যুদ্ধের জন্য সেনাকে প্রস্তুত থাকতে নির্দেশ দিলেন জিনপিং

প্রকাশ | ১৫ অক্টোবর ২০২০, ১৮:৪৫ | আপডেট: ১৫ অক্টোবর ২০২০, ১৯:০১

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, আরটিভি নিউজ
সংগৃহীত

লাদাখে সীমান্ত সংঘাতের মধ্যেই দেশের সেনাবাহিনীকে যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত থাকার নির্দেশ দিয়েছেন চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং। বুধবার গুয়াংডং প্রদেশের একটি সামরিক ঘাঁটি পরিদর্শনে গিয়ে এ কথা বলেন জিনপিং।

চীনের সরকারি গণমাধ্যম শিনহুয়া জানিয়েছে, গুয়াংডং প্রদেশের চাওঝাও শহরে চীনের গণমুক্তি ফৌজের নৌবাহিনীর যে ঘাঁটি রয়েছে সেখানে যান জিনপিং। কোরের সদস্যদের ‘চূড়ান্ত সতর্ক’ থাকার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। বাহিনীর উদ্দেশে তার বার্তা, আপনাদের মন যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত করে রাখুন।

বাহিনীর প্রতি জিনপিংয়ের এই বার্তা মুহূর্তেই সাড়া ফেলে দিয়েছে আন্তর্জাতিক মহলে। আসলে তিনি যে ঘুরিয়ে হুঁশিয়ারি দিচ্ছেন সে কথাও স্পষ্ট। কিন্তু চীনের নিশানায় কোন দেশ? সম্প্রতি তাইওয়ান প্রণালী (চীন এবং তাইওয়ানের মাঝে প্রণালী)-তে মার্কিন যুদ্ধ জাহাজের উপস্থিতি দেখা গেছে।

যুক্তরাষ্ট্র বলছে এটা ‘রুটিন’ সফর। কিন্তু ওয়াশিংটনের এই পদক্ষেপের পেছনে ভিন্ন উদ্দেশ্য দেখছে বেইজিং। আর তা নিয়েই দুই দেশের মধ্যে কূটনৈতিক পারদ নতুন করে চড়ছে বলে মনে করছে আন্তর্জাতিক মহলের একটা বড় অংশ। তাদের ধারণা, সে কারণেই মেরিন কোরের সদস্যদের যুদ্ধের জন্য ‘প্রস্তুত’ থাকার বার্তা দিয়েছেন জিনপিং।

এদিকে ইতোমধ্যেই যুক্তরাষ্ট্রের যুদ্ধ জাহাজ পাঠানোর সিদ্ধান্তের কড়া নিন্দা জানিয়েছে বেইজিং। চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ঝাও লিঝিয়ান বলেছেন, তাইওয়ানে সামরিক অভিযান বাতিল করুক আমেরিকা।

যুক্তরাষ্ট্র এবং তাইওয়ানের মধ্যে সামরিক চুক্তি বাতিলেরও দাবি তুলেছে চীন। তবে ওয়াশিংটনের পক্ষ থেকে পাল্টা বলা হয়েছে, আন্তর্জাতিক আইন মেনেই মার্কিন বিমান বাহিনীর জাহাজ চলবে এবং বিমান উড়বে।

আরও পড়ুন: 
করোনা হয়েছিল ট্রাম্পের ছেলেরও
হায়দরাবাদের রাস্তায় ভেসে যাচ্ছে মানুষ
করোনা রুখতে ফ্রান্সে নাইট কারফিউ