logo
  • ঢাকা বুধবার, ২১ আগস্ট ২০১৯, ৬ ভাদ্র ১৪২৬

আরটিভির নতুন ধারাবাহিক নাটক ‘বিষয়টি পারিবারিক’

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ২২ জুলাই ২০১৯, ১৬:০৭ | আপডেট : ২২ জুলাই ২০১৯, ১৬:৫২
নতুন ধারাবাহিক নাটক
জনপ্রিয় বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল আরটিভি’তে মঙ্গলবার (২৩ জুলাই) থেকে শুরু হচ্ছে নতুন ধারাবাহিক নাটক ‘বিষয়টি পারিবারিক’। ইমরাউল রাফাতের রচনা ও পরিচালনায় নাটকটির বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন চঞ্চল চৌধুরী, মৌসুমী হামিদ, শবনম ফারিয়া, ফখরুল বাশার মাসুম, মিশু সাব্বির, সাজু খাদেম, নুসরাত জাহান পাপিয়াসহ অনেকে।

bestelectronics
নাটকের গল্পে দেখা যাবে, চার কন্যা ও এক পুত্র নিয়ে ব্রিগেডিয়ার (অব:) রিজওয়ান খান এর সংসার। তিনি তার পরিবার এবং সকল সদস্যকে সর্বদা মিলিটারি আইনের ভেতরে রাখেন, অন্তত তিনি তাই মনে করেন। তার বড় মেয়ে শায়লা বিবাহিত কিন্তু বাবার বাড়িতে থাকেন। পাঁচ বছর ধরে স্বামী বিদেশ আছেন। মেঝ মেয়ে সানজানা 

বিশ্ববিদ্যালয়ের ৩য় বর্ষের ছাত্রী। দেখে শান্তশিষ্ট মনে হলেও, প্রেম করে তার বিশ্ববিদ্যালয়ের পঞ্চাশোর্ধ্ব শিক্ষক সাজ্জাদ আহমেদের সাথে যিনি একই সাথে একজন লেখকও। সেজো মেয়ে ফারজানা বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া, স্মার্ট এবং চঞ্চল। কথায় কথায় তার মেজাজ খারাপ হয়। সব কাজের মধ্যে ফাঁকিবাজি। সম্প্রতি মডেল হবার চেষ্টা করছে। এই বিষয়ে তাকে সাহায্য করে তার তথাকথিত প্রেমিক সোহাগ। যে পেশায় একজন মডেল ফটোগ্রাফার। ছোট মেয়ে আফসানা। মাঝে মাঝে পড়াশোনার পাশাপাশি তার একমাত্র কাজ হলো আশপাশের ছেলেদের সঙ্গে নিয়মিত প্রেম করা।

বড় ছেলে রায়হান ব্রিলিয়ান্ট এবং একরোখা। অনার্স, মাস্টার্স-এ ফার্স্ট ক্লাস ফার্স্ট হওয়া রায়হান কখনোই তিন মাসের বেশি কোনও চাকরিতে টিকতে পারে না। চাকরির মতো তার কোনও প্রেমিকাও বেশিদিন টেকে না।

এমন কঠিন আইনে পরিচালিত পরিবারের গল্প শুরু হয় কাজের লোককে বিদায় করে দেয়ার মধ্য দিয়ে। অব: ব্রিগেডিয়ার সাহেব কাজের লোক বিদায় করে দিয়ে বাসার সব কাজ পুত্র-কন্যাদের মধ্যে ভাগ করে দেন। সব কিছুতেই তাদের প্যাঁচ লাগানোর অভ্যাস, তারা এই কাজেও প্যাঁচ লাগিয়ে ফেলে। এর মধ্যে তাদের দূর সম্পর্কের আত্মীয় বিএ পাশ ছেলে আফজাল বাসায় ওঠেন চাকরির খোঁজে। তাকে নিয়ে রিজওয়ান সাহেব উদ্ভট সব প্রজেক্ট হাতে নেয়। এরপর ঘটতে থাকে নানান ঘটনা। এগিয়ে যেতে থাকে গল্প।

নাটকটি সপ্তাহের প্রতি মঙ্গলবার, বুধবার ও বৃহস্পতিবার রাত ১০টায় প্রচারিত হবে।

এম

bestelectronics bestelectronics
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়