logo
  • ঢাকা বুধবার, ১৭ জুলাই ২০১৯, ২ শ্রাবণ ১৪২৬

মোদির প্রশ্ন, দিদির প্রচারণায় বিদেশিরা কেন?

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন
|  ২০ এপ্রিল ২০১৯, ১৮:০৪
ছবি: ভারতীয় সংবাদ সংস্থা এশিয়ান নিউজ ইন্টারন্যাশনাল(এএনআই)

ভারতে চলমান লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষে প্রচারণা চালিয়ে বিতর্কে জড়ান বাংলাদেশের অভিনেতা ফেরদৌস আহমেদ এবং গাজী আবদুন নূর। ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির প্রশ্ন, দিদির (পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী এবং তৃণমূল কংগ্রেস প্রধান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়) প্রচারণায় বিদেশিরা কেন?

শনিবার পশ্চিমবঙ্গের দক্ষিণ দিনাজপুরের বুনিয়াদপুরে এক নির্বাচনী সভায় বক্তব্য প্রদানের সময় তিনি এই প্রশ্ন করেন।

নরেন্দ্র মোদি বলেন, হিন্দুস্তানে কিসের অভাব? এমন কখনো হয়েছে যে বিশ্বের অন্য কোনও দেশের লোক ভারতে নির্বাচনী প্রচারণা চালাচ্ছে? নিজের ভোটব্যাংকের জন্য দিদি(মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়) যেকোনো কিছু করতে পারেন। শুধু পশ্চিমবঙ্গ নয়, ভারতের কোথাও এমন কোনও কিছু ঘটতে দেয়া হবে না।

তিনি বলেন, মা, মাটি ও মানুষের নামে বাংলার জনতাকে লুট করেছেন মমতা। আগে ওনাকে সততার প্রতীক ভাবতাম আমি। তবে প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর মনে হলো আমি ভুল বুঝেছিলাম। মানুষ তো ভুল বুঝতেই পারে। তবে ২৩ মে’র পর স্পিডব্রেকার দিদি বুঝবেন লুট ও গুণ্ডামির পরিণাম কী হতে পারে।

ভারতের প্রধানমন্ত্রী বলেন, পশ্চিমবঙ্গে একটা কাজই হয়। আর সেটা হলো অনুপ্রবেশ। সেনাবাহিনীর কথায় বিশ্বাস না করে দিদি জঙ্গি মারার হিসাব চান। অনুপ্রবেশকারীদের হিসাব দিন আপনি।

তিনি আরও বলেন, পাশের রাজ্য ত্রিপুরায় বেতন কমিশন চালু হচ্ছে। অথচ বাংলায় ডিএ দেয়ার টাকা নেই। এই রাজ্যের ৭০ লাখ কৃষককে আর্থিক সাহায্য দিতে চেয়েছিলাম। কিন্তু তালিকাই পাঠায়নি তৃণমূলের সরকার।

উল্লেখ্য, গত ১৪ এপ্রিল পশ্চিমবঙ্গের উত্তর দিনাজপুরের রায়গঞ্জে পশ্চিমবঙ্গের ক্ষমতাসীন দল তৃণমূলের প্রার্থী কানহাইয়ালাল আগরওয়ালের নির্বাচনী প্রচারে অংশ নেন ফেরদৌস। এর জেরে তার ভিসা বাতিল এবং তাকে কালো তালিকাভুক্ত করে দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

এছাড়া দমদম কেন্দ্রের তৃণমূলের প্রার্থী সৌগত রায়ের একটি প্রচার মিছিলে যোগ দেয়ায় গাজী আবদুন নূরের ভিসার মেয়াদ না বাড়িয়ে বেআইনিভাবে অবস্থান করার দায়ে তাকে অবিলম্বে দেশত্যাগের নির্দেশ দেয় ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

কে/এমকে

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়