logo
  • ঢাকা মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০১৯, ১ শ্রাবণ ১৪২৬

সাত দেশের অংশগ্রহণে চলছে আন্তর্জাতিক নাট্যোৎসব

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ২১ জুন ২০১৯, ১৯:১৪

বাংলাদেশ নাট্যোৎসবের দ্বিতীয় দিনে দুটি নাটক মঞ্চস্থ হয়েছে। এক্সপেরিমেন্টাল থিয়েটার হলে বিকেল পাঁচটায় মঞ্চস্থ হয় নাটক ‘ও মাই সুইট ল্যান্ড’। পরিবেশনায় ছিলেন থিয়েটার দ্য লুসান এবং ইয়ং ভিক লন্ডন। একক অভিনয় করেন নাট্যকার ও নির্দেশক কোরিন জাবের।

মধ্যপ্রাচ্যে চলমান যুদ্ধ এবং এর ফলে সৃষ্ট শরণার্থীদের জীবনের গল্প ‘ও মাই সুইট ল্যান্ড’।

এছাড়া সন্ধ্যা সাতটায় জাতীয় নাট্যশালার মূল মিলনায়তনে মঞ্চস্থ হয় আন্তর্জাতিক খ্যাতি সম্পন্ন নাট্য নির্দেশক জনাব রতন থিয়াম পরিচালিত ভারতের কোরাস রেপার্টরী থিয়েটার প্রযোজনা ‘ম্যাকবেথ’।

ফ্রান্স, রাশিয়া, চীন, ভিয়েতনাম, ভারত, নেপাল ও বাংলাদেশের দুটি নাট্যদলসহ মোট ৮টি দলের অংশগ্রহণে শুরু হয়েছে ‘বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক নাট্যোৎসব ২০১৯’।

গত বৃহস্পতিবার (২০ জুন) সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালার মূল মিলনায়তনে উৎসবের উদ্বোধন হয়। সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের আয়োজনে, বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি ও ইন্টারন্যাশনাল থিয়েটার ইন্সটিটিউট বাংলাদেশ কেন্দ্রের বাস্তবায়নে এবং বাংলাদেশ গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশনের সহযোগিতায় হচ্ছে এবারের আয়োজন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান এমপি। প্রধান অতিথির বক্তব্যে উৎসব আয়োজনের জন্য সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়কে ধন্যবাদ জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘উৎসবে অংশগ্রহণকারী দেশগুলো আমাদের অতিথি। আমরা তাদের প্রতি সম্মান জানাই। আমাদের এইধরনের আয়োজনের মাধ্যমে বিভিন্ন দেশের সাথে বন্ধুত্ব সম্পর্ক বৃদ্ধি পায়। আশা করি এধরনের উৎসবের নিয়মিত আয়োজন অব্যাহত থাকবে।’

উৎসবের উদ্বোধন করেন সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ, এমপি। সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব ড. মোঃ আবু হেনা মোস্তফা কামাল, এনডিসি এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আইটিআই এর সভাপতি নাসির উদ্দিন ইউসুফ। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন আইটিআই এর সাম্মানিক বিশ্ব সভাপতি রামেন্দু মজুমদার, বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক ও বাংলাদেশ গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশনের চেয়ারম্যান লিয়াকত আলী লাকী এবং আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন নাট্য নির্দেশক রতন থিয়াম।

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান এমপি-এর হাতে উৎসব স্মারক তুলে দেন সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ, এমপি। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের পরপর সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় বাংলাদেশের ধৃতি নর্তনালয়ের পরিবেশনা ও ওয়ার্দা রিহাব এর নির্দেশনায় অনুষ্ঠিত হয় রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের নৃত্যনাট্য ‘মায়ার খেলা’।

সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ বলেন, ‘বাংলাদেশের সমৃদ্ধ মঞ্চনাটককে দেশে-বিদেশে আরো প্রচার ও প্রসার এবং একইসঙ্গে বিদেশের মানসম্পন্ন নাটকের সঙ্গে এদেশের নাট্যপ্রেমী, মঞ্চপ্রেমী দর্শক ও থিয়েটারকর্মীদের সুপরিচিতকরণ এবং গুণগত নাটকের রস আস্বাদনের মাধ্যমে সুস্থ সংস্কৃতি চর্চাকে আরো গতিশীল ও বেগবান করার লক্ষ্যে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় এই উদ্যোগ গ্রহণ করেছে।’

সপ্তাহব্যাপী এ উৎসবে দেশ-বিদেশের বিভিন্ন বিখ্যাত নাটক মঞ্চায়নের পাশাপাশি থিয়েটার সংক্রান্ত সেমিনার অনুষ্ঠিত হবে।

আগামীকাল (২২ জুন) শনিবার বিকেল তিনটায় জাতীয় নাট্যশালার সেমিনার কক্ষে অনুষ্ঠিত হবে সেমিনার ‘আন্তর্জাতিক, জাতীয় ও ব্রাত্যজনীন থিয়েটারের পারস্পরিক বিনিময়’। সন্ধ্যায় জাতীয় নাট্যশালার মূল মিলনায়তনে মঞ্চস্থ হবে বাংলাদেশের ময়মনসিংহের অন্বেষা থিয়েটারের নাটক ‘জয়তুন বিবির পালা’।  

 

জিএ/পি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়