logo
  • ঢাকা শুক্রবার, ০৫ মার্চ ২০২১, ২০ ফাল্গুন ১৪২৭

নিজের বিমানে করে কিমকে উত্তর কোরিয়া পাঠাতে চেয়েছিলেন ট্রাম্প

Trump offered Kim Jong Un a ride home on Air Force One
সংগৃহীত

কিম জং উনকে প্রেসিডেন্টের বিমান এয়ার ফোর্স ওয়ানে করে উত্তর কোরিয়া পৌঁছে দিতে চেয়েছিলেন সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। দুই বছর আগে ভিয়েতনামের রাজধানী হ্যানয়ে উভয় নেতার বৈঠকের পর ট্রাম্প এমনটা করতে চেয়েছিলেন বলে বিবিসি’র নতুন এক ডকুমেন্টরিতে দাবি করা হয়েছে।

ট্রাম্প ২০১৭ সালে ক্ষমতায় বসার পর উত্তর কোরিয়ার নেতার সঙ্গে বাকযুদ্ধে জড়ান। তবে এরপর উভয়ের সম্পর্কে ব্যাপক পরিবর্তন ঘটে। এমনকি দুই দুইবার বৈঠকও করেন উভয় নেতা। কিমের প্রতি নিজের ভালোবাসার কথাও গোপন রাখেননি ট্রাম্প।

তবে এসব বৈঠকের পর উল্লেখযোগ্য কোনও অগ্রগতি হয়নি। বরং হ্যানয়ে ওই বৈঠকের পর সম্পর্কের অবনতি হয়। উত্তর কোরিয়া দেশটির ওপর নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়ার বিনিময়ে নিজেদের পরমাণু কর্মসূচি বন্ধ করে দেয়ার প্রতিশ্রুতি দেয়। যদিও শেষপর্যন্ত দুটি বিষয়ের কোনোটিই ঘটেনি।

বিবিসি’র ‘ট্রাম্প টেকস অন দ্য ওয়ার্ল্ড’ নামের ওই ডকুমেন্টরিতে বলা হয়, ২০১৯ সালে ভিয়েতনামে ওই বৈঠকের পর কিমকে এয়ার ফোর্স ওয়ানের বিমানে করে উত্তর কোরিয়া পৌঁছে দিতে চান। ট্রাম্পের এমন প্রস্তাবে ‘দীর্ঘদিনের অভিজ্ঞ কূটনীতিকরাও’ অবাক হয়ে যান।

যদি কিম এমন প্রস্তাব মেনে নিতেন তাহলে উত্তর কোরিয়ার নেতা এবং তার সফর সঙ্গীদের কয়েকজন এয়ার ফোর্স ওয়ানে ওঠার সুযোগ পেতেন। এর ফলে তারা প্রেসিডেন্ট আনুষ্ঠানিক বিমানে এবং উত্তর কোরিয়ার আকাশসীমা প্রবেশ করতেন, যা বেশ কিছু নিরাপত্তা ইস্যুর কারণ হতো।

তবে কিম ওই প্রস্তাব নাকচ করে দেন। ট্রাম্পের জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদের এশিয়া বিষয়ক শীর্ষ বিশেষজ্ঞ ম্যাথিউ পটিনগার বলেছেন, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প কিমকে এয়ার ফোর্স ওয়ানে করে উত্তর কোরিয়া পৌঁছে দেয়ার প্রস্তাব দিয়েছিলেন।

তিনি বলেন, ট্রাম্প জানতেন যে চীন হয়ে হ্যানয় আসতে কিমের একাধিক দিন লেগেছিল। এজন্য ট্রাম্প বলেন, আপনি চাইলে আমি আপনাকে দুই ঘণ্টার মধ্যে উত্তর কোরিয়া পৌঁছে দিতে পারি। তবে কিম এই প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেন।

RTV Drama
RTVPLUS