DMCA.com Protection Status
  • ঢাকা বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০১৯, ১১ বৈশাখ ১৪২৬

‘মানুষের ভালোবাসার ছায়াতলে থাকতে চাই’

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ২৯ নভেম্বর ২০১৮, ০৯:৫৫ | আপডেট : ২৯ নভেম্বর ২০১৮, ১১:১৬
ছবি: সংগৃহীত
দুই দশকেরও বেশি সময় ধরে মণিপুরি থিয়েটারের সঙ্গে যুক্ত আছেন জ্যোতি সিনহা। একাধারে তিনি অভিনেত্রী, নির্দেশক, কস্টিউম ডিজাইনার ও কোরিওগ্রাফার। অভিনয় করেছেন ২০টিরও অধিক নাটকে। তার মধ্যে কহে বীরাঙ্গনা, লেইমা, দেবতার গ্রাস, শ্রীকৃষ্ণকীর্তন, ইঙাল আঁধার পালা, বিদেহ, রুধিররঙ্গিণী উল্লেখযোগ্য।

মণিপুরি থিয়েটারের সাধারণ সম্পাদক হিসেবেও দায়িত্ব পালন করছেন তিনি। তার অভিনীত একক নাটক ‘কহে বীরাঙ্গনা’ বাংলা নাট্যমঞ্চে এক অনবদ্য সংযোজন। শিল্পীর স্বীকৃতি হিসেবে ইতোমধ্যে পেয়েছেন আরণ্যক প্রবর্তিত দীপু স্মৃতি পদক, প্রাচ্যনাট তরুণ নাট্যকর্মী সম্মাননা, জীবনসংকেত নাট্যগোষ্ঠী সম্মাননা, বিষ্ণুপ্রিয়া মণিপুরি সাহিত্য প্রকাশনা সংস্থা ‘পৌরি’র সম্মাননা।

এছাড়া ভারতের আসামের মণিপুরি অডিও ভিজ্যুয়াল এল এল প্রোডাকশন তাকে ‘রত্ননন্দিনী’ খেতাব প্রদান করে। জ্যোতি সিনহার জন্ম ১৯৮৪ সালের ২৯ নভেম্বর সিলেটে। পৈতৃক নিবাস মৌলভীবাজার জেলার কমলগঞ্জ উপজেলার ঘোড়ামারা গ্রামে। পিতা মৃত ললিত মোহন সিংহ, মাতা ভাগ্যবতী সিনহা।

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে নৃবিজ্ঞানে স্নাতকোত্তর, ‘মণিপুরি সংস্কৃতি ও রাসলীলা : একটি সমাজতাত্ত্বিক পাঠ’ শিরোনামে এমফিল করেছেন। বর্তমানে মৌলভীবাজার জেলা শিল্পকলা একাডেমির কালচারাল অফিসার হিসেবে তিনি কর্মরত।

বাংলাদেশের নাট্যাঙ্গনের গুণী অভিনয়শিল্পী জ্যোতি সিনহার জন্মদিন আজ (২৯ নভেম্বর)।  জ্যোতি সিনহা বলেন, ‘জন্মদিন তো বিশেষ কিছু নয়, তবে মানুষের ভালোবাসায় দিনটি বিশেষ হয়ে উঠে। দিনের শুরুতেই অনেক প্রিয় মানুষদের শুভেচ্ছা পেয়েছি। আগামী দিনগুলো মানুষের ভালোবাসার ছায়াতলেই থাকতে চাই।’



আরও পড়ুন :

পিআর

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়