logo
  • ঢাকা শনিবার, ১৭ এপ্রিল ২০২১, ৪ বৈশাখ ১৪২৮

‘বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কের’ খাতিরে পলাতক পুলিশ কর্মকর্তাদের ফেরত চায় মিয়ানমার

ভারতে পালিয়ে যাওয়া পুলিশ কর্মকর্তাদের ফেরত চায়  মিয়ানমার
ছবি: সংগৃহীত

জান্তা সরকারের নির্দেশ পালনে অস্বীকৃতি জানিয়ে ভারতে পালিয়ে যাওয়া পুলিশ কর্মকর্তাদের ফিরিয়ে দেওয়ার জন্য ভারত সরকারের কাছে চিঠি দিয়েছে মিয়ানমারের সরকার।

বিবিসির এক প্রতিবেদনে জানা গেছে, সম্প্রতি ওই পুলিশ কর্মকর্তা ও তাদের পরিবারসমূহ সীমান্ত পেরিয়ে তাদের ভূখণ্ডে এসেছেন।

আরও পড়ুন : ভারত থেকে তেঁতুলের বিচি আমদানি

মিয়ানমারের কর্তৃপক্ষ চিঠিতে দুই দেশের মধ্যকার 'বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কের' খাতিরে ওই কর্মকর্তাদের ফেরত পাঠাতে বলেছে।

ভারতীয় কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে বিবিসি জানায়, সম্প্রতি মিয়ানমারের কয়েকজন পুলিশ কর্মকর্তা ও তাদের পরিবারের সদস্যরা সীমান্ত অতিক্রম করে ভারতে প্রবেশ করেছে। ভারতীয় কর্তৃপক্ষকে লেখা এক চিঠিতে ‘বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক বজায় রাখার জন্য’ ওই পুলিশ কর্মকর্তাদের ফেরত চেয়েছে মিয়ানমারের জান্তা সরকার।

গত মাসে সংঘটিত সামরিক অভ্যুত্থানের পর থেকে মিয়ানমারে সহিংস বিক্ষোভ এবং ধর্মঘট চলছে। মিয়ানমার থেকে পাওয়া খবরে জানা যাচ্ছে, ইয়াঙ্গনে বিক্ষোভকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে পুলিশ কাঁদানে গ্যাস, রাবার বুলেট এবং স্টান গ্রেনেড ব্যবহার করেছে। যদিও নতুন কোনও হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।

আরও পড়ুন : নাবালককে ‘ধর্ষণ’ করে গর্ভবতী হলেন তরুণী

ভারতের মিজোরাম রাজ্যের ডেপুটি কমিশনার মারিয়া সিটি জুয়ালি ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে বলেন, সেখানে পালিয়ে আসা পুলিশ কর্মকর্তাদের ফেরত চেয়ে মিয়ানমারের ফালাম জেলা থেকে তাকে চিঠি পাঠানো হয়েছে। চিঠিতে বলা হয়েছে, মিয়ানমারের অন্তত ৮ জন পুলিশ অফিসার ভারতে প্রবেশ করেছে বলে তাদের কাছে তথ্য রয়েছে। তাই দুই প্রতিবেশী দেশের মধ্যে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক বজায় রাখার জন্য, মিয়ানমারের এই আট পুলিশ সদস্যকে হস্তান্তর করার জন্য বিনীত অনুরোধ করা হলো।

জুয়ালি বলেন, তিনি দিল্লি থেকে ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সিদ্ধান্তের অপেক্ষায় আছেন।

আরও পড়ুনঃ স্বর্ণের দাম আরেক দফা কমলো

রয়টার্স বলছে, পুলিশ কর্মকর্তা ও তাদের পরিবারের সদস্যসহ প্রায় ৩০ জন সীমান্ত পেরিয়ে ভারতের কাছে আশ্রয় চেয়েছেন।

ভারতীয় কর্মকর্তাদের করাত দিয়ে বার্তা সংস্থা এএফপি জানিয়েছে, শনিবারও মিয়ানমারের বহু নাগরিক ভারতে ঢোকার জন্য সীমান্তে অপেক্ষা করছিলেন।

ফেব্রুয়ারির শুরুতে মিয়ানমারের সামরিক বাহিনী ক্ষমতা দখল করে গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত দেশটির নেতা অং সান সু চিকে গ্রেপ্তার করে। এরপর থেকে দেশটিতে সামরিক শাসন অবসানের দাবিতে গণ-বিক্ষোভ শুরু হয়।

আরও পড়ুন : নক্সাবন্দীর গোপন ৮ স্ত্রী, মামলা তুলে নিতে ৪র্থ স্ত্রীকে হুমকি!

শুরুতে সেনাবাহিনী বিক্ষোভকারীদের প্রতি কিছুটা নমনীয়ভাব দেখালেও, গত কয়েক সপ্তাহে কঠোর দমনপীড়ন শুরু হয়েছে, এবং এ পর্যন্ত ৫৫ জন বিক্ষোভকারী মারা গেছেন, যাদের বেশিরভাগই তরুণ।

এসএস

RTV Drama
RTVPLUS