শুধু বিয়ের জন্য ধর্মান্তরিত গ্রহণযোগ্য নয়: ভারতীয় আদালত

প্রকাশ | ৩১ অক্টোবর ২০২০, ১৪:১৩

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, আরটিভি নিউজ
প্রতীকী ছবি

বিয়ের জন্য মাত্র এক মাস আগে ধর্মান্তরিত হয়েছিলেন একজন নারী। এরপর থেকেই হুমকি পাচ্ছিলেন ওই দম্পতি। তাই আদালতের দ্বারস্থ হন তারা। পুলিশি নিরাপত্তা চেয়ে আবেদন করেন। কিন্তু সেই আবেদন খারিজ করে দিয়েছেন ভারতের এলাহাবাদ হাইকোর্ট।

হাইকোর্ট বলছে, ওই মুসলিম নারী শুধু বিয়ে করবেন বলেই হিন্দু ধর্ম গ্রহণ করেছিলেন। যা মোটেও আদালতের কাছে গ্রহণযোগ্য নয়। বিচারপতি মহেশচন্দ্র ত্রিপাঠির ভাষায়, ওই নারী বিয়ের এক মাস আগে ধর্মান্তরিত হন।

ওই দম্পতির আবেদন খারিজ করতে দিয়ে ২০১৪ সালের এলাহাবাদ হাইকোর্টের একটি রায় উল্লেখ করেন বিচারপতি ত্রিপাঠি। যেখানে আদালতের পর্যবেক্ষণ ছিল যে, কেবল বিয়ের জন্য ধর্মান্তরকরণ গ্রহণযোগ্য নয়। তাই সংবিধানের ২২৬ নম্বর ধারা অনুযায়ী বিষয়টিতে হস্তক্ষেপ করবে না আদালত।

এর আগে ২০১৪ সালে একইভাবে পুলিশি নিরাপত্তা চেয়ে একাধিক আবেদন করেছিল এক দম্পতি। তখন এক নারী বিয়ের জন্য ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছিলেন। পরে অব্যাহত হুমকির মুখে আদালতের কাছে নিরাপত্তা আবেদন করেছিলেন ওই দম্পতি।

তবে আদালত তার রায়ে বলেছিলেন, ইসলাম সম্পর্কে কোনও জ্ঞান না থাকা বা ইসলামে বিশ্বাস না থাকা সত্ত্বেও কোনও মুসলিম ছেলের কথায় কোনও হিন্দু মেয়ের বিয়ের জন্য ধর্মান্তরিত হওয়া কীভাবে বৈধ হতে পারে?

হাইকোর্ট আরও বলেন, একজন ব্যক্তি ইসলামে ধর্মান্তরিত হতে পারেন যদি ওই পুরুষ/নারী প্রাপ্তবয়স্ক ও স্বাভাবিক চিন্তার অধিকারী হন এবং আল্লাহ তায়লার একত্বের প্রতি বিশ্বাস এবং হজরত মুহাম্মদ (সা.) এর আদর্শে বিশ্বাস রেখে নিজের ইচ্ছায় ইসলাম গ্রহণ করেন।