Mir cement
logo
  • ঢাকা সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২ আশ্বিন ১৪২৮

নাগরিকত্ব আইন বাস্তবায়ন আরও পেছাচ্ছে ভারতে

নাগরিকত্ব আইন বাস্তবায়ন আরও পেছাচ্ছে ভারতে
সংগৃহীত

দেড় বছর আগেই আইন তৈরি হয়েছে। কিন্তু সেই সংক্রান্ত নিয়মনীতি এখনও ঠিক হয়নি। এজন্য আরও ছয় মাস সময় প্রয়োজন। সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন (সিএএ) নিয়ে মঙ্গলবার সংসদে এমনই জানিয়েছে ভারতের কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। খবর ইন্ডিয়া টুডের।

সংসদে তারা জানায়, নিয়মনীতি ঠিক হলে তবেই দেশজুড়ে সিএএ চালু হবে। অর্থাৎ যে আইন নিয়ে সরকারের বিরুদ্ধে গত দুই বছর ধরে প্রতিবাদ, বিক্ষোভ চলছে, সেই সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের বাস্তবায়ন পিছিয়ে গেল।

সিএএ’র কাজ কত দূর এগিয়েছে, কবে এর নিয়মনীতি প্রকাশ করা হবে, মঙ্গলবার সংসদে তা জানতে চান কংগ্রেস সাংসদ গৌরব গগৈ। জবাবে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণারয় জানায়, সিএএ’র নিয়মনীতি ঠিক করতে আরও ছয় মাস সময় লাগবে। এজন্য সংসদে ২০২২ সালের ৯ জানুয়ারি পর্যন্ত সময় চেয়েছে কেন্দ্র।

২০১৯ সালে ১২ ডিসেম্বর সিএএ’র বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হয়। ২০২০ সালের জানুয়ারি মাসে তা আইনে পরিণত হয়। তবে এতদিন পরও নিয়মনীতি ঠিক না হওয়ার কোনও ব্যাখ্যা দেয়নি কেন্দ্র। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী নিত্যানন্দ রাই বলেন, এই আইনের নিয়মনীতি ঠিক করার জন্য লোকসভা এবং রাজ্যসভার কমিটির কাছে ২০২২ সালের ৯ জানুয়ারি পর্যন্ত সময় চাওয়া হয়েছে।

২০১৪ সালের ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে পাকিস্তান, আফগানিস্তান, বাংলাদেশ থেকে আসা হিন্দু, শিখ, জৈন, বৌদ্ধ, পার্সি এবং খ্রিস্টানদের নাগরিকত্ব দেয়ার কথা বলা হয়েছে নাগরিকত্ব আইনে। এজন্য নিজের এবং বাবা-মায়ের জন্মের প্রমাণপত্র দিতে হবে। কোনও কারণে তা না দিতে পারলে ভারতে ছয় বছর বসবাসের পর নাগরিকত্বের জন্য আবেদন করতে পারবে তারা।

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS