• ঢাকা রবিবার, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৮, ২ পৌষ ১৪২৬

যুক্তরাজ্যে পাঁচ বাংলাদেশির ৩১ বছরের কারাদণ্ড

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
|  ২৫ নভেম্বর ২০১৮, ১৯:৫৩ | আপডেট : ২৫ নভেম্বর ২০১৮, ২০:০৩
দণ্ডপ্রাপ্ত পাঁচজনের দুজন- আবুল কালাম মুহাম্মাদ রেজাউল করিম এবং তার দুলাভাই এনামুল করিম। ছবি: যুক্তরাজ্যের গণমাধ্যম বার্কিং অ্যান্ড ড্যাগেনহাম পোস্ট

যুক্তরাজ্যে ভুয়া ভিসা পরিচালনা এবং প্রতারণার মাধ্যমে এক কোটি ৩০ লাখ পাউন্ড কর দাবি করার দায়ে পাঁচ বাংলাদেশিকে মোট ৩১ বছরের কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে।

লন্ডনের একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের আইনের শিক্ষার্থী আবুল কালাম মুহাম্মাদ রেজাউল করিমকে(৪২) ১০ বছর ছয় মাস, তার দুলাভাই এনামুল করিমকে(৩৪) নয় বছর চার মাস, কাজী বরকত উল্লাহকে(৩৯) পাঁচ বছর ১০ মাস, হিসাবরক্ষক জলপা ত্রিবেদিকে(৪১) তিন বছর এবং মোহাম্মাদ তমিজ উদ্দিনকে(৪৭) দুই বছর ছয় মাসের কারাদণ্ড দেয়া হয়।

স্থানীয় সময় গত শুক্রবার রেজাউল করিম, এনামুল করিম এবং বরকত উল্লাহর অনুপস্থিতে এই কারাদণ্ডের আদেশ দেন দেশটির সাউথওয়ার্ক ক্রাউন কোর্ট।

এছাড়া রেজাউল করিম, এনামুল করিম এবং বরকত উল্লাহ বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হয় বলে জানিয়েছে যুক্তরাজ্যের শীর্ষস্থানীয় গণমাধ্যম দ্য টেলিগ্রাফ।

গণমাধ্যমটি জানায়, এই সংগঠিত অপরাধ চক্রটি ৭৯টি কোম্পানি খুলেছিল এবং বাংলাদেশি নাগরিকদের নামে ভিসা আবেদনের ভুয়া কাগজপত্র তৈরি করতো। তারা এইচএম রেভেনিউ অ্যান্ড কাস্টমস(এইচএমআরসি) থেকে এসব কোম্পানির নামে এক কোটি ৩০ লাখ পাউন্ড কর দাবি করে।

সরকারি কর্মকর্তাদের অভিযোগ, এই চক্র যুক্তরাজ্যের অস্থায়ী ভিসা প্রত্যাশী ক্লায়েন্টদের সর্বনিম্ন ৭০০ পাউন্ডের বিনিময়ে অভিবাসন সেবার কাগজপত্র তৈরি করে দিত। এসব ক্লায়েন্ট তাদের কর ও অভিবাসন জালিয়াতির অংশ ছিল।

প্রায় ৯০০ আবেদনকারীর টায়ার ১ ক্যাটাগরির ভিসা নিশ্চিত করতে তারা ভুয়া পে-স্লিপ এবং মিথ্যা তথ্য সংবলিত কাগজপত্র সরবরাহ করেছে। তাদের এসব কুকর্ম দীর্ঘদিন ধরে তদন্ত করে দেশটির ক্রিমিনাল অ্যান্ড ফিন্যান্সিয়াল ইনভেস্টিগেশন(সিএফআই) টিমের অভিবাসন আইন প্রয়োগকারী সংস্থা।

আরও পড়ুন :

কে/জেএইচ

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়