• ঢাকা সোমবার, ২৭ মে ২০১৯, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

তিউনিসিয়ায় নৌকাডুবিতে ৬৫ অভিবাসন প্রত্যাশীর মৃত্যু

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
|  ১১ মে ২০১৯, ০৮:৫৯ | আপডেট : ১১ মে ২০১৯, ০৯:০৫
ছবি বিবিসি থেকে নেয়া
জাতিসংঘের শরণার্থী সংস্থা ইউএনএইচসিআর জানিয়েছে, তিউনিসিয়ার কাছে ভূমধ্যসাগরে অভিবাসীবোঝাই একটি নৌকা ডুবে যাওয়ার ঘটনায় কমপক্ষে ৬৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। তবে এই সংখ্যাটা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। ইউএনএইচসিআর এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, ওই নৌকাডুবির ঘটনায় আরও ১৬ জনকে উদ্ধার করা হয়েছে। খবর বিবিসির।

whirpool
ওই দুর্ঘটনা থেকে বেঁচে যাওয়া ব্যক্তিরা বলেছেন, বৃহস্পতিবার লিবিয়ার জুয়ারা থেকে ওই নৌকাটি ছেড়ে যায় এবং প্রবল ঢেউয়ের মধ্যে পড়ে। চলতি বছর এটিই অভিবাসীদের বহন কোনও জলযান ডুবির সবচেয়ে ভয়াবহতম ঘটনা।

ইউএনএইচসিআর-র তথ্যানুযায়ী, চলতি বছরের প্রথম চার মাসে লিবিয়া থেকে ইউরোপে পাড়ি জমাতে গিয়ে এখন পর্যন্ত ১৬৪ জনের মৃত্যু হয়েছে।

ওই নৌকাডুবির পর তিউনিসিয়ার নৌবাহিনী অভিবাসীদের উদ্ধার করে এবং উপকূলে ফিরে আসার জন্য কর্তৃপক্ষের অনুমতির অপেক্ষায় আছে। ইউএনএইচসিআর জানিয়েছে, উদ্ধার করা ব্যক্তিদের মধ্যে একজনকে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

তিউনিসিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ওই দুর্ঘটনার খবর পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে একটি জাহাজ নিয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় নৌবাহিনী। এসময় একটি মাছ ধরা নৌকা অভিবাসীদের উদ্ধার করছিল বলেও জানানো হয় ওই বিবৃতিতে।

এদিকে ওই নৌকার আরোহীরা সাব-সাহারান আফ্রিকা বাসিন্দা বলে ধারণা করা হচ্ছে।

ইউএনএইচসিআর-র একজন কর্মকর্তা ভিনসেন্ট কোচেটেল এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, যারা এখনও ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিতে চায়; এই ঘটনা সেটিরই মর্মান্তিক এবং ভয়াবহতার কথা স্মরণ করিয়ে দেয়।

উল্লেখ্য, প্রতি বছর হাজার হাজার অভিবাসন প্রত্যাশী লিবিয়া থেকে ভূমধ্যসাগর হয়ে ইউরোপে পাড়ি জমানোর চেষ্টা করে। কিন্তু বেশির ভাগ ক্ষেত্রে অতিরিক্ত যাত্রী এবং অব্যবস্থাপনার কারণে অনেকের মৃত্যু হয়।

এ/ এমকে 

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়