• ঢাকা শনিবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৮, ১ পৌষ ১৪২৬

ওপেক থেকে বেরিয়ে যাবে কাতার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
|  ০৩ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৫:৪৭
ছবি: সংগৃহীত

পেট্রোলিয়াম রপ্তানিকারী দেশগুলোর জোট ওপেক থেকে বেরিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছে কাতার। সোমবার কাতারের জ্বালানিমন্ত্রী সাদ শেরিদা আল-কাবি এ ঘোষণা দেন। খবর আল-জাজিরার।

কাতারের রাজধানী দোহায় এক সংবাদ সম্মেলনে জ্বালানিমন্ত্রী সাদ আল-কাবি বরেন, আগামী বছর জানুয়ারিতে ওপেক গোষ্ঠীর সঙ্গে ৫৭ বছরের সম্পর্ক ছিন্ন করবে দেশটি। আগামী ৬ ডিসেম্বর ওপেক সদস্যভুক্ত দেশগুলোর এক বৈঠকের কয়েকদিন আগে এই ঘোষণা দিল দোহা।

তিনি বলেন, জানুয়ারিতেই ওপেক গোষ্ঠী থেকে বেরিয়ে আসবে কাতার। জ্বালানি তেলের পাশাপাশি এবার জোর দেয়া হবে প্রাকৃতিক গ্যাস উত্তোলনের ওপর।

২০১৭ সাল থেকে কূটনৈতিক এবং রাজনৈতিক সংকটে ভুগছে আরব উপসাগরীয় দেশ কাতার। সন্ত্রাসবাদ ইস্যুতে কাতরের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক বিচ্ছিন্ন করে সৌদি আরব, মিশর, বাহারাইন এবং সংযুক্ত আরব আমিরাত। দেশটির ওপর একাধিক নিষেধাজ্ঞা চাপানো হয়। ওপেক গোষ্ঠী থেকে কাতারের বেরিয়ে আসার পেছনে এটিই অন্যতম কারণ বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

তবে কাতারের জ্বালানিমন্ত্রী বলেন, ২০১৯ সাল থেকে আর ওপেক-র সদস্য থাকবে না কাতার এবং এর পেছনে কাতারের ওপর ওপেকভুক্ত দেশ সৌদি আরব ও সংযুক্ত আরব আমিরাত এবং ওপেকভুক্ত নয় এমন দেশ মিশর ও বাহরাইনের অবরোধের কোনও সম্পর্ক নেই।

এদিকে সংস্থাটি থেকে কাতার বেরিয়ে আসার সিদ্ধান্ত নিলেও চলতি সপ্তাহে ভিয়েনায় অনুষ্ঠিত ওপেক সম্মেলনে তারা অংশগ্রহণ করবে বলে জানিয়েছে দোহা। দেশটির সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, বেরিয়ে আসার সিদ্ধান্ত সহজ ছিল না।

যদিও ওপেক থেকে বেরিয়ে এলে তেল উত্পাদনে কোনও প্রভাব পড়বে না বলে জানিয়েছে কাতার। উল্টো প্রাকৃতিক গ্যাস উত্তোলনে আরও বেশি জোর দেয়া হবে বলে জানিয়েছে দোহা।

উল্লেখ্য, ওপেক গোষ্ঠীতে তেল উত্পাদনের তালিকায় নিচের অবস্থানে থাকলেও, বিশ্বে তেল ভাণ্ডারের ১৩ শতাংশ রয়েছে কাতারে। প্রাকৃতিক গ্যাস রপ্তানিতে বিশ্বের প্রথম স্থানে রয়েছে কাতার। ওপেক থেকে বেরিয়ে আসার পর প্রাকৃতিক গ্যাস উত্তোলন বছরে ৭ কোটি ৭০ লাখ টন থেকে  ১১ কোটি টন বাড়ানোর লক্ষ্যমাত্রা নিয়েছে কাতার।

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়