logo
  • ঢাকা মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০১৯, ৮ শ্রাবণ ১৪২৬

কবি, সাহিত্যিক ও শিল্পীর স্মরণে ‘স্মৃতি সত্তা ভবিষ্যৎ’

বিনোদন ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন
|  ২৭ জুন ২০১৯, ২০:৫৮ | আপডেট : ২৭ জুন ২০১৯, ২১:১২
কবি, সাহিত্যিক ও শিল্পীর স্মরণের চিত্র

দেশের স্বনামধন্য কবি, সাহিত্যিক ও শিল্পীদের স্মরণ করতে ভিন্নধর্মী আয়োজন করেছ সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়। বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির  সহযোগিতায় ধারাবাহিকভাবে ৪৫জন বিশিষ্ট ব্যক্তিকে স্মরণ করা হচ্ছে।

গত ২৪ জুলাই এই আয়োজনের উদ্বোধন হয়। শিল্পকলার জাতীয় সংগীত ও নৃত্যকলা কেন্দ্র মিলনায়তনে পর্যায়ক্রমে শিল্পীদের স্মরণ অনুষ্ঠানে আলোচনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হচ্ছে। অনুষ্ঠানের উদ্বোধনী দিনে ছিল অমর সুরস্রষ্টা শচীন দেব বর্মণ স্মরণ অনুষ্ঠান। ধারাবাহিকভাবে ২৫ জুন ছিল বিশ্বখ্যাত সংগীতজ্ঞ ওস্তাদ আলাউদ্দিন খাঁ, ওস্তাদ আয়েত আলী খাঁ, পণ্ডিত রবি শংকর ও ওস্তাদ আলী আকবর খাঁর স্মরণ অনুষ্ঠান।

২৬ জুন স্মরণ করা হয় প্রখ্যাত সংগীতজ্ঞ সমর দাস, সত্য সাহা, খন্দকার নূরুল আলম ও রবিন ঘোষকে। আজ ২৭ জুন স্মরণ করা হয় প্রখ্যাত সংগীতজ্ঞ আব্বাসউদ্দীন, আব্দুল আলীম ও আব্দুল লতিফকে।

২৮ জুন স্মরণ করা হবে প্রখ্যাত সংগীতজ্ঞ মুকুন্দ দাস, ওয়াহিদুল হক, আলতাফ মাহমুদ ও অজিত রায়, ২৯ জুন স্মরণ করা হবে বিশ্বখ্যাত নৃত্যাচার্য উদয় শংকর এবং নৃত্যাচার্য  বুলবুল চৌধুরীকে। ৩০ জুন প্রখ্যাত সংগীতজ্ঞ দ্বিজেন্দ্র লাল রায়, রজনীকান্ত সেন ও অতুলপ্রসাদ সেনকে স্মরণ করা হবে। ১ জুলাই স্মরণ অনুষ্ঠানের শিল্পীরা হলেন প্রখ্যাত সংগীতজ্ঞ কছিম উদ্দীন, মহেশ চন্দ্র রায় ও আব্দুর রহমান বয়াতী এবং ২ জুলাই প্রখ্যাত সংগীতজ্ঞ কমল দাশগুপ্ত ও ফিরোজা বেগম  স্মরণে আলোচনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান আয়োজন করা হবে।

এর আগে গত ২৪ জুন সন্ধ্যা ছয়টায় একাডেমির জাতীয় সঙ্গীত ও নৃত্যকলা কেন্দ্র মিলনায়তনে ‘স্মৃতি সত্তা ভবিষ্যৎ’ শীর্ষক স্মরণানুষ্ঠান ২০১৯ আয়োজনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মাননীয় প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ এমপি। বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক ঋত্বিক নাট্যপ্রাণ লিয়াকত আলী লাকী’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে  আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সঙ্গীতজ্ঞ অধ্যাপক ড. আ ব ম নূরুল আনোয়ার, বাংলাদেশ থিয়েটার আর্কাইভের চেয়ারম্যান, নাট্য সমালোচক ও নাট্য অনুবাদক অধ্যাপক আবদুস সেলিম, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের অধ্যাপক শিল্পী জামাল আহমেদ, বিশিষ্ট সঙ্গীতশিল্পী জনাব কিরণ চন্দ্র রায়, আলোকচিত্র শিল্পী পাভেল রহমান, বাংলাদেশ নৃত্যশিল্পী সংস্থার সাধারণ সম্পাদক মাহফুজুর রহমান এবং চলচ্চিত্র সংসদ কর্মী ও আলোকচিত্রী মুনিরা মোরশেদ মুন্নী। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন একাডেমির সচিব জনাব বদরুল আনম ভূঁইয়া। অনুষ্ঠান আয়োজনে জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশন, প্রদীপ প্রজ্বালন, প্রয়াত গুণীজনদের স্মৃতির প্রতি এক মিনিট নীরবতা পালন, প্রয়াত গুণীদের তালিকা এবং ছবি প্রদর্শন।

 

জিএ/এমকে 

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়