Mir cement
logo
  • ঢাকা শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ১ কার্তিক ১৪২৮

পাঁচ কোটির সম্পত্তি হাতাতে ২০ বছর ধরে ৫ জনকে খুন

সম্পত্তি হাতাতে ২০ বছর ধরে পরিবারের পাঁচ সদস্যকে বিষ খাইয়ে খুন করার অভিযোগ উঠছে এক যুবকের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের উত্তরপ্রদেশের গাজিয়াবাদে। খুনের অভিযোগে যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। জেরায় তিনি নিজের অপরাধের কথা স্বীকার করেছে বলে জানা গেছে।

পুলিশ জানিয়েছে, গত ১৫ আগস্ট ব্রিজেশ ত্যাগী নামের এক ব্যক্তি থানায় এসে জানান, এক সপ্তাহ ধরে তার ছেলে রেশুর খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না। ঘটনার তদন্ত করতে গিয়ে পুলিশ জানতে পারে সম্পত্তি নিয়ে ব্রিজেশের সঙ্গে বিবাদ চলছে তার ছোট ভাই লীলুর। তার বিরুদ্ধে বেশ কয়েকটি সূত্র পায় পুলিশ। অবশেষে মুরাদনগর থেকে সম্প্রতি গ্রেপ্তার করা হয় লীলুকে।

গাজিয়াবাদ পুলিশের এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, জেরার সময় নিজের অপরাধের কথা স্বীকার করে লীলু। তিনি জানায়, ভাইপোকে অপহরণ করে তার পর তাকে বিষ খাইয়ে খুন করে দেহ একটি খালে ফেলে দিয়েছে।

পুলিশের সামনে চাঞ্চল্যকর স্বীকারোক্তি দেয় লীলু। তিনি জানায়, ২০ বছর আগে ২০০১ সালে প্রথমে দাদা সুধীর ত্যাগীকে বিষ খাইয়ে খুন করে। তার কয়েক মাস পরে সুধীরের আট বছর বয়সী মেয়ে পায়েলকেও একই ভাবে খুন করে। জোড়া খুনের তিন বছর পর সুধীরের বড় মেয়ে ১৬ বছর বয়সী পারুলকে খুন করে লীলু। এখানেই তিনি থামেননি। ২০১২ সালে ব্রিজেশের আর এক ছেলে নিশুকেও তিনি খুন করে।

গাজিয়াবাদে ত্যাগী পরিবারের একটি জমি রয়েছে, যার মূল্য পাঁচ কোটি টাকা। সেই জমি হাতিয়ে নেওয়ার জন্যই একের পর এক খুন করেছে লীলু। তার স্বীকারোক্তি রেকর্ড করেছে পুলিশ। লীলুর বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির কয়েকটি ধারায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। এই ঘটনায় লীলুকে সাহায্য করার অভিযোগে আরও চার জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। সূত্র: আনন্দবাজার।

এসএস

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS