Mir cement
logo
  • ঢাকা শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২ আশ্বিন ১৪২৮

রহস্যময় ‘হাভানা সিনড্রমে’ আক্রান্ত হচ্ছেন মার্কিন কর্তাব্যক্তিরা

বিভিন্ন দেশে রহস্যময় ‘হাভানা সিনড্রমে’ আক্রান্ত হচ্ছেন মার্কিন কর্তাব্যক্তিরা
সংগৃহীত ছবি

একের পর এক রোগে আক্রান্ত হচ্ছে মার্কিন কূটনীতিক ও দূতাবাসের কর্মচারীরা। অস্ট্রিয়ার রাজধানী ভিয়েনায় আমেরিকান দূতাবাসের এ ঘটনা তদন্ত করে দেখছে মার্কিন সরকার। বিশ জনের বেশি কর্মকর্তা যেসব উপসর্গের কথা বলেছেন, তার সঙ্গে হাভানা সিনড্রম বা হাভানা উপসর্গ নামে পরিচিত অসুস্থতার মিল রয়েছে। রহস্যজনক এসব উপসর্গ মূলত মস্তিষ্কের সাথে সংশ্লিষ্ট।

প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন জানুয়ারি মাসে ক্ষমতা গ্রহণের পর থেকে দূতাবাসের কর্মীরা এই রহস্যজনক রোগে আক্রান্ত হতে শুরু করেছেন। এসব উপসর্গ কেন হচ্ছে তার কোন ব্যাখ্যা পাওয়া যায়নি, তবে আমেরিকান বিজ্ঞানীরা বলছেন খুব সম্ভবত সরাসরি মাইক্রোওয়েভ বিকিরণের কারণে এসব উপসর্গ তৈরি হচ্ছে। মাইক্রোওয়েভ হল অতি ক্ষুদ্র কম্পাঙ্কের তড়িৎ চৌম্বকীয় তরঙ্গ।

ভিয়েনায় দূতাবাস কর্মী ও কূটনীতিকদের রহস্যজনকভাবে অসুস্থ হয়ে পড়ার খবর প্রথম প্রকাশিত হয় শুক্রবার নিউ ইয়র্কার ম্যাগাজিনে। এরপর আমেরিকার পররাষ্ট্র দপ্তর এই খবর নিশ্চিত করে এবং জানায় তারা বিষয়টি নিয়ে ‘খুবই জোরেশোরে তদন্ত চালাচ্ছে’।

পৃথিবীর অন্য কয়েকটি দেশ থেকেও একইধরনের রহস্যজনক উপসর্গে আমেরিকানদের আক্রান্ত হবার খবর পাওয়া গেছে। তবে মার্কিন কর্মকর্তারা বলছেন, কিউবার ঘটনার পর সবচেয়ে বেশি সংখ্যক আমেরিকান এখন আক্রান্ত হলেন ভিয়েনায়।

এই হাভানা উপসর্গ প্রথম দেখা গিয়েছিল কিউবায় ২০১৬-১৭ সালে। সেসময় হাভানায় আমেরিকান ও ক্যানাডার দূতাবাসের কর্মীরা নানা ধরনের অসুস্থতার অভিযোগ করেছিলেন, যার মধ্যে ছিল মাথা ঘোরা, ভারসাম্য হারানো, কানে শুনতে না পাওয়া এবং একরকম উৎকণ্ঠা, যেটাকে তারা ব্যাখ্যা করেন ‘বোধশক্তি ঘোলাটে’ হয়ে যাওয়া হিসাবে।

আমেরিকা সেসময় অভিযোগ করেছিল, কিউবা ‘শব্দ তরঙ্গ ব্যবহার করে হামলা’ চালিয়েছে। কিউবা এ অভিযোগ জোরের সাথে অস্বীকার করেছিল। তবে ওই ঘটনার পর দুই দেশের মধ্যে উত্তেজনা খুবই বৃদ্ধি পেয়েছিল।

সূত্র : বিবিসি

টিএস

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS