logo
  • ঢাকা শনিবার, ২৩ জানুয়ারি ২০২১, ৯ মাঘ ১৪২৭

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, আরটিভি নিউজ

  ২৬ নভেম্বর ২০২০, ১৭:৪১
আপডেট : ২৬ নভেম্বর ২০২০, ১৭:৫৮

দোষ স্বীকার করায় সাবেক উপদেষ্টাকে ক্ষমা করলেন ট্রাম্প

Jen Flin, US president trump, Donald Trump, US president,
ডোনাল্ড ট্রাম্পের সাবেক উপদেষ্টা মাইকেল ফ্লিন
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রিয় গোয়েন্দা সংস্থা- এফবিআইকে মিথ্যা বলার দায় স্বীকার করে নেওয়া সাবেক জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা মাইকেল ফ্লিনকে ক্ষমা করে দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ফ্লিন ২০১৭ সালে মাত্র ২৩ দিনের জন্য উপদেষ্টা হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। খবর বিবিসির।  

ট্রাম্প বলেন, ফ্লিনকে ক্ষমা করার বিষয়টি ব্যাপকভাবে প্রত্যাশিত এবং শেষ পর্যন্ত তা করতে পেরে তিনি নিজেকে ‘সম্মানিত’ মনে করছেন। ফ্লিন যুক্তরাষ্ট্রে নিযুক্ত রাশিয়ার রাষ্ট্রদূতের সাথে যোগাযোগের বিষয়ে এফবিআইকে মিথ্যা বলার অভিযোগ স্বীকার করে নেন। তবে পরবর্তীতে ওই স্বীকারোক্তি প্রত্যাহারেরও চেষ্টা করেন তিনি।

২০১৭ সালের ১ লা ডিসেম্বর তার বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের পর একে তিনি নিজের জন্য চরম বেদনাদায়ক হিসেবে বর্ণনা করেন। তিনি বলেছিলেন, আমার বিরুদ্ধে যেসব অভিযোগ আনা হয়েছে, তা মিথ্যা। ঈশ্বরের শপথ করে তিনি বলেন, আমি সঠিক কাজটিই করেছি। 

বিবিসি জানায়, ২০১৬ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রাশিয়ার হস্তক্ষেপের অভিযোগ নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের বিচার বিভাগের তদন্তে ট্রাম্পের যে ক’জন সাবেক উপদেষ্টা বিভিন্ন দায়ে অভিযুক্ত হয়েছিলেন ফ্লিন ছিলেন তাদের একজন।

দোষ স্বীকারের ঘটনার পর তার সাথে কাজ করা মার্কিন দূতাবাসের সাবেক কর্মকর্তারা বলেন, জেনারেল ফ্লিনের ব্যবস্থাপনা খারাপ হলেও তিনি যথেষ্টই স্মার্ট। 

ফ্লিন ট্রাম্পের উপেদষ্টা নিযুক্ত হলেও আজীবন ডেমোক্রেট সমর্থক হিসেবে পরিচিত ছিলেন। ট্রাম্প প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার পর তিনি বলেছিন, ‘এটি একটি ঐতিহাসিক বিপ্লব।’

রাশিয়ার সাথে সম্পর্ক ভালো রাখলে কি কি সুবিধা পাওয়া যাবে, সেই বিষয়ে ট্রাম্পের সাথে প্রায়ই আলোচনা করতেন মাইকেল ফ্লিন।  

এদিকে, ট্রাম্পের ক্ষমা ঘোষণার পর টুইটারে এক প্রতিক্রিয়ায় যুক্তরাষ্ট্রের পতাকার একটি ইমোজি ও বাইবেলের একটি চরণ পোস্ট করেন মাইকেল ফ্লিন।

রিপাবলিকানরাও তাকে ক্ষমা করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়ায় ডোনাল্ড ট্রাম্পকে স্বাগত জানিয়েছেন।

ক্ষমা ঘোষণার পর সাউথ ক্যারোলাইনার সিনেটর লিন্ডসে গ্রাহাম বলেন, জেনারেল ফ্লিন কোনো রুশ এজেন্ট নন। রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত একটি তদন্ত ও বিচারের শিকার হয়েছেন তিনি।

এমএস
 

RTV Drama
RTVPLUS