DMCA.com Protection Status
  • ঢাকা রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০১৯, ৮ বৈশাখ ১৪২৬

থাইল্যান্ডে সেনা অভ্যুত্থানের গুজব

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
|  ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৫:২০ | আপডেট : ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৫:২৪

রাজকুমারী উবোলরত্ন থাইল্যান্ডের আসন্ন নির্বাচনে প্রধানমন্ত্রী পদে নির্বাচনী লড়াইয়ের ঘোষণা দেয়ার পর দেশটিতে সামরিক অভ্যুত্থানের গুজব ছড়িয়ে পড়ে। গত শুক্রবার থাই এই রাজকুমারী তার সব রাজ খেতাব বাতিলের ঘোষণা দিয়ে নির্বাচনে লড়াইয়ের ঘোষণার পর অভ্যুত্থানের গুজব ওঠে।

এমন অবস্থায় সোমবার থাই জান্তা প্রধান প্রায়ূত চান-ও-চা অভ্যুত্থানের গুজবকে ‘ভুয়া খবর’ বলে উড়িয়ে দিয়েছেন।

আগামী ২৪ মার্চ দেশটির সাধারণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। রাজকুমারী উবোলরত্ন দেশটির সাবেক প্রধানমন্ত্রী থাকসিন সিনাওয়াত্রার মিত্র একটি রাজনৈতিক দলের হয়ে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার কথা ছিল।

রাজকুমারী উবোলরত্ন থাই রাজা মাহা বাজিরালঙ্করণের বড় বোন। থাই রাকসা চার্ট পার্টি তাকে প্রধানমন্ত্রী পদের প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা দেয়ার পরই মূলত অভ্যুত্থানের গুজব দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে।

রাজকুমারীর এই ঘোষণার কয়েক ঘণ্টার মধ্যে তার নজিরবিহীন রাজনৈতিক উচ্চাকাঙ্ক্ষা নিয়ে সমালোচনা করেন রাজপরিবারের এক সদস্য। তিনি বলেন, দেশের রাজনীতির ঊর্ধ্বে রাজতন্ত্র। রাজার বোনের প্রার্থিতা ঘোষণাকে অযৌক্তিক বলে মন্তব্য করেন তিনি।

এদিকে থাইল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী ও জান্তা প্রধান প্রায়ূত চান-ও-চা অভ্যুত্থানের গুঞ্জনকে উড়িয়ে দিয়েছেন। ২০১৪ সালে তার নেতৃত্বে দেশটিতে সেনা অভ্যুত্থান ঘটে।

তিনি বলেন, আমরা বিষয়টি তদন্ত করছি। ১৯৩২ সালে পূর্ণ রাজতন্ত্রের অবসানের পর থেকে এখন পর্যন্ত থাইল্যান্ডে প্রায় ১২ বার ক্ষমতায় গেছে দেশটির সেনাবাহিনী।

এ/পি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়