logo
  • ঢাকা বুধবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২০, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

সালমান শাহ’র ব্যবহার করা জিনিসপত্র নিলামে না তুলতে মায়ের উকিল নোটিশ

Mother's lawyer notices not to auction Salman Shah's used items
ছবি সংগৃহীত
সালমান শাহ। ঢাকাই ছবির জনপ্রিয় নায়ক। সিনেমাপ্রেমী মানুষের কাছে এক আবেগের নাম সালমান শাহ। প্রয়াত এই নায়ক কোটি ভক্তের হৃদয়ে অমর হয়ে আছেন। সেই ভক্তদের জন্য দারুণ সুযোগ নিয়ে এসেছিল প্রিয় নায়কের ব্যবহার করা টিশার্ট ও মাথার ব্যান্ড নিলামে উঠার ঘোষণার মধ্য দিয়ে।

কিন্তু শেষ পর্যন্ত সেটি আর হচ্ছে না। কারণ, সালমানের পরিবার আপত্তি জানিয়েছে এই নিলামের ব্যাপারে। বরং সালমান শাহের মা নীলা চৌধুরী ও মামা কুমকুম সালমান ভক্তের কাছে ওই টিশার্ট ও মাথার ব্যান্ড ফেরত চেয়ে উকিল নোটিশ পাঠিয়েছেন।

২০ জুলাই মামুনুর রেজা মামুন নামে এক সালমান ভক্ত জানায় প্রায় ২০ বছর ধরে তার সংগ্রহে রয়েছে ‘অন্তরে অন্তরে’ ছবির সালমান শাহ’র ব্যবহার করা একটি টিশার্ট ও মাথার একটি ব্যান্ড।

নায়কের মা নীলা চৌধুরী প্রায় ২০ বছর আগে এ দুটি জিনিস স্মৃতি হিসেবে মামুনকে উপহার দিয়েছিলেন বলেও দাবি করেন তিনি। করোনার কারণে দেশের অসহায় মানুষদের কল্যাণে তিনি সেইসব জিনিস নিলামে তুলতে চান এমনটাই জানিয়েছিলেন তিনি। প্রিয় নায়কের টিশার্ট ও ব্যান্ড বিক্রি করে পাওয়া অর্থ দিয়ে অসহায়দের সাহায্য করাই তার উদ্দেশ্য।

সালমানের মা নীলা চৌধুরীর পরিবারের আইনজীবী হিসেবে অ্যাড. ফারুক আহমেদ স্বাক্ষরিত একটি উকিল নোটিশ আজ মঙ্গলবার (২১ জুলাই) মামুনুর রেজা মামুনের উদ্দেশ্যে পাঠানো হয়েছে।

সেই নোটিশে বলা হয়েছে, সালমান শাহ ভক্ত মামুনুর রেজা মামুনের উদ্দেশ্য আমি নিম্ন লিখিত স্বাক্ষরকারী সালমান শাহ জননী নীলা চৌধুরী ও তার পরিবারের আইনজীবী হিসাবে অবগত করছি যে, অনলাইন পত্রিকা জাগো নিউজে  ২১/০৭/২০১০ইং তারিখ আপনার উদ্ধৃতি দিয়ে ১৯৯৪ সালে মুক্তি পাওয়া শিবলী সাদিক পরিচালিত ‘অন্তরে অন্তরে’ সিনেমায় প্রয়াত চিত্রনায়ক সালমান শাহ’র ব্যবহৃত ১টি টি-শার্ট ও ১টি মাথার ব্যান্ড নিলামে উঠানার বিষয়ে সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে। যাহা তার পরিবার ও অন্যান্য ভক্তবৃন্দের দৃষ্টি গোচর হয়েছে। সালমান শাহ জননী প্রবাস থেকে এবং কুমকুম মামা সিলেট থেকে আমাকে অবগত করেন যে, এরূপ টি-শার্ট ও মাথার ব্যান্ড আপনাকে কখনো স্মৃতি হিসেবে দেয়নি।

উনারা আরও বলেন যে, আপনি সালমান শাহ’র মৃত্যুর পর অন্যান্য ভক্তবৃন্দের সহিত বাসায় আসা যাওয়া করে থাকতে পারেন। সেই সময়ে সালমান শাহ’র ব্যবহৃত কাপড় চোপড় এলোমেলো অবস্থায় ছিল। সালমান শাহ’র অকাল মৃত্যুতে পরিবারের সদস্যদের মানসিক অবস্থা বিপর্যস্থ ছিল। এই সময়ে অনেক ভক্তবৃন্দ গুনগ্রাহী বাসায় আসা যাওয়া করেছিল। পরবর্তিতে সালমান শাহ’র ব্যবহৃত বিভিন্ন জিনিসপত্র খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিল না। আপনার দাবিকৃত সালমান শাহ’র জননী ও তার পিতা স্মৃতি চিহ্ন হিসেবে কিছু উপঢৌকন আপনাকে প্রদান করেন মর্মে দাবী সঠিক নহে।

টি-শার্ট ও ব্যান্ড নিলামে না তোলার অনুরোধ জানিয়ে নোটিশে আরও উল্লেখ করা হয়েছে, আপনাকে অবগত করা যাচ্ছে যে, চির অমর নায়ক সালমান শাহ’র ব্যবহৃত টি-শার্ট ও মাথার ব্যান্ডসহ অপরাপর সামগ্রী নিলাম বিক্রি করা হতে বিরত থাকার জন্য অনুরোধ করা হইলো। আপনাকে আরও বিশেষভাবে অনুরোধ করা যাচ্ছে যে, উক্ত টি-শার্ট ও ব্যান্ড ছাড়াও আপনার নিকট রক্ষিত অপরাপর জিনিসপত্র সালমান শাহ’র জননী বা তার পরিবারের নিকট ফেরত প্রদানের জন্য আহবান করা হইলো। অন্যথায় আপনার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হইবে।

এম

RTVPLUS