Mir cement
logo
  • ঢাকা বুধবার, ২৭ অক্টোবর ২০২১, ১২ কার্তিক ১৪২৮

বাবা-ছেলেকে চারতলা ছাদ থেকে ছুঁড়ে ফেলল যুবক

বাবা-ছেলেকে চারতলা ছাদ থেকে ছুঁড়ে ফেলল যুবক
ফাইল ছবি

ভাড়া বাড়ির ছাদে ঘুড়ি ওড়াচ্ছিলেন বাবা ও ছেলে। ঘুড়ি কেটে দেওয়া নিয়ে পাশের বাড়ির সঙ্গে অল্পস্বল্প কথা-কাটাকাটিও চলছিল। সেই সময়েই ছাদে উঠে আসে প্রতিবেশী এক যুবক। অভিযোগ, নেশাগ্রস্ত ওই যুবক দাবি করে, ‘কোনও ঝগড়া নয়। চুপ করে থাকতে হবে।’ কিন্তু তার কথা না শোনায় বাবা ও ছেলেকে চারতলা বাড়ির ছাদ থেকে এক রকম ছুড়েই নীচে ফেলে দেয় ওই যুবক।

বিশ্বকর্মা পূজার দুপুরে ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের বরাহনগরে। রোববার (১৯ সেপ্টেম্বর) এ খবর প্রকাশ করেছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম আনন্দবাজার পত্রিকা।

খবর অনুযায়ী, প্রাণে বেঁচে গেলেও শরীরের বিভিন্ন জায়গায় গুরুতর চোট পেয়েছেন বাবা শুকদেব হালদার (৪৮) ও ছেলে সুশান্ত হালদার (২৫)। এর পরে রাতেই অজিত রাজবংশী নামে অভিযুক্ত যুবককে গ্রেপ্তার করেছে বরাহনগর থানার পুলিশ।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রের বরাত দিয়ে আনন্দবাজার বলছে, বরাহনগরের ১৭ নম্বর ওয়ার্ডের মৎস্যজীবী কলোনিতে ওই চারতলা বাড়িটির মালিকের নাম অর্জুন মালো। সেই বাড়িতে অনেক ভাড়াটে রয়েছেন। তাদেরই একজন শুকদেব সপরিবার সেখানে থাকেন। বিশ্বকর্মা পুজোর দিন দুপুরে অন্যান্য ভাড়াটে এবং বাচ্চাদের সঙ্গেই ছাদে উঠেছিলেন শুকদেব ও সুশান্ত। সকলেই ঘুড়ি ওড়াচ্ছিলেন। পেশায় একটি ছোট সংস্থার দিনমজুর শুকদেবের বড় ছেলে সূর্যকান্ত জানান, আচমকাই ছাদে উঠে আসে অজিত। নিজে ঘুড়ি না ওড়ালেও সে এ দিক ও দিক ঘুরে বেড়াচ্ছিল।

ঘুড়ি কাটাকাটি নিয়ে সেই সময়ে প্রতিবেশী এক ব্যক্তির সঙ্গে মজার ছলেই কথা-কাটাকাটি করছিলেন শুকদেব।

সূর্যকান্ত বলেন, ‘অজিত বাবাকে কয়েক বার চুপ করে থাকতে বলে। এমনকি, ওর কথা না শুনলে ছাদ থেকে ফেলে দেওয়ারও হুমকি দেয়। কিন্তু বাবা ভেবেছিলেন, অজিত নিশ্চয়ই মজা করছে।’

অভিযোগ, কেউ কিছু বুঝে ওঠার আগেই অজিত হঠাৎ শুকদেবকে পাঁজাকোলা করে ছাদ থেকে নীচে ফেলে দেয়। পাশেই ছিল টালির ছাউনির একটি বাড়ি। টালি ভেঙে সেই ঘরের খাটের উপরে গিয়ে পড়েন শুকদেব। বাবাকে ছুড়ে ফেলার ওই ঘটনা দেখে প্রতিবাদ করায় সুশান্তকেও একইভাবে ছুড়ে ফেলার চেষ্টা করে অজিত।

সূর্যকান্ত বলেন, ‘ভাই প্রথমে কোনও মতে ছাদের পাঁচিলটা ধরে ফেলেছিল। কিন্তু সেখান থেকে হাত ছাড়িয়ে ওকেও ফেলে দেওয়া হয়।’

একই জায়গা দিয়ে ছুড়ে ফেলায় সুশান্তও গিয়ে পড়েন প্রায় তার বাবার উপরে। বিকট শব্দে হকচকিয়ে ওঠেন আশপাশের লোকজন। ছাদে থাকা সকলে ভয়ে হুড়মুড়িয়ে নীচে নামতে শুরু করেন। অভিযোগ, দু’-একটি শিশুকেও ফেলে দেওয়ার চেষ্টা করে অজিত। কিন্তু তারা কোনও মতে হাত ছাড়িয়ে পালায়। ঘটনার প্রতিবাদ করায় বাড়ির মালিক অর্জুনের উপরেও চড়াও হয় অজিত। মারধর করা হয় বাড়িওয়ালার পরিবারের লোকজনকেও।

আরআর/এসএস

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS