• ঢাকা সোমবার, ১৭ জুন ২০১৯, ৩ আষাঢ় ১৪২৬

আলাউদ্দীন আলীর শারীরিক অবস্থার ক্রমাগত উন্নতি

গাজী আনিস, আরটিভি অনলাইন
|  ২৯ এপ্রিল ২০১৯, ১৭:৫১ | আপডেট : ২৯ এপ্রিল ২০১৯, ১৮:০১

বিশিষ্ট সুরস্রষ্টা, বরেণ্য গীতিকার, সঙ্গীত পরিচালক ও বাদ্যযন্ত্রশিল্পী আলাউদ্দীন আলী গেল ৮ এপ্রিল থেকে মিরপুর সিআরপিতে চিকিৎসাধীন। দুই সপ্তাহের ফিজিওথেরাপি এখন তার শারীরিক অবস্থা কিছুটা ভালো।

এ প্রসঙ্গে আলাউদ্দীন আলীর ব্যক্তিগত সহকারী মোমিন বিশ্বাস বলেন, এখন তার শারীরিক অবস্থা মোটামুটি ভালো। কথা বলতে অসুবিধা হচ্ছে না। সবকিছু স্পষ্ট বলতে পারেন। একা একা বসতে পারেন, তবে উঠে দাঁড়াতে গেলে কারও সাহায্য লাগে। অতীতকে স্পষ্ট মনে করতে পারছেন।

দেশীয় চিকিৎসা শেষে পরিবার তাকে থ্যাইল্যান্ডে নেয়ার পরিকল্পনা করছেন বলে জানান তিনি।

ইউনিভার্সেল মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ডা. আশীষ কুমার চক্রবর্তী আরটিভি অনলাইনকে বলেন, বেশ কয়েকদিন আগেই মোবাইলে আমি তার সঙ্গে কথা বলেছি। আমাকে বললেন, আশীষ কেমন আছো। তার স্মৃতিশক্তি ফিরলে আমাদের হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র দিয়েছিলাম। আসলে তার কার্ডিয়াক অ্যারেস্ট হয়েছিল। ১৫ মিনিট সময় লেগেছিল হার্ট ফিরে আসতে। এছাড়া তার ব্রেইনে বেশকিছু ক্ষতি হয়। এজন্য ফিজিওথেরাপি ও ঔষধের মাধ্যমে আস্তে আস্তে ঠিক হবে। দেশের বাহিরে চিকিৎসা নিলেও সুস্থ হতে সময় লাগবে। এটা দীর্ঘ প্রক্রিয়া। 

আলাউদ্দীন আলী গত ২২ জানুয়ারি গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েন। তখন তাকে দ্রুত রাজধানীর মহাখালীর ইউনিভার্সেল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। শ্বাসকষ্ট, জ্বর ও শারীরিক নানা জটিলতার কারণে চিকিৎসার এক পর্যায়ে তাকে হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যাকেন্দ্রে (আইসিইউ) ভর্তি করা হয়। চিকিৎসা শেষে  ৮ এপ্রিল তাকে হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র দেয়া হয়। এরপর মিরপুর সিআরপিতে তার ফিজিওথেরাপি শুরু হয়।

উল্লেখ্য, আলাউদ্দীন আলীর দীর্ঘ চিকিৎসার ব্যয় বহন করতে তার পাশে দাঁড়িয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এই গুণী সঙ্গীত পরিচালকের চিকিৎসার দায়িত্ব নেয়ার পাশাপাশি তার পরিবারকে সহযোগিতা করার জন্য আর্থিক অনুদান হিসেবে ইতোমধ্যে ২৫ লাখ টাকার সঞ্চয়পত্র দিয়েছেন। গত ৩ ফেব্রুয়ারি প্রধানমন্ত্রী গণভবনে আলাউদ্দীন আলীর স্ত্রী ফারজানা মিমির হাতে এই চেক তুলে দেন।

 

জিএ/এম 

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়