Mir cement
logo
  • ঢাকা বুধবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২১, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

বিনোদন ডেস্ক, আরটিভি নিউজ

  ২৮ অক্টোবর ২০২১, ১৯:৫৬
আপডেট : ২৮ অক্টোবর ২০২১, ২০:০৫

'আজকের দিনটাতেও আমরা আলাদা থাকব'

'আজকের দিনটাতেও আমরা আলাদা থাকবো'

‘আজীবন পাশে থাকব বলে এ মাসেই দুজনে কবুল বলেছিলাম। পাশে ছিলাম, আছি, থাকব শেষ পর্যন্ত, ইনশাআল্লাহ।’ বিবাহবার্ষিকীর মাসে এভাবেই আরজে নীরবের প্রতি নিজের ভালোবাসার জানান দিয়েছিলেন তার স্ত্রী অভিনেত্রী লাবণ্য লিজা। আজ বৃহস্পতিবার (২৮ অক্টোবর) তাদের পঞ্চম বিবাহবার্ষিকী। ২০১৬ সালের এই দিনে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন তারা।

গ্রাহকদের সঙ্গে প্রতারণার অভিযোগে করা মামলায় বর্তমানে কারাগারে রয়েছেন আরজে নীরব। প্রতিটি মুহূর্তে তাকে অনুভব করেন স্ত্রী লাবণ্য। দুজনের পরিচয় হওয়ার পর থেকে এখন পর্যন্ত কখনও এতদিন আলাদা থাকেননি তারা। তাদেরকে সবসময় একে অন্যের ভালোবাসার রেখার মধ্যে দেখা গেছে। আর তাই বর্তমান পরিস্থিতিতে স্বামীকে একটু বেশিই মিস করছেন এই অভিনেত্রী।

বিবাহবার্ষিকীর মতো বিশেষ একটি দিনেও নীরবকে পাশে পাচ্ছেন না লাবণ্য। সোশ্যাল মিডিয়ায় তাদের বিয়ের কিছু ছবি কোলাজ করে একটি পোস্টে লিখেছেন, ‘শুভ বিবাহবার্ষিকী আমার ভালোবাসা, আমার জীবন, আমার পৃথিবী মো. হুমায়ুন কবির (আরজে নীরব)। আজকের দিনটাতেও আমরা আলাদা থাকব! এমন একটা দিনও যে জীবনে আসবে, কোনোদিনও কল্পনায়ও আসেনি। আল্লাহ এই মেঘ কাটিয়ে সূর্যের সুন্দর ঝকঝকে আলোর মতো আমাদের ঝলমলে দিন আবারও ফিরিয়ে দেবেন, ইনশাআল্লাহ।’

নীরবকে উদ্দেশ্য করে তিনি লিখেছেন, ‘শুনেন ভালোবাসা কিন্তু একটুও কমে নাই বাড়ছে বহু বহু গুণ...।’

নীরবের উদ্দেশে স্ত্রী লাবণ্যর ভাষ্য- তোমাকে নিয়ে আমি গর্বিত, আরও বেশি হব। এই অন্ধকার কেটে যাবে, ইনশাআল্লাহ। অন্য সবার থেকে আমি ভালো করে জানি, তুমি দোষী নও। তুমি সবসময় তোমার সাধ্যের বাইরেও মানুষকে সাহায্য করেছ। তুমি কখনও কাউকে আঘাত করার কথা ভাবতেও পারো না। কিন্তু আমি ভালো করে চিনতেছি, কে আমাদের বন্ধু আর কে শত্রু।

নীরব-লাবণ্য দম্পতির একমাত্র মেয়ে নিয়া। বয়স তিন বছর। বাবার কোল ছাড়া সে ঘুমাতো না। বাবা চোখের আড়াল হওয়ার পর থেকেই সারা বাড়িতে বাবাকে খোঁজে এই শিশুকন্যা। এখনও প্রতিরাতে জেগে জেগে বাবার সঙ্গে মিছে মিছে কথা বলে সে। তার চাওয়া, ‘পাপ্পা তুমি আসো।’

নীরবের মুক্তি চেয়ে লাবণ্য বলেন, ‘আমরা যারা মিডিয়ায় কাজ করি তারা বিভিন্ন জিনিসের প্রচার-প্রচারণা করেই আমাদের পেট চালাই। এই কাজ না করলে আমাদের না খেয়ে থাকতে হবে। আমি নীরবের নিঃশর্ত মুক্তি চাই।’

এনএস/টিআই

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS