Mir cement
logo
  • ঢাকা বুধবার, ২৮ জুলাই ২০২১, ১৩ শ্রাবণ ১৪২৮

ক্রেন এনে দিনে-দুপুরে আস্ত রোড রোলার চুরি

ক্রেন এনে দিনে-দুপুরে আস্ত রোড রোলার চুরি
এভাবেই কেটে তিন ভাগ করা হয় রোড রোলারটি - সংগৃহীত ছবি

রাতারাতি গায়েব হয়ে গেল আস্ত রোড রোলার। ঠিক গায়েব নয় রীতিমতো ঘটা করে চুরি। দুটি ক্রেন এনে বিশাল রোড রোলারকে ট্রাকে তুলে নিয়ে গেল চোরেরা। ঘটনা প্রতিবেশী ভারতের বেঙ্গালুরু রাজ্যে।

পুলিশ জানায়, বেঙ্গালুরুর ইদিহাসে এই প্রথম কোনো রোড রোলার চুরির ঘটনা ঘটলো। শহরের একটি খেলার মাঠে বহুদিন ধরে ওই রোড রোলারটি পড়ে ছিল। বিষয়টি নজরে রাখে এন বিনয় নামের এক যুবক। মাসখানেক ধরে সেটি পরিত্যক্ত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে সেটি বিক্রির ফন্দি আঁটে সে।

এরপর স্থানীয় লোহার ব্যাপারি ইসমাইলের সঙ্গে কথা বলে এও বুঝতে পারে যে ওই রোড রোলারের লোহা বিক্রি করে বেশ মোটা অর্থ পাওয়া যাবে। তারপরেই শুরু হয় রোড রোলার চুরির তোড়জোর। একটি ট্রাক নিয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে যায় সে। দু’টি ক্রেনের সাহায্যে রোড রোলারটিকে ট্রাকে তুলে নিজের বাড়ির পাশে একটি ফাঁকা মাঠে এনে রাখে বিনয়। সেখানেই রোলারটিকে গ্যাসকাটার দিয়ে কেটে তিনভাগ করা হয়।

পুলিশ জানিয়েছে, লোহার ব্যবসায়ীর কাছে প্রতি কেজি ২৮ টাকা মূল্যে ৭.৮ টন লোহা বিক্রি করে ওই যুবক। এদিকে লকডাউনের শুরু থেকে হাতে কাজ নেই বলেই রোড রোলারের মালিক ভি সেলভারাজ সেটিকে ওই মাঠে রেখেছিলেন। তার এক আত্মীয় মারা যাওয়ায় গত ২৫ মে তামিলনাড়ুতে গিয়েছিলেন। গত ১৯ জুন তিনি ফিরে আসেন বেঙ্গালুরুতে।

রোড রোলারটি যেখানে পার্ক করা ছিল, সেখানে গিয়ে তা দেখতে না পেয়ে পুলিশের দ্বারস্থ হন তিনি। অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত শুরু করে চন্দ্র লেআউট থানা। যেখানে ওই রোড রোলার ছিল, সেই জায়গার সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখতে গিয়ে বিষ্মিত হন তদন্তকারীরা।

ইতোমধ্যেই ট্রাকের চালক পবন ধরা পড়েছে। তবে মূল অভিযুক্ত বিনয় এবং লোহার ব্যবসায়ী ইসমাইল এখনও পলাতক। বিনয়ের বাবা বেঙ্গালুরুতে জমি বিক্রেতা হিসেবে পরিচিত। তার ব্যবসা দেখভাল করত ৩০ বছরের ছেলে বিনয়, যে কিনা রোলারটি চুরি করে পালিয়ে বেড়াচ্ছে।

সূত্র : ইন্ডিয়া টুডে

টিএস

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS