দুই গুণী পেলেন মুনীর চৌধুরী সম্মাননা ও জাকারিয়া পদক

প্রকাশ | ৩০ নভেম্বর ২০১৮, ১১:৩৭ | আপডেট: ৩০ নভেম্বর ২০১৮, ১১:৪৮

পাভেল রহমান, আরটিভি অনলাইন
ছবি: সংগৃহীত

থিয়েটার প্রবর্তিত ‘মুনীর চৌধুরী সম্মাননা’ পেলেন ভারতের নাট্য গবেষক ও সঙ্গীতশিল্পী দেবজিত বন্দোপাধ্যায় এবং ‘মোহাম্মদ জাকারিয়া স্মৃতিপদক’ পেলেন নাট্যনির্দেশক ও অভিনেতা পান্থ শাহরিয়ার। রাজধানীর সেগুনবাগিচাস্থ জাতীয় নাট্যশালার স্টুডিও থিয়েটার মিলনায়তনে গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় এই পুরস্কার প্রদান করা হয়।

থিয়েটারের দলপ্রধান ফেরদৌসী মজুমদারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কথাসাহিত্যিক সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন নাট্যব্যক্তিত্ব রামেন্দু মজুমদার।

সম্মাননাপ্রাপ্তিতে অনুভূতি প্রকাশ করে দেবজিত বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, আমি এই পুরস্কারের জন্য কতটা যোগ্য তা জানি না। তবে শহীদ মুনীর চৌধুরীর নামাঙ্কিত এই পুরস্কারপ্রাপ্তি আমার জন্য গৌরবের। যদিও কখনই স্বীকৃতির আশায় কাজ করিনি। কিন্তু মুনীর চৌধুরীর নামের সঙ্গে সম্পৃক্ত এই স্বীকৃতিটি আমার কাছে অনেক বড় প্রাপ্তি।

পান্থ শাহরিয়ার বলেন, স্বীকৃতির আশায় কখনও কাজ করিনি। তবে যেকোনো স্বীকৃতিই অনুপ্রেরণা যোগায়। মঞ্চ আমার ভালোলাগা-ভালোবাসার জায়গা। এখান থেকে স্বীকৃতি বা পুরস্কার পাওয়া আমার জন্য আনন্দের।

অনুষ্ঠানের শেষাংশে নাটকের গান পরিবেশন করেন দেবজিত বন্দ্যোপাধ্যায়। উল্লেখ্য, স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে বাংলাদেশের নাট্যচর্চায় অগ্রণী ভূমিকা পালন করে নাট্য সংগঠন ‘থিয়েটার’। এ নাট্যদলটি ১৯৮৯ সালে শহীদ বুদ্ধিজীবী মুনীর চৌধুরীর নামে  ‘মুনীর চৌধুরী সম্মাননা’ এবং ১৯৯৭ সালে  ‘মোহাম্মদ জাকারিয়া স্মৃতি পদক’ প্রবর্তন করে।

মুনীর চৌধুরী সম্মাননা যারা পেয়েছেন

মোহাম্মদ জাকারিয়া (১৯৮৯), অমলেন্দু বিশ্বাস (মরণোত্তর, ১৯৯০), আবদুল্লাহ আল-মামুন (১৯৯১), নাগরিক নাট্য সম্প্রদায় (১৯৯২), সৈয়দ জামিল আহমেদ (১৯৯৪), রামেন্দু মজুমদার (১৯৯৫), প্রকাশনা সংস্থা মুক্তধারা (১৯৯৬), সাঈদ আহমদ (১৯৯৭), ফেরদৌসী মজুমদার (১৯৯৮), সৈয়দ শামসুল হক (১৯৯৯), আতাউর রহমান (২০০০), মামুনুর রশীদ (২০০১), নাসির উদ্দীন ইউসুফ (২০০২), সেলিম আল দীন (২০০৩), আলী যাকের (২০০৪), নিখিল সেন (২০০৫), আসাদুজ্জামান নূর (২০০৬), জিয়া হায়দার (২০০৭), মলয় ভৌমিক (২০০৮), পার্থপ্রতিম মজুমদার (২০০৯), অধ্যাপক আবদুস সেলিম (২০১০), আরণ্যক নাট্যদল (২০১১), লিয়াকত আলী লাকী (২০১৩), মৃত্তিকা চাকমা (২০১৪), ম. হামিদ (২০১৫), কেরামত মাওলা (২০১৬), ইসরাফিল শাহীন (২০১৭) এবং ২০১৮ সালে দেবজিত বন্দোপাধ্যায়।

মোহাম্মদ জাকারিয়া স্মৃতিপদক যারা পেয়েছেন

আহমেদ ইকবাল হায়দার (১৯৯৭), মান্নান হীরা (১৯৯৮), শিমুল ইউসুফ (১৯৯৯), ঠান্ডু রায়হান (২০০০), খালেদ খান (২০০১), দেবপ্রসাদ দেবনাথ (২০০২), আলোক নির্দেশক নাসিরুল হক খোকন (২০০৩), মাসুম রেজা (২০০৪), আমিনুর রহমান মুকুল (২০০৫), ফয়েজ জহির (২০০৬), জগলুল আলম (২০০৭), শুভাশিস সিনহা (২০০৮) বাবুল বিশ্বাস (২০০৯), অসীম দাশ (২০১০), নাট্যপত্রিকা থিয়েটারওয়ালা (২০১১), সুদীপ চক্রবর্তী (২০১২), সামিনা লুৎফা নিত্রা (২০১৩), আইরিন পারভীন লোপা (২০১৪), আকতারুজ্জামান (২০১৫), অভিজিৎ সেনগুপ্ত (২০১৬), রুমা মোদক (২০১৭) এবং ২০১৮ সালে পান্থ শাহরিয়ার।

পিআর/এ