Mir cement
logo
  • ঢাকা মঙ্গলবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৩ আশ্বিন ১৪২৮

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, আরটিভি নিউজ

  ১১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:৫৭
আপডেট : ১১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:২৮

৯/১১ হামলার আগাম বার্তা পেয়েছিল যুক্তরাষ্ট্র 

৯/১১ হামলার আগাম বার্তা পেয়েছিল যুক্তরাষ্ট্র 
ছবি- সংগৃহীত

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে টুইন টাওয়ারে ২০০১ সালের ১১ সেপ্টেম্বর এক ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটে। হামলায় আল-কায়েদার সন্ত্রাসীরা চারটি বিমান ছিনতাই করে। যার মধ্যে দুটি বিমান দিয়ে নিউইয়র্কের বিশ্ববাণিজ্য কেন্দ্র টুইন টাওয়ারে হামলা চালানো হয়। বাকী দুটি বিমানের মধ্যে একটি দিয়ে মার্কিন প্রতিরক্ষা দপ্তর পেন্টাগনে হামলা এবং আরেকটি বিমান বিধ্বস্ত হয়ে পড়ে যায়।

এ হামলায় প্রায় ৩ হাজার মানুষ মারা যায় এবং ৬ হাজারের বেশি মানুষ আহত হয়। ভয়াবহ এই হামলা স্তম্ভিত করে দিয়েছিল পুরো বিশ্বকে।

টুইন টাওয়ারে সন্ত্রাসী হামলার অনেক আগে থেকেই মার্কিন কর্তৃপক্ষকে সতর্ক করেছি ছিল সিআইএ, এফবিআই এবং মার্কিন কংগ্রেস কমিশন। কংগ্রেসের কমিশন বার বার সরকারকে বোঝানোর চেষ্টা করছিল যেন তারা এ ব্যাপারে পদক্ষেপ গ্রহণ করে। ওই কমিশনের তখনকার প্রধান ছিলেন সিনেটর গ্যারি হার্ট।

কিন্তু গ্যারি হার্ট সতর্ক করলেও হামলা প্রতিরোধে কোনো পদক্ষেপ নেয়নি মার্কিন সরকার। ১১ সেপ্টেম্বর হামলার আট মাস আগে গ্যারি হার্ট এবং রিপাবলিকান ওয়ারেন রাডম্যান একটি রিপোর্ট প্রকাশ করেছিলেন। ওই রিপোর্টে আমেরিকার নিরাপত্তা ঝুঁকির কথা বলা হয়েছিল।

তৎকালীন সময়ে সবেমাত্র ক্ষমতায় এসেছিল নতুন প্রেসিডেন্ট জর্জ বুশ। গ্যারি হার্টদের ইচ্ছা ছিল তাদের করা তদন্ত প্রতিবেদনটি নতুন প্রেসিডেন্টের কাছে তুলে দেবেন। কিন্তু জর্জ বুশ তাদের সঙ্গে দেখা না করায় প্রতিবেদনটি আর তার হাতে তুলে দেওয়া সম্ভব হয়নি।

তবে প্রতিবেদনের ব্যাপারে পররাষ্ট্রমন্ত্রী কলিন পাওয়েল, প্রতিরক্ষামন্ত্রী ডোনাল্ড রামসফেল্ড এবং প্রেসিডেন্ট বুশের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা কন্ডোলিজা রাইসে জানানো হলেও তারা তেমন কোনো পদক্ষেপ গ্রহণ করেন পারেননি। সূত্র: বিবিসি বাংলা

জেএইচ/

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS