‘আমি মুহাম্মদ (সা.)-কে ভালোবাসি’ লেখা মাস্ক পরে সংসদে কসোভোর এমপি

প্রকাশ | ২৬ অক্টোবর ২০২০, ১৬:৫৮ | আপডেট: ২৬ অক্টোবর ২০২০, ১৭:২১

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, আরটিভি নিউজ
সংগৃহীত

ফ্রান্সের ইসলাম ভীতি কর্মকাণ্ডের বিরুদ্ধে উত্তাল হয়ে উঠেছে মুসলিম বিশ্ব। বিভিন্ন দেশ বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়ে ফ্রান্সের বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করছে। কয়েকটি আরব দেশ এরই মধ্যে ফ্রান্সে পণ্য বর্জনের ডাকও  দিয়েছে।

প্রতিবাদ জানাতে পিছিয়ে নেই কসোভোও। মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ দেশটির একজন এমপি তার নিজের মতো করে প্রতিবাদ জানিয়েছেন। প্রতিবাদের অংশ হিসেবে রোববার ‘আই লাভ মুহাম্মদ (সা.)’ লেখা মাস্ক পরে পার্লামেন্টে আসেন ইমান আররাহমানি।

সেলফ-ডিটারমিনেশন মুভমেন্টের সদস্য আররাহমানি বলেন, তিনি দুটি কারণে এই মাস্ক পরেছেন। তিনি বলেন, মুহাম্মদ (সা.) এর বঙ্গচিত্র সম্বলিত প্রকাশ অযোগ্য আর্টিকেল বিতরণের ঘটনায় ফ্রান্সে কসোভোর রাষ্ট্রদূত কেনদ্রিম গাশি কোনও প্রতিবাদ জানাননি। আর দ্বিতীয় কারণ হচ্ছে আমরা মুহাম্মদ (সা.) এর জন্ম মাসে আছি।

ওই মাস্ক পরে নিজের একটি ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেছেন আররাহমানি। তিনি বলেন, শান্ত এবং কোমলতার সঙ্গে প্রতিক্রিয়া দেখান। কাউকে অবমাননা বা উপহাস করবেন না। মুহাম্মদ (সা.) মানবজাতির জন্য রহমতের রাসূল।

আররাহমানি তার ফেসবুক প্রোফাইলে আরও লিখেছেন যে, তার এই পদক্ষেপে কিছু লোক হয়ত মনক্ষুণ্ন হয়েছেন। এজন্য তিনি দুঃখ প্রকাশ করে বলেন, কিন্তু এটা করা প্রয়োজন ছিল ‘কারণ তারা সাংবাদিকতার নিবন্ধের বিস্তারিত এবং প্রেক্ষাপট জানেন না।

আরও পড়ুনঃ

মুহাম্মাদ (সা.) কে অবমাননা করায় ফ্রান্সের শাসকগোষ্ঠীকে মূর্খ ও গোঁয়ার বললেন ইরানের স্পিকার

ইসলামবিদ্বেষী পোস্ট নিষিদ্ধের দাবিতে ফেসবুককে ইমরান খানের চিঠি

পণ্য বয়কট বন্ধে আরব দেশগুলোর প্রতি ফ্রান্সের আহ্বান

স্কুলে বাক স্বাধীনতার শিক্ষা দিতে গিয়ে মুহাম্মদ (সা.) এর বিতর্কিত কার্টুন দেখান স্যামুয়েল প্যাটি নামের ৪৭ বছর বয়সী ইতিহাস ও ভূগোলের একজন শিক্ষক। এ ঘটনায় প্যাটিকে মাথা কেটে হত্যা করে ১৮ বছর বয়সী চেচনীয় বংশোদ্ভূত আব্দুল্লাখ আনজোরোভ। পরে পুলিশের গুলিতে নিহত হয় আনজোরোভ।