logo
  • ঢাকা রবিবার, ২৫ আগস্ট ২০১৯, ১০ ভাদ্র ১৪২৬

ভেনেজুয়েলার প্রেসিডেন্ট মাদুরোকে উৎখাতে অভ্যুত্থানের ডাক গুয়াইদোর

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন
|  ৩০ এপ্রিল ২০১৯, ২৩:৪৪
ভেনেজুয়েলার প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরোর সরকারকে উৎখাত করতে অভ্যুত্থানের ডাক দিয়েছেন দেশটির বিরোধী দলের নেতা জুয়ান গুয়াইদো।

bestelectronics
মঙ্গলবার দিনের শুরুতে তিনি এক বক্তৃতায় ভেনেজুয়েলার প্রেসিডেন্টকে সরাতে সেনাবাহিনী তার পাশে আছে বলে জানান। এসময় সেনাবাহিনীর পোশাকধারী অনেক মানুষ এবং সাঁজোয়াযান তাকে ঘিরে ছিল বলে জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের গণমাধ্যম সিএনএন।

এরপর তিনি টুইট বার্তায় বলেন, ভেনেজুয়েলার মানুষ অবৈধভাবে ক্ষমতা দখলকারীকে উৎখাত করতে প্রাথমিক পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। এখন আমি আমাদের সশস্ত্র বাহিনীর প্রধান সামরিক ইউনিটগুলোর সঙ্গে বৈঠক করছি। অপারেশন ফ্রিডমের চূড়ান্ত পর্যায় শুরু।

গুয়াইদোর টুইটারে অ্যাকাউন্টে সম্প্রচারিত ভিডিওটিতে আরেক বিরোধী নেতা লিওপোলদো লোপেজকে দেখা যায়। গৃহবন্দি থাকা লোপেজ কিভাবে এই ভিডিওতে উপস্থিত হলেন তা স্পষ্ট নয়। ভিডিওটি লা কারলোতার একটি সামরিক বিমানঘাঁটিতে ধারণ করা বলে দাবি গুয়াইদোর।

এরপর ভেনেজুয়েলার ভাইস প্রেসিডেন্ট অব কমিউনিকেশনস জর্জ রদ্রিগুয়েজ টুইটারে লেখেন, আমরা দেশের জনগণকে জানাতে চাই যে এই মুহূর্তে আমরা সেনাবাহিনীর কিছু বিশ্বাসঘাতক কর্মকর্তার মুখোমুখি হয়েছি এবং তাদেরকে নিষ্ক্রিয় করার চেষ্টা করছি।

পরবর্তী টুইটার পোস্টে তিনি জনগণকে সতর্ক থাকার আহ্বান জানিয়েছে লেখেন, আমরাই জিতবো।

গুয়াইদো অভ্যুত্থানের ডাক দেয়ার পর যুক্তরাষ্ট্রের সিনেটর মার্কো রুবিও এক টুইটার পোস্টে ভেনেজুয়েলার সেনা কর্মকর্তাদেরকে তাদের সাংবিধানিক দায়িত্ব পালন এবং গত জানুয়ারিতে নিজেকে দেশটির অন্তর্বর্তী প্রেসিডেন্ট ঘোষণাকারী গুয়াইদোকে সমর্থন করার আহ্বান জানান।

গুয়াইদো সিএনএন এসপ্যানোলকে বলেন, স্পষ্টভাবে দেখা যাচ্ছে যে মাদুরোর সরকারকে সমর্থন করছে না সশস্ত্র বাহিনী। ভেনেজুয়েলার গণতান্ত্রিক সশস্ত্র বাহিনীর সঙ্গে বেসামরিক নেতাদের কোনও যোগাযোগ নেই।

এই অভ্যুত্থানের পেছনে যুক্তরাষ্ট্র ও কলম্বিয়ার হাত আছে বলে এক টুইটার পোস্টে দাবি করে এর নিন্দা জানিয়েছেন ভেনেজুয়েলার পররাষ্ট্রমন্ত্রী জর্জ অ্যারেজা। তিন লেখেন, ভেনেজুয়েলায় গত কয়েক মাসের অসাংবিধানিক কার্যক্রমগুলোর জন্য দায়ী ওয়াশিংটন ও বোগোতা।

ক্রেমলিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভের বরাত দিয়ে রুশ রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা তাস জানিয়েছে, ভেনেজুয়েলার পরিস্থিতি নিয়ে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমি পুতিন তার সিকিউরিটি কাউন্সিলের সঙ্গে আলোচনা করছেন।

এদিকে ভেনেজুয়েলার বিরোধী দলের প্রধান নিজেকে প্রেসিডেন্ট ঘোষণা করার পর দেশটিতে সহিংসতা সৃষ্টির প্রচেষ্টা চালাচ্ছেন বলে এর নিন্দা জানিয়েছে রুশ ফরেন অ্যাফেয়ার্স মন্ত্রণালয়। এছাড়া গুয়াইদোর প্রতি নিন্দা জানিয়েছে তুরস্ক ও কিউবা। অন্যদিকে গুয়াইদোকে সমর্থন দিয়েছে ব্রাজিল।

জাতিসংঘের মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস সব পক্ষকে সংযত এবং সহিংসতা সৃষ্টি করা থেকে বিরত থাকার আহ্বান জানিয়েছেন। এদিন দুপুরের সংবাদ সম্মেলনে তার মুখপাত্র স্টেফেন ডুজারিক এই আহ্বানের কথা জানান।

এসএস

bestelectronics bestelectronics
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়