logo
  • ঢাকা সোমবার, ১২ এপ্রিল ২০২১, ২৯ চৈত্র ১৪২৭

‘মি-টু’ আন্দোলনে সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মামলায় মন্ত্রীর হার

ভারতে সাবেক মন্ত্রী এমজে আকবর একজন সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মানহানির মামলা করেছিলেন। কিন্তু সে মামলায় হেরে গেছেন তিনি। মামলার রায় ‘মি-টু’ আন্দোলনে ব্যাপক প্রভাবে ফেলার সম্ভাবনা রয়েছে। মন্ত্রীর বিরুদ্ধে সাংবাদিক প্রিয়া রামানিসহ কয়েকজন নারী ‘যৌন শিকারির মতো আচরণ’ করার অভিযোগ তুলেছিলেন। বুধবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) ভারতের বিচারক রায়ে বলেন, যৌন নিপীড়নের বিরুদ্ধে একজন নারী সোচ্চার হওয়ায় তাকে শাস্তি দেয়া সম্ভব না।

প্রিয়া রামানি এ বিষয়ে বলেছেন, যে সকল নারীরা কর্মক্ষেত্রে যৌন হয়রানির বিরুদ্ধে নিজেদের সোচ্চার করেছেন তাদের প্রতিনিধি হিসেবে মনে করছেন নিজেকে।

বিবিসি বাংলার প্রতিবেদন থেকে জানা যাচ্ছে, বুধবার দিল্লির আদালতের এ রায় ছিল গুরুত্বপূর্ণ। কেননা, ভারতে মি-টু আন্দোলনের জন্য যে সকল মামলা হয়েছে সেখানে আজকের এই রায় বিশেষ নজির স্থাপন করবে। নিপীড়কদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য আজকের রায় অন্য সকল ভুক্তভোগীদের উৎসাহ দেবে।

ভারতে মি-টু আন্দোলনে অভিযুক্ত সর্বাধিক পদস্থদের মধ্যে একজন প্রখ্যাত সম্পাদক এবং লেখক থেকে রাজনীতিবিদ হওয়া এমজে আকবর ২০১৮ সালে অক্টোবর মাসে যৌন হয়রানি কেলেঙ্কারির‌ অভিযোগ উঠার পর জুনিয়র পররাষ্ট্রমন্ত্রীর পদবী থেকে পদত্যাগ করেন তিনি। এরপর সাংবাদিক প্রিয়া রামানির বিরুদ্ধে মানহানির মামলা দায়ের করেন। কিন্তু মামলার রায় মন্ত্রীর পক্ষে আসেনি।

এসআর/এম

RTV Drama
RTVPLUS