logo
  • ঢাকা সোমবার, ৩০ নভেম্বর ২০২০, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

পাকিস্তানে সরকার পতনের জন্য বিরোধীদের বিক্ষোভ অব্যাহত

Image of protest
বিক্ষোভের চিত্র
পাকিস্তানের বিরোধী দলগুলো দেশটির সরকারের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ জারি রেখেছে। একইসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের ওপর প্রতিনিয়ত চাপ প্রয়োগ করছে। বিক্ষোভকারীদের অভিযোগ, ২০১৮ সালে সেনাবাহিনীর সহায়তায় নির্বাচনে জালিয়াতি করে ক্ষমতায় এসেছেন তিনি। খবর বিবিসির। 

প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বলেছেন, বিরোধী দলের নেতাদের বিরুদ্ধে চলা দুর্নীতির মামলার কার্যক্রম বন্ধ করার জন্য এই প্রচারণা চালানো হচ্ছে।

পাকিস্তানের সেনাবাহিনী বলছে, রাজনীতির সাথে নিজেদের কোনো সম্পর্ক নেই। ইমরান খানও তার নির্বাচনে বিজয়ের সাথে সেনাবাহিনীর সম্পর্ক থাকার অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। ২০২৩ সালের আগে পাকিস্তানে সাধারণ নির্বাচন হবে না বলে জানাচ্ছেন তারা।

১৬ই অক্টোবর থেকে পাকিস্তান ডেমোক্র্যাটিক মুভমেন্ট (পিডিএম) একের পর এক বিক্ষোভ আয়োজন করেছে। দক্ষিণপন্থী ধর্মীয় দল, বামপন্থী চিন্তাধারার দল, এমনকি ধর্মনিরপেক্ষ জাতীয়তাবাদী দলের সদস্যরাও এই আন্দোলনের সাথে যুক্ত।

দেশটির চারটি রাজ্যের তিনটিতে - পাঞ্জাব, সিন্ধ ও বালোচিস্তান- বড় ধরণের র‍্যালি অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বিরোধী দলগুলো বলছে, তারা 'জনগণের প্রতিনিধিত্ব না করা' এই সরকারকে ক্ষমতাচ্যুত করতে চায়। সরকারের বিরুদ্ধে বিচার ব্যবস্থার ওপর প্রভাব তৈরি করা এবং অর্থনীতির অব্যবস্থাপনার অভিযোগও তুলেছে তারা।
তবে চলমান বিক্ষোভের কী পরিণতি হবে তা কেউ ধারণা করতে পারছে না।

জিএ

RTVPLUS