচে শ্রমিক আনার প্রক্রিয়া কার্যকর হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন প্রবাসীকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী। 

মালয়েশিয়ায় ১০ লাখের বেশি বাংলাদেশি শ্রমিক কাজ করছে। গেল দেড় বছরে আসে প্রায় দুই লাখ কর্মী। জি-টু-জি প্লাস পদ্ধতিতে কর্মী এলেও ১ সেপ্টেম্বর বন্ধ হয়ে যায় এর অনলাইন সিস্টেম-এসপিপিএ। সংবাদ সম্মেলনে প্রতিমন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন প্রবাসীকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব ড. আহমেদ মুনিরুছ সালেহিন, মালয়েশিয়াস্থ বাংলাদেশ হাইকমিশনের লেবার কাউন্সিলর জহিরুল ইসলাম, প্রথম সচিব শ্রম হেদায়েতুল ইসলাম মন্ডলসহ অনেকে।

এমকে