• ঢাকা শুক্রবার, ১৮ জানুয়ারি ২০১৯, ৫ মাঘ ১৪২৫

খাশোগি হত্যায় সন্দেহভাজনের সঙ্গে এখনও যোগাযোগ সৌদি প্রিন্সের!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
|  ১১ জানুয়ারি ২০১৯, ২৩:০৫ | আপডেট : ১১ জানুয়ারি ২০১৯, ২৩:০৮
ছবি: সংগৃহীত

সৌদি ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমান এখনও তুরস্কের ইস্তাম্বুলে সৌদি আরবের কনস্যুলেটে সাংবাদিক জামাল খাশোগিকে হত্যায় সন্দেহভাজন উপদেষ্টা সৌদ আল–কাহতানির সঙ্গে যোগাযোগ করছেন এবং তার উপদেশ চাচ্ছেন।

বৃহস্পতিবার যুক্তরাষ্ট্রের গণমাধ্যম দ্য ওয়াশিংটন পোস্টে প্রকাশিত এক নিবন্ধে একাধিক আমেরিকান ও সৌদি সূত্রের বরাত দিয়ে এই তথ্য জানিয়েছেন কলামিস্ট ডেভিড ইগন্যাটিয়াস।

একটি সৌদি সূত্রের বরাত দিয়ে তিনি বলেছেন, সম্প্রতি রিয়াদে নিজের বাসায় কাহতানি রয়্যাল কোর্টের ‘সেন্টার ফর স্টাডিজ অ্যান্ড মিডিয়া অ্যাফেয়ার্স’র সিনিয়র ডেপুটিদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন।

খাশোগি হত্যার আগে কিছু দিনের জন্য তিনি এই সাইবারকমান্ড পোস্ট পরিচালনার দায়িত্বে ছিলেন। তিনি তার এই সাবেক সহকারীদেরকে বলেন, আমার ঘাড়ে দায় চাপিয়ে আমাকে বলির পাঁঠা করা হচ্ছে।

সম্প্রতি সৌদ ক্রাউন প্রিন্সের সঙ্গে সাক্ষাৎ করা এক আমেরিকান নাগরিকের বরাত দিয়ে ডেভিড ইগন্যাটিয়াস বলেন, কাহতানির কাছে মোহাম্মদ বিন সালমানের অনেক নথি ও দলিল আছে। এত দ্রুত তাদের সম্পর্কচ্ছেদের কথা ভাবা অবাস্তব।

বিষয়টি স্বীকার করেছেন রয়্যাল কোর্টের সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে সম্পৃক্ত এক সৌদি নাগরিকও। তিনি বলেছেন, তিনি (কাহতানি) এখন এটা নিয়েই কাজ করছেন যেন এসব নথি ও দলিল হস্তান্তর করছে পারেন।

প্রসঙ্গত, গত ২ অক্টোবর ইস্তাম্বুলে সৌদি কনস্যুলেট ভবনে প্রবেশের পর নিখোঁজ হন দ্য ওয়াশিংটন পোস্টের কলামিস্ট জামাল খাশোগি। প্রথম থেকেই তুরস্ক দাবি করে আসছিল তাকে ভবনটির ভেতরেই হত্যা করা হয়।

সৌদি কর্তৃপক্ষ প্রথমে অস্বীকার করলেও পরে তাকে হত্যার কথা স্বীকার করে। তারা একথাও স্বীকার করে যে এটা ছিল পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড। এদিকে যুক্তরাষ্ট্রের সেন্ট্রাল ইন্টেলিজেন্স এজেন্সি (সিআইএ) জানিয়েছে, মোহাম্মদ বিন সালমান ব্যক্তিগতভাবে খাশোগির হত্যার আদেশ দেন।

খাশোগিকে হত্যা করতে সৌদি কর্তৃপক্ষের পাঠানো ১৫ সদস্যের দলটিকে মোহাম্মদ বিন সালমানের ডানহাত বলে পরিচিত কাহতানি পরিচালনা করেন বলে দাবি তুরস্কের বার্তা সংস্থা আনাদোলু এজেন্সির।

কে/এমকে

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়