logo
  • ঢাকা মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৯, ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

‘নোলক’ প্রমাণ করেছে ভালো ছবির দর্শক আছে: ববি

এ এইচ মুরাদ, আরটিভি অনলাইন
|  ২৯ জুন ২০১৯, ২০:৫৬ | আপডেট : ২৯ জুন ২০১৯, ২০:৫৯
ইয়ামিন হক ববি
ইয়ামিন হক ববি। ঢাকাই ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির সম্ভাবনাময়ী নায়িকা। হাল সময়ের যে কয়েকজন নায়িকা আলোচনায়, তাদের মধ্যে অন্যতম তিনি। গেল ঈদুল ফিতরে ববি অভিনীত ‘নোলক’ ছবিটি মুক্তি পায়। দর্শক মহলে ছবিটি দারুণ প্রশংসিত হয়েছে। এদিকে দেশের প্রথম সুপারহিরোইন ছবি ‘বিজলী’ খ্যাত নায়িকার ‘বেপরোয়া’ ও ‘বৃদ্ধাশ্রম’ ছবি দুটি এখন মুক্তির অপেক্ষায়। আর কলকাতার ছবি ‘রক্তমুখী নীলা’র শেষ ভাগের শুটিং শেষ করতে আগামী ৯ জুলাই কলকাতা যাচ্ছেন ববি। নোলক’র সাফল্য, কলকাতার ছবিতে কাজ এবং ব্যক্তিগত বিষয় নিয়ে আরটিভি অনলাইনের সঙ্গে কথা বলেছেন ববি। সাক্ষাৎকার নিয়েছেন জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক এ এইচ মুরাদ।  

ঈদের ছবি নোলকর সাড়া পাচ্ছেন কেমন?

ভালো গল্প, অভিনয়, লোকেশন, গান এমন অনেক ভালোর সমন্বয় ‘নোলক’ ছবি। মুক্তির আগে থেকেই দর্শকের মধ্যে ছবিটি নিয়ে আগ্রহ ছিল। প্রেক্ষাগৃহেও তার প্রতিফলন দেখা যায়। মাল্টিপ্লেক্স থেকে সিঙ্গেল স্ক্রিন সবখানেই দর্শকের ভিড় ছিল। এখনও সাফল্যের সঙ্গে ছবিটি সারাদেশের প্রেক্ষাগৃহে চলছে। নোলক প্রমাণ করেছে ভালো ছবির দর্শক আছে।

আপনার অভিনীত এবং প্রযোজিত সুপারহিরোইন বিজলীপ্রশংসিত হয়। ভবিষ্যতে এ ধরনের ছবি কি আবারও করবেন?  

ববস্টার ফিল্মস থেকে ছবিটি নির্মাণ করা হয়। এটা আমার প্রযোজিত প্রথম ছবি। শুধু তাই নয় দেশের প্রথম সুপারহিরোইন ছবি ‘বিজলী’। গেল বছর ছবিটি মুক্তি পর দর্শকদের ছবিটির পাশে পেয়েছিলাম। এ ধরনের ছবির জন্য দীর্ঘ একটা সময় লাগে। আপনারা দেখেছেন ছবিটির শুটিং-এর সময় আর কোনও কাজ হাতে নেইনি। দায়িত্বটাও বেশি ছিল। ইচ্ছে আছে আবারও বিজলীর মতো ছবি করার।

শুনলাম আপনার অভিনীত বেপরোয়াছবিটি ঈদুল আজহায় মুক্তি পাবে?

ঠিকই শুনেছেন। ছবিটির প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান জাজ মাল্টিমিডিয়ার দিক থেকে তেমন প্রস্তুতিই চলছে। আমার বিপরীতে অভিনয় করেছেন রোশান। ঈদে ছবিটির মুক্তির প্রস্তুতি চলছে। ছবিটি পরিচালনা করেছেন কলকাতার রাজা চন্দ। বাণিজ্যিক ঘরানার ছবির দর্শকের জন্য পুরো একটি প্যাকেজ ছবি হলো এটি।

বৃদ্ধাশ্রমছবিটি নিয়ে কিছু বলুন?

ছবির নাম শুনেই বোঝা যায় গল্পটি একটি বৃদ্ধাশ্রমের গল্প নিয়েই এগিয়েছে। সমাজের প্রতি দায়বদ্ধতা থেকে ছবিতে কাজ করেছি। আমার অভিনয় বা আমাদের ছবিটি দেখে একটি মানুষেরও যদি মনের পরিবর্তন হয়, সেখানেই আমাদের সফলতা। আমি নিজেও সামাজিক অনেক কাজের সঙ্গে জড়িত। প্রাণের টান থেকে কাজটি করেছি।

রক্তমুখী নীলাছবির শুটিং কোন পর্যায়ে আছে?

প্রায় ৮০ ভাগ শুটিং শেষ হয়েছে। এই ছবির মধ্যে দিয়ে প্রথমবার কলকাতার ফিল্মে কাজ করলাম। যদিও আমার সেখানে আরও আগে থেকেই কাজের ব্যাপারে কথা চলছিল। কিন্তু সময় সুযোগ হয়ে উঠছিল না। জয়দীপ মুখার্জি পরিচালিত ‘রক্তমুখী নীলা’তে কাজ করলাম। আমার বিপরীতে রয়েছেন সব্যসাচী মিশ্র। এবার ছবির বাকি অংশের শুটিং ও ডাবিং করে জুলাই মাসের শেষ দিকে দেশে ফিরবো।

কলকাতার ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে কাজের অভিজ্ঞতা কেমন?

এক কথায় খুব ভালো অভিজ্ঞতা। টালিউডে প্রথমবার কাজ করলেও জায়গাটি বা সেখানকার মানুষ আমার কাছে নতুন ছিল না। অনেকের সঙ্গে আগে থেকেই পরিচয়। আর শুটিং অভিজ্ঞতার কথা বলতে গেলে সেখানে টিমওয়ার্ক ভালো লেগেছে। কোনও কাজের সঙ্গে যদি পুরো টিমটা ওতপ্রোতভাবে জড়িয়ে যায়, তখন কাজটা এমনিতেই ভালো হয়। সেই জায়গা থেকে বলতে পারি ‘রক্তমুখী নীলা’ দর্শকদের মুগ্ধ করবে।

ক্যারিয়ারে দারুণ সময় কাটাচ্ছেন। বিয়েটা করছেন কবে?

বিয়ে তো আর প্ল্যান করে হয় না। এটা হঠাৎ করেই হয়ে যায়। তার আগে মনের মতো মানুষও প্রয়োজন। তেমন কাউকে পেলে অবশ্যই বিষয়টি ভেবে দেখবো।

এম/পি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • বিনোদন এর সর্বশেষ
  • বিনোদন এর পাঠক প্রিয়